cricket

নাদাঁউ: আর একটা উইকেট যদি বেশি পড়ত, তা হলে বলে দেওয়া যেত যে চালকের আসনে রয়েছে বাংলা। কিন্তু তার বদলে বলতে হচ্ছে যথেষ্ট রোমাঞ্চকর মোড়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে এই ম্যাচ।

দিনের শেষে বাংলার রানের থেকে ২৫৬ রান দূরে রয়েছে হিমাচল। কিন্তু এখনও তাদের হাতে রয়েছে সাত উইকেট। এখনও অপরাজিত রয়েছেন ক্রিজে জমে যাওয়া ব্যাটসম্যান অঙ্কুশ বেন্স।

প্রথম দিনের রানের সঙ্গে আরও ১১৪ রান যোগ করেছিল বাংলা। এর কৃতিত্ব সম্পূর্ণ আমির গনি এবং অশোক দিন্দার। দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু হওয়ার কিছু পরেই বাংলার স্কোর হয়ে গিয়েছিল আট উইকেটে ৩০৬। এখান থেকে দুর্দান্ত একটা জুটি তৈরি হয় দিন্দা এবং গনির মধ্যে। বেশ বিধ্বংসী রূপে ব্যাট করেন দিন্দা। ২৮ বলে ৩৮ রানের ইনিংস সাজানো ছিল ৬টি চারে। অন্য দিকে মাত্র তিন রানের জন্য ৫০ করতে পারেননি গনি। সব মিলিয়ে ৩৮০ রানে শেষ হয় বাংলার প্রথম ইনিংস।

ব্যাটিং ফর্মের ঝলক দিন্দার বোলিং-এও দেখা যায়। আট ওভারের মধ্যে হিমাচলের দুই ওপেনারকে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠিয়ে দেন তিনি। কিন্তু এর পরেই জুটি তৈরি হয় বেন্স এবং গাঙ্গটার মধ্যে। দিনের একদম সায়াহ্নে দু’জনের মধ্যে তৈরি হওয়া ৮৩ রানের জুটি ভাঙেন গোনি। গাঙ্গটার উইকেট নিলেও ৭৯ রানে ব্যাট করছেন বেন্স।

তৃতীয় দিন বাংলার প্রথম লক্ষ্যই হবে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বেন্সকে ফেরত পাঠানো।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here