ওয়েব ডেস্ক: টেস্ট ক্রিকেটের ১৪০ বছরের ইতিহাসে এমন ঘটা আর কেউ ঘটাতে পারেননি। ঘটানোর কথা কেউ ভাবেনওনি। কারণ, টেস্ট ম্যাচ তো পাঁচ দিনের খেলা। সময় নিয়ে খেলতে হয়। বড়ো সময়ের পরিকল্পনা লাগে। কিন্তু তিনি তো সে সব ভাবার পাত্র নন। তিনি ক্রিস গেইল। তাই ছয় মারার বল পেলে দেখেশুনে ডিফেন্স করা তাঁর পক্ষ সম্ভব নয়।

২০১২ সালের ১৩ নভেম্বর বাংলাদেশের মিরপুরে, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্টের প্রথম বলেই ছক্কাক হাঁকান গেইল। বোলার ছিলেন সোহাগ গাজি। তৃতীয় ওভাই অবশ্য সেই গাজির বলেই আউট হয়ে যান। কিন্তু ততক্ষণে ইতিহাস রচনা তো হয়েই গেছে। তার আগে, পরে কেউ ঘটাতে পারেননি ওমন কাণ্ড। আদৌ আর কোনোদিন কেউ পারবেন কি না, বলা মুশকিল।

এটাই শুধু নয়। রেকর্ড আছে আরও। গেইলই একমাত্র ক্রিকেটার, যিনি টেস্টে ত্রিশত রান, ওয়ান ডেতে দ্বিশত রান এবং টি টুয়েন্টিতে সেঞ্চুরি করেছেন। ২০০৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তিনি টেস্টে ৩১৭ রান করেন। ২০১৫ সালে ওয়ান ডে বিশ্বকাপে জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে করেন দ্বিশত রান। আর ২০০৭ সালে টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তাঁর ১১৭ রানের ইনিংসটা কি ভোলা সম্ভব!!

রেকর্ডের কথাই যখন হচ্ছে, তখন ২০১৩ সালের আইপিএল-এ তাঁর ৩০ ঊলে সেঞ্চুরির কথাও উল্লেখ থাক। পুনে ওয়ারিয়র্সের বিরুদ্ধে সেই ম্যাচে ৬৬ বলে ১৭৫ করেছিলেন গেইল।

১৯৭৯ সালের ২১ সেপ্টেম্বর জামাইকায় জন্ম হয়েছিল গেইলের। বৃহস্পতিবার ৩৮ বছর পূর্ণ করলেন তিনি।

তাঁর জামাইকার বাড়িতে দুটি সুইমিং পুল, একটি সিনেমা হল, একটি বার আছে। আর কী আছে জানেন? স্ট্রিপ ড্যান্সের জন্য একটি পোল রয়েছে শোওয়ার ঘরে!

ক্রিস গেইল জানেন, কেমন করে বাঁচতে হয়।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন