শেষ চারের লড়াইয়ে বাংলার পক্ষে ‘হোম আডভান্টেজ’

0

কটক: এ বার মিশন সেমিফাইনাল। আর সেই ম্যাচে কর্নাটকের মতো শক্ত প্রতিপক্ষ হলেও, বাংলার বড়ো সুবিধা ‘হোম আডভান্টেজ।’ কারণ ম্যাচটি হবে ইডেন গার্ডেনসে।

খারাপ আবহাওয়ার কারণে সোমবার বেশি খেলা হয়নি। রবিবার দিনের শেষে বাংলার দ্বিতীয় ইনিংসে রান ছিল সাত উইকেটে ৩৬১। সোমবার বাংলা অলআউট হয়ে যায় ৩৭৩-এ। অবিশ্বাস্য কোনো জয় পাওয়ার জন্য ওড়িশাকে করতে হত ৪৫৬।

প্রথম দশ ওভারে বেশ ভালোই শুরু করেছিল ওড়িশা। কিন্তু বিনা উইকেটে ৩৯, এই অবস্থায় মন্দ আলোর জন্য বন্ধ হয়ে যায় খেলা। তার পর আর খেলা শুরু হয়নি। প্রথম ইনিংসে এগিয়ে থাকার সুবাদে বাংলাই সেমিফাইনালে চলে যায়।

২৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু সেমিফাইনালের ম্যাচে বাংলার প্রতিপক্ষ কর্নাটক, যারা এ দিনই ১৬৮ রানে জম্মু-কাশ্মীরকে হারিয়েছে। কর্নাটকের বিরুদ্ধে শেষ চারের বল গড়ানোর আগে অভিমন্যুদের ফর্ম চিন্তায় রাখছে বাংলার সমর্থকদের। কর্নাটকের বোলিং আক্রমণ দেশের অন্যতম সেরা।

আরও পড়ুন ‘এটা বড়ো কোনো ব্যাপার নয়’, ওয়েলিংটনে হারের পর বললেন বিরাট কোহলি

পেস বিভাগে রয়েছেন নাইট পেসার প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ, অভিমন্যু মিঠুন, রণিত মোরে। স্পিন বিভাগ সামলাবেন কৃষ্ণাপ্পা গৌতম, জগদীশ সুচিতের মতো তারকারা। এ ছাড়া মনীশ পাণ্ডে, করুন নায়ারদের মতো ভারতীয় জার্সি গায়ে চড়ানো খেলোয়াড়রাও আছেন।

তবে বাংলার বাড়তি সুবিধা কারণ ম্যাচটি ইডেনে। উল্লেখ্য, ২০০৬-০৭ মরশুমের রঞ্জি ট্রফির সেমিফাইনালে এই ইডেনেই কর্নাটকের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলা। পিচের সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে প্রথম দিনের প্রথম সেশনেই কর্নাটককে ৮৯-এ অলআউট করে দিয়েছিল বাংলা। এর পর ফাইনালে যেতে বাংলার আর কোনো অসুবিধাই হয়নি।

এ বারও কি সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে? জানা যাবে আগামী সপ্তাহেই।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.