Connect with us

ক্রিকেট

বদলে যাওয়া আইপিএলের শুরুতেই ‘বদলা’, জয়যাত্রা শুরু ধোনিবাহিনীর

Published

on

chennai superkings

মুম্বই ১৬২-৯ (সৌরভ ৪২, ডে কক ৩৩, এনগিডি ৩-৩৮)

চেন্নাই ১৬৩-৫ (রায়ুড়ু ৭১, দু’প্লেসি ৫৫ অপরাজিত, বোল্ট ১-২০)

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সব দিক থেকেই বদলে গিয়েছে এ বারের আইপিএল। যে পরিস্থিতিতে টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়েছে, তাতে সহজেই এই টুর্নামেন্টকে ঐতিহাসিক আখ্যা দেওয়া যায়। আর এই ঐতিহাসিক মুহূর্তের শুরুতেই বদলা। মরুদেশে আয়োজিত প্রথম ম্যাচেই গত বছরের চ্যাম্পিয়ন মুম্বইকে হারিয়ে লিগ শুরু করল চেন্নাই সুপারকিংস।

খাতায় কলমে এই আইপিএলের সব থেকে বয়স্ক দল চেন্নাই সুপারকিংস। টুর্নামেন্ট শুরু হাওয়ার আগে কোভিডাতঙ্কে জর্জরিত হয়েছিলেন এই দলটার অনেকেই। শনিবার তাদের রান তাড়া করা শুরুটা দেখে মনে হচ্ছিল কোভিডের সেই আতঙ্ক এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি তারা।

১৬৩ রান তাড়া করতে নেমে মাত্র ৬ রানের মাথাতেই দুই ওপেনারকে হারিয়ে বিপাকে পড়েছিল হলুদ জার্সিধারীরা। কিন্তু ধীরে ধীরে দলকে সেই বিপদ থেকে বের করে আনেন ফাফ দু’প্লেসি এবং অম্বতি রায়ুড়ু।

গত বছর বিশ্বকাপের দল থেকে ছিটকে গিয়ে ‘অপমানে’ ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে নিয়েছিলেন রায়ুড়ু। পরে নিজের সিদ্ধান্ত বদলান তিনি। তবে তিনি যে এখনও ফুরিয়ে যাননি নির্বাচকদের সেটা বোঝানোর বাড়তি একটা তাগিদ সম্ভবত কাজ করছিল রায়ুড়ুর মধ্যে। আর সে কারণেই এ দিন শুরু থেকে আগ্রাসী ছিলেন তিনি।

দু’প্লেসির কিছুটা মন্থর ইনিংস আর রায়ুড়ুর আগ্রাসী ইনিংসে ভর করে ম্যাচে ফিরতে শুরু করে চেন্নাই। ১১৫ রানের জুটিটি ভেঙে দেন লেগ স্পিনার রাহুল চাহর। ৭১ রানের দুর্ধর্ষ ইনিংস খেলে রায়ুড়ু যখন ফিরে যাচ্ছেন, তখনও চেন্নাইকে শেষ চার ওভারে ৪২ রান করতে হত জেতার জন্য।

পাঁচ নম্বরে ধোনি নামেননি, পাঠিয়েছিলেন রবীন্দ্র জাদেজাকে। কিন্তু স্কোরবোর্ডে খুব একটা প্রভাব না ফেলে জাদেজাও যখন ফিরে গেলেন তখন ধোনিকে দেখতে চেয়েছিলেন ভক্তরা। কিন্তু তখন ব্যাট করতে নামেন স্যাম কারান। জয়ের জন্য তখন প্রয়োজন ২৯ বলে ১৭।

তবে কারান নেমে পর পর দু’ বলে ছয় আর চার মেরে খেলার মোড় চেন্নাইয়ের পক্ষে নিয়ে চলে আসেন পুরোপুরি। শেষ দু’ ওভারে চেন্নাইয়ের জয়ের জন্য দরকার ছিল ১৬। ১৯তম ওভারের প্রথম বলে ফের ছক্কা হাঁকান কারান। ষষ্ঠ বলে বুমরাহকে স্কুপ করতে গিয়ে তিনি যখন আউট হলেন তখন ম্যাচে একটি দলই জিততে পারত, চেন্নাই।

কারান আউট হতে অবশেষে ব্যাট হাতে নামেন ধোনি। কিন্তু তাঁকে বিশেষ কিছু করতে হয়নি। ততক্ষণে অর্ধশতরান পেরিয়ে গিয়েছেন দু’প্লেসি। শেষ ওভারে জয়ের জন্য তাদের প্রয়োজন ছিল ৫। শেষ ওভারের প্রথম দুই বলেই জয়ের প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয় চেন্নাই।

ইনিংসের শুরুতে মুম্বই যতটা দুর্দান্ত ভাবে ব্যাটিং শুরু করেছিল, ইনিংস শেষ করল ঠিক ততটাই কুৎসিত ভাবে। সদ্য কোভিডমুক্ত হওয়া দীপক চাহরের প্রথম বলকেই দুর্দান্ত স্কোয়ার ড্রাইভে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেন রোহিত শর্মা। ওপর প্রান্তে কুইন্টন ডে ককও তখন আক্রমণাত্মক।

দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামকে এক বারের জন্যও মনে হয়নি দর্শকশূন্য। কারণ আমিরশাহি ক্রিকেট সংস্থার পক্ষ থেকে মাঠে বিশেষ ধরনের আওয়াজের ব্যবস্থা করা হয়েছে, যাতে মনে হচ্ছে গ্যালারি থেকে দর্শকরাই চিৎকার করছেন। তাই মুম্বইয়ের সৌরভ তিওয়ারি যখন ছয় মারছেন বা লুঙ্গি এনগিডি তখন একটার পর একটা উইকেট তখন বাঁধ ভাঙা উচ্ছ্বাসের আওয়াজ ভেসে আসছে গ্যালারি থেকে।

এনগিডির জন্যই মুম্বইয়ের ব্যাটিংয়ে ব্রেক পড়ে গেল এ দিন। একাদশ ওভারে দুই উইকেটে ৯২ ছিল তারা। স্কোর এগোচ্ছিল দুশোর দিকে। কিন্তু এর পরেই চেন্নাই বোলাররা ঘুরে দাঁড়ান।

হার্দিক পাণ্ড্য আর সেট হয়ে যাওয়া সৌরভ তিওয়ারিতে এক্কেবারে বাউন্ডারি লাইনের ধারে অসাধারণ কায়দায় তালুবন্দি করেন ফাফ দু’প্লেসি। অন্য দিকে ভালো প্রভাব ফেলতে পারেননি হার্দিক পাণ্ড্যও। এর ফলে কোনো রকমে ১৬০-এর গণ্ডি অতিক্রম করতে সক্ষম হয় মুম্বই।

সেই ফেব্রুয়ারির শেষে, শেষ বার ভারতীয় ক্রিকেটারদের দেখা গিয়েছিল। তার পর তো ক্রীড়াসূচিতে লকডাউন জারি হয়ে গেল। ক্রিকেটের পরিসংখ্যানকে সরিয়ে দিয়ে জায়গা দখল করে নিল একটা জিনিসের পরিসংখ্যান। রোজ কত জন আক্রান্ত হচ্ছেন, আর কত জন মারা যাচ্ছেন। সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্কের পরিস্থিতি।

সেই আতঙ্কের পরিস্থিতি থেকে মানুষকে কিছুটা বিনোদন দেওয়ার জন্য দরকার ছিল এই আইপিএলেরই। আপাতত আগামী ৫৩টা দিন কোভিডের আবহ থেকে কিছুটা মুক্তির নিঃশ্বাস নিতে পারবেন মানুষ।

ক্রিকেট

ম্লান শিখরের শতরান, জয়ের হ্যাটট্রিক করে আইপিএলে দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন পঞ্জাবের

Published

on

দলের জন্য লাভবান হল না শিখর ধাওয়ানের দুর্ধর্ষ শতরান।

দিল্লি: ১৬৪-৫ (ধাওয়ান ১০৬ অপরাজিত, শ্রেয়স ১৪, শামি ২-২৮)

পঞ্জাব: ১৬৭-৫ (পুরান ৫৩, ম্যাক্সওয়েল ৩২, রাবাদা ২-২৭)

খবরঅনলাইন ডেস্ক: শিখর ধাওয়ানের রেকর্ড ব্রেকিং শতরান ম্লান হয়ে গেল পঞ্জাবের দাপটের কাছে। ক্রিস গেল ফিরে আসার পর এই নিয়ে জয়ের হ্যাটট্রিক করে ফেলল তারা। সব মিলিয়ে পঞ্জাব শিবিরে এখন বেশ স্বস্তিদায়ক জায়গায় পৌঁছে গেল।

২০০৮ থেকে আইপিএল খেলছেন তিনি। ১৬৪টা ম্যাচ খেলা হয়ে গিয়েছে। কিন্তু গত শনিবারের আগে পর্যন্ত আইপিএলে কোনো শতরানই ছিল না তাঁর। এর পর শতরানের দরজা যখন খুলল, এক্কেবারে দু’টো করে ফেললেন তিনি।

মঙ্গলবার দুবাইয়ের মাঠে দিল্লির ইনিংসটা জুড়ে তাঁরই নাম শিখর ধাওয়ান। তিনি ছাড়া ওই দলের কেউই উল্লেখযোগ্য কোনো অবদানই করে যেতে পারেননি। দলের ১৬৪ স্কোরের মধ্যে ১০৬ রানই ধাওয়ানের। স্ট্রাইক রেট ১৭৩.৭৭।

ধাওয়ানের ইনিংসটা বাদ দিলে এ দিন দিল্লির সংগ্রহ ৯.৫ ওভারে ৫৮-৫। এর থেকেই বোঝা যাচ্ছে পঞ্জাবের বোলাররা কিন্তু কোনো ভাবেই হাল ছাড়েননি। অবশ্য এ দিনও নজর কেড়েছেন মহম্মদ শামি। তাঁকে দেখলে মনে হয়, দিন দিন যেন আরও উন্নত হচ্ছেন। স্লগ ওভারে একের পর এক ইয়র্কার দেওয়ার চেষ্টা এ দিনও দেখা গেল শামির মধ্যে। সামনে ধাওয়ান থাকলেও শামির সামনে খুব একটা হাত খুলতে পারেননি তিনি।

এ দিকে ধাওয়ানের ব্যাটিংও যে আচমকা বিশাল শৃঙ্গে পৌঁছে গেল। শুরুর দিকে তেমন রানই ছিল না তাঁর ব্যাটে। কিন্তু ১১ অক্টোবর মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচে রানে ফেরেন তিনি। তবে সেই ইনিংস বিপুল সমালোচনা কুড়িয়েছিল। কুড়ি ওভার ব্যাট করেও ৭০ পেরোতে পারেননি তিনি। ধাওয়ানের মন্থর ব্যাটিং দিল্লির হারার পেছনে দায়ী ছিল সে দিন।

কিন্তু এর পরের ম্যাচ থেকেই পুরোপুরি বদলে গেলেন তিনি। রাজস্থানের বিরুদ্ধে ঝোড়ো অর্ধশতরানের পর গত রবিবার চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে শতরান করেন তিনি। এ দিন আবার। নিজের ব্যাটিংয়ের ধরনও বদলে দিয়েছেন। আগে ইনিংস ধরে খেলার চেষ্টা করছিলেন তিনি। কিন্তু এখন তিনিই প্রধান আগ্রাসক হয়ে উঠছেন।

যা-ই হোক, দিল্লির রানটা আদৌ বড়ো কিছু ছিল না। আর ক্রিস গেলের আগমনের পর পঞ্জাব যে ভাবে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে, তাতে এই রানটা তাদের পক্ষে তাড়া করে জিতে যাওয়া খুব একটা কষ্টকর কিছুও ছিল না। এ দিন সেটাই হল।

অদ্ভুত ভাবে, এ দিন রান পাননি কেএল রাহুল এবং ময়াঙ্ক অগ্রবাল। চলতি আইপিএলে সব থেকে বেশি রান সংগ্রহকারীদের তালিকায় প্রথম এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছেন এই দু’জন। তবুও পঞ্জাব জিতল। আর জিতল দাপটের সঙ্গেই।

মঙ্গলবারের পঞ্জাবের এই জয়ের নেপথ্যে বিদেশিরা। খোলসা করে বললেন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ানরা। ক্রিস গেল এ দিন বেশিক্ষণ টেকেননি। কিন্তু যতক্ষণ ছিলেন, বুঝিয়ে দিয়েছেন যে তাঁর সেরা ফর্মে পৌঁছে যাওয়া আর শুধু সময়ের অপেক্ষা।

১৩ বলে ২৯ রানের একটি ইনিংস খেলেন গেল। সেই ইনিংসে ছিল ৩টে চার এবং দু’টি ছক্কা। তুষার দেশপান্ডের একটি ওভারে একাই ২৫ রান করেন তিনি। গেলের এই দাপট অবশ্য থেমে যায় ঠিক তার পরের ওভারেই। রবিচন্দ্রন অশ্বিনের একটি নিখুঁত বল ছিটকে দেয় তাঁর স্টাম্প।

তবে গেল ফিরলেও পঞ্জাব প্রবল ভাবে ম্যাচে থাকে নিকোলাস পুরানের সৌজন্যে। পুরানের শক্তির ব্যাপারে আগেই পরিচিত হওয়া গিয়েছে। যা ছক্কা তিনি মারেন, কার্যত ভাবনারও বাইরে। এই পুরান যখন আগ্রাসী ব্যাটিং শুরু করলেন তখন তাঁকে অপর দিক থেকে সংগত করে যাচ্ছিলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

টুর্নামেন্টে ম্যাক্সওয়েল এক্কেবারেই রানের মধ্যে ছিলেন না। তাই কিছুটা ধরে নিজের ইনিংস শুরু করেন তিনি। তবে ধীরে ধীরে ইনিংসের গতি বাড়ান। পুরান আর ম্যাক্সওয়েলের মধ্যে ৬৯ রানের জুটিই ম্যাচের ভাগ্য অনেকটাই গড়ে দেয়।

পঞ্জাবের রানরেট দুর্দান্ত ছিল। তাই দলের স্কোর দেড়শো পেরোনোর আগেই পুরান এবং ম্যাক্সওয়েল আউট হয়ে গেলেও বিশেষ চাপে পড়েনি পঞ্জাব। পাঁচ উইকেট হাতে নিয়েই জয়ের লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছে যায় তারা।

জয়ের এই হ্যাটট্রিকের মধ্যে দিয়ে লিগ টেবিলে আপাতত পাঁচ নম্বর উঠে এল পঞ্জাব। কে বলতে পারে, এই দলটাই হয়তো শেষ চারে চলে গেল, ওপরে থাকা কোনো দলকে ছিটকে দিয়ে।

Continue Reading

ক্রিকেট

চেন্নাইয়ের শনির দশা চলছেই, শেষ চারে যাওয়ার আশা ক্রমশ কমছে

Published

on

rajasthan royals

চেন্নাই: ১২৫-৫ (জাদেজা ৩৫, ধোনি ২৮, গোপাল ১-১৪)

রাজস্থান: ১২৬-৩ (বাটলার ৭০ অপরাজিত, স্মিথ ২৬ অপরাজিত, চাহর ২-১৮)

খবরঅনলাইন ডেস্ক: চেন্নাইয়ের এমন শনির দশা আইপিএলের ইতিহাসে আর কখনও যে হয়নি তা বলাই বাহুল্য। এখনও চারটে ম্যাচ বাকি রয়েছে তাদের। কিন্তু এখনই নিশ্চিত করে বলে দেওয়া যায় যে এ বার তাদের শেষ চারে যাওয়ার আশা ক্রমশ কমছে। অন্য দিকে প্লে-অফে যাওয়ার আশা এখনও জিইয়ে রাখল রাজস্থান।

আইপিএলের ইতিহাসে দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে দুশো ম্যাচ খেললেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। কিন্তু এ বারও ব্যাট হাতে বড়ো রান পেলেন না তিনি। চেন্নাই সুপার কিংসও বড়ো রানে পৌঁছোতে পারল না।

চলতি আইপিএলের ধারা মেনেই সোমবার টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ধোনি। কিন্তু প্রথম থেকেই চেন্নাইয়ের ওপরে চাপ বাড়াতে থাকে রাজস্থানের বোলাররা। ১০ ওভারের মধ্যে পড়ে যায় চার উইকেট। ড্রেসিং রুমে ফিরে গিয়েছেন দু’প্লেসি, ওয়াটসন, স্যাম কারান এবং অম্বতি রায়ুড়ু। ।

ধোনি আর জাদেজার মধ্যে জুটি তৈরি হলেও তাঁরা রানের গতি বাড়াতে পারেননি। ক্রিজে ধোনি থাকা সত্ত্বেও ১৫ ওভারে মাত্র ৮৯ করেছিল চেন্নাই। রানরেট ছয়ও নয়।

তবে এরই মধ্যে একটা মাইলস্টোন পূর্ণ করেন ধোনি। আইপিএলে নিজের চার হাজার রান পেরিয়ে যান তিনি। তবে ফের একবার মন্থর ইনিংস খেলেন মাহি। মাত্র দু’টো চার মারেন তিনি। অন্য দিকে জাদেজা কিছুটা চেষ্টা করলেও ছয় মারতে ব্যর্থ হন তিনিও।

এ দিন সাত নম্বরে নামেন কেদার যাদব। এবং যথারীতি ব্যাটে বলে করতে কার্যত হিমশিম খেলেন তিনি। সব মিলিয়ে কোনো রকমে কিছুটা ভদ্রস্থ স্কোরে পৌঁছোল চেন্নাই, যেখান থেকে বিপক্ষকে জেতার জন্য অন্তত প্রতি ওভারে ছয় রান করে করতে হবে।

আবু ধাবির এ দিনের পিচটা যে ব্যাটিংয়ের জন্য সত্যিই মন্থর সেটা রাজস্থানের রান তাড়া করার ঢং দেখেই বোঝা গেল। যে পিচে চেন্নাইয়ের ব্যাটসম্যানরা সুবিধা করতে পারেননি, সেখানে রাজস্থানের টপ অর্ডারও ভেঙে পড়ল।

এই টুর্নামেন্টের অসংখ্য ওপেনিং কম্বিনেশন ব্যবহার করে অবশেষে একটি কম্বিনেশনে থিতু হয়েছে রাজস্থান। কিন্তু শনিবার বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে বেন স্টোক্স আর রবিন উথাপ্পার ওপেনিং জুটি ক্লিক করে গেলেও এ দিন ব্যর্থ হল।

দীপক চাহর এবং জস হেজেলউডের বোলিং জুটি রাজস্থানকে শুরু থেকে চাপে রেখে দিয়েছিল। তবে ওপেনিং জুটিতে ২৬ রান উঠে গিয়েছিল মূলত স্টোক্সের কারণে। সেই জুটিটা ভেঙে দেন চাহর। এর দুই রানের মধ্যে উথাপ্পা এবং সঞ্জু স্যামসনকেও হারায় রাজস্থান।

তিরিশ রানের আগেই তিন উইকেট হারিয়ে বেশ চাপে পড়ে যায় রাজস্থান। ইনিংস মেরামতি করার দায়িত্ব এসে পড়ে স্টিভ স্মিথ এবং জস বাটলারের ওপরে। এই জুটিটা ধীরে ধীরে দাঁড়িয়ে গিয়ে রাজস্থানকে জয়ের দিকে এগিয়ে নিয়ে যায়। তবে স্মিথ অসম্ভব ম্লান ছিলেন। প্রথম দিকে এক্কেবারেই ছন্দে ছিলেন না।

কুড়িটা বল খেলে ফেলার পর এ দিন স্মিথের স্ট্রাইক রেট ৫০-এর ওপরে ওঠে। স্মিথ যখন ছন্দ পেতে রীতিমতো নাকানিচোবানি খেয়েছেন, তখন দুরন্ত পারফর্ম করলেন জস বাটলার। কোনো রকম অক্রিকেটীয় শট তিনি খেলেননি, রান বাড়ানোর জন্য বাড়াবাড়িও করেননি। ঘটনাপ্রবাহকে নিজের মতোই চলতে দিয়েছেন। সেট হয়ে যাওয়ার পরে চার-ছক্কা হাঁকিয়েছেন।

যে অসাধারণ দক্ষতায় ইংল্যান্ড আর অস্ট্রেলিয়ার এই দুই ক্রিকেটার ম্যাচ বের করলেন, তা এক কথায় অনবদ্য। এক জন যখন আগ্রাসী ছিলেন, তখন অন্য জন উইকেটটাকে ধরে রেখে খেলাতেই স্বচ্ছন্দ ছিলেন। আর এই ভাবেই কিছুটা কঠিন হয়ে যাওয়া ম্যাচ মোটের ওপরে সহজ ভাবেই জিতে গেল রাজস্থান।

প্লে-অফে যাওয়ার ক্ষীণ আশা এখনও রয়েছে চেন্নাইয়ের। সেটা যাতে একদম চলে না যায়, সে জন্য পরের ম্যাচটা জিততেই হবে ধোনিবাহিনীকে।

Continue Reading

ক্রিকেট

সামনের বছরের শুরুতেই ইংল্যান্ড আসছে ভারতে, ইডেনেই হয়তো দিন রাতের টেস্ট

তিনটে স্টেডিয়ামের বেশি মাঠ ব্যবহার করা হবে না, খবর বিসিসিআই সূত্রে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক সংযুক্ত আরব আমিরশাহিকে বিকল্প হিসেবে ধরে রাখলেও আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে ভারতেই ইংল্যান্ড সিরিজ আয়োজন করার জন্য বদ্ধপরিকর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। শনিবার বিসিসিআইয়ের অ্যাপেক্স কাউন্সিলের ভার্চুয়াল বৈঠকেই এই ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে।

শুধু ভারতে সিরিজ আয়োজনই নয়, সব ঠিকঠাক থাকলে ইডেনেই এই সিরিজের দিন রাতের টেস্ট আয়োজন করা হতে পারে। তবে এ ক্ষেত্রে কিছুটা দৌড়ে অমদাবাদও রয়েছে।

এই সিরিজ দিয়েই দেশের মাটিতে করোনা পরবর্তী ক্রিকেট যুগের সূচনা হবে। সে ক্ষেত্রে এ দেশেও জৈব সুরক্ষা বলয়, তথা বায়ো বাবল তৈরি করা হবে। আর খুব অল্প সংখ্যক স্টেডিয়াম ব্যবহার করা হবে।

বিসিসিআইয়ের তরফে এক আধিকারিক জানান, এই সিরিজের জন্য মোট তিনটে স্টেডিয়ামের কথা ভাবা হচ্ছে। সেখানেই জৈব সুরক্ষা বলয়ের ব্যবস্থা করা হবে।

এই বৈঠকেই আলোচনা হয় চলতি বছরের শেষে টিম ইন্ডিয়ার অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়েও। আইপিএল শেষ হলেই আমিরশাহী থেকেই সরাসরি অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবে ভারতীয় দল। এখনও পর্যন্ত ঠিক আছে, সে দেশের নিয়ম মেনে ১৪ দিন কোয়ারান্টাইনে থাকতে হবে ক্রিকেটারদের। তবে বিসিসিআই ইতিমধ্যেই কোয়ারেন্টাইনের সময় কমানোর অনুরোধ জানিয়েছে।

আগামী ১ জানুয়ারি থেকে দেশে ঘরোয়া ক্রিকেট মরশুমও শুরু করা হতে পারে। সে ক্ষেত্রেও জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরির জন্য কম সংখ্যক মাঠের ব্যবহার করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

ঐতিহাসিক জোড়া সুপার ওভার শেষে মুম্বই বধ পঞ্জাবের

Continue Reading

Amazon

Advertisement
ক্রিকেট32 mins ago

ম্লান শিখরের শতরান, জয়ের হ্যাটট্রিক করে আইপিএলে দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন পঞ্জাবের

দেশ3 hours ago

বিহারে গোরক্ষপুর-কলকাতা পুজো স্পেশাল ট্রেনের দু’টি কামরা বেলাইন, অল্পের জন্য রক্ষা

দুর্গা পার্বণ3 hours ago

দুর্গোৎসব বাংলাদেশে: করোনা কেড়ে নিয়েছে বরদেশ্বরী কালীমন্দিরের দুর্গাপুজোর উৎসব

রাজ্য3 hours ago

জেপি নাড্ডাকে একহাত নিলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী

coronavirus west bengal
রাজ্য3 hours ago

এই প্রথম রাজ্যে এক দিনে আক্রান্ত ৪ হাজার, বাড়ছে সুস্থতাও

দেশ5 hours ago

প্রত্যেক দেশবাসীর কাছে টিকা পৌঁছানোর জন্য চেষ্টা চলছে: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

রাজ্য6 hours ago

ডাক্তারি পড়তে আগ্রহীদের জন্য সুখবর দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

দেশ7 hours ago

আজ থেকে ৩৯২টি উৎসব স্পেশাল ট্রেন, দেখে নিন পূর্ণাঙ্গ তালিকা

দেশ13 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৪৬৭৯০, সুস্থ ৬৬৩৯৯

দেশ9 hours ago

কোভিড মহামারিতে বিহার ভোটে খরচের ঊর্ধ্বসীমা বাড়ল ১০ শতাংশ

দেশ7 hours ago

আজ থেকে ৩৯২টি উৎসব স্পেশাল ট্রেন, দেখে নিন পূর্ণাঙ্গ তালিকা

ক্রিকেট2 days ago

লাইভ সাক্ষাৎকারে নিজের বাতকর্মের আওয়াজ রেকর্ডিং করে শোনালেন ডেভিড ওয়ার্নার!

দেশ2 days ago

আসন্ন শীতে করোনা সংক্রমণের ‘দ্বিতীয় ঢেউ’-এর সম্ভাবনা অস্বীকার করছেন না বিশেষজ্ঞ কমিটির প্রধান

কলকাতা2 days ago

বন্দুকওয়ালা দাঁ বাড়িতে সন্ধিপূজার সময় পুরুষ সদস্যরা নৈবেদ্য সাজান

durga
রাজ্য1 day ago

রাজ্যের সব পুজো প্যান্ডেল ‘নো এন্ট্রি জোন’, ঐতিহাসিক রায় কলকাতা হাইকোর্টের

coronavirus
রাজ্য2 days ago

চার হাজার ছুঁতে চলল রাজ্যের দৈনিক করোনা সংক্রমণ, সক্রিয় রোগী বেড়েছে আটশোর বেশি

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 weeks ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 weeks ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা3 weeks ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা3 weeks ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা3 weeks ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা4 weeks ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা4 weeks ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা4 weeks ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 month ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা1 month ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

নজরে