আইপিএল ২০১৯-এর বিতর্কিত মুহূর্তগুলি

0
logo

ওয়েবডেস্ক: চলতি আইপিএল শেষ লগ্নে দাঁড়িয়ে। হাতে আর মাত্র দু’টি ম্যাচ। তার পরেই চলতি বছরের টি২০ লড়াই শেষ। তবে ক্রিকেটের সঙ্গে চলতি লিগে এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে যা আলোড়ন ফেলে দিয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটে। যা রীতিমতো খবরের হট কেক ছিল।

দেখে নিন তেমনই কিছু ঘটনার ব্যাপারে-

১। বাটলারকে মাঁকড়ীয় পদ্ধতিতে আউট করেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন

চলতি আইপিএলের হয়তো সবচেয়ে বিতর্কিত বিষয়। রাজস্থানের বিরুদ্ধে ম্যাচে বিপক্ষের ব্যাটসম্যান জস বাটলারকে মানকাডিং বা মাঁকড়ীয় পদ্ধতিতে আউট করেন পঞ্জাবের অশ্বিন। নন স্ট্রাইকারে ছিলেন বাটলার। তিনি ক্রিজ থেকে এগিয়ে গেলে উইকেটে বল লাগিয়ে আউট করে দেন অশ্বিং। যা নিয়ে ক্রিকেটবিশ্ব দ্বিধাবিভক্ত হয়ে গিয়েছিল।

২। মাঠের মধ্যে ধোনির ঢুকে যাওয়া

রাজস্থানের বিরুদ্ধে ম্যাচে ‘ওয়েস্ট-হাইট; নো বলের সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি চেন্নাই অধিনায়ক ধোনি। মাঠে ঢুকে আম্পায়ারদের সঙ্গে তর্ক জুড়ে দেন। যার ফলে ধোনির ম্যাচ ফি-র পঞ্চাশ শতাংশ কাটা হয়।

৩। মাঝরাত অতিক্রম করে যাওয়া খেলা

আইপিএলের প্রতিটা ম্যাচই ভারতীয় সময় রাত ৮ টায় শুরু হয়। কিন্তু কিছু ম্যাচের ক্ষেত্রে তা মাঝরাতে পৌঁছে যায়। যা নিয়ে বিরক্ত প্রকশ করেন ক্রিকেটাররা। যার জেরে ৭ মে থেকে শুরু হওয়া ম্যাচগুলি আধ ঘণ্টা আগে এগিয়ে দেওয়া হয়।

৪। যখন কোহলি এবং ধাওয়ান, অশ্বিনকে নকল করে

অশ্বিনের মাঁকড়ীয় পদ্ধতি রীতিমতো আলোড়ন ফেলে দেয়। দিল্লির বিরুদ্ধে যখন পঞ্জাব মাথে নামে, তখন দিল্লির ব্যাটসম্যান শিখর ধাওয়ান অশ্বিনকে বল করার সময় মাঁকড়ীয় পদ্ধতি নিয়ে নকল করে নাচতে থাকেন।

অন্যদিকে কোহলির বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে ম্যাচে যখন কোহলি আউট হয়ে যান তখন বিরাটের মতো সেলিব্রেশন করতে থাকেন অশ্বিন। দ্বিতীয় ইনিংসে অশ্বিনের সঙ্গে মাঁকড়ীয় নিয়ে ঠাট্টা করেন বিরাট।

৫। আম্পায়ারদের সিধান্তে বিরাটে চটে যাওয়া

মুম্বইয়ের বিরদ্ধে ম্যাচে লসিথ মালিঙ্গার শেষ ওভারে আম্পায়ার নো-বল দিতে ভুলে যান। যা ম্যাচের মোড় অনেকটাই ঘুরিয়ে দেয়। ম্যাচ শেষে আম্পায়রদের একহাত নেন বিরাট এবং জানান তারা কোনো ক্লাব ক্রিকেট খেলছেন না।

৬। মাঁকড়ীয় নিয়ে অশ্বিনের সঙ্গে মজা করেন ইংল্যান্ড পেসার জেমস অ্যান্ডারসন

অশ্বিনের মাঁকড়ীয় নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে গিয়েছিল ক্রিকেট বিশ্ব। অনেকেই এমনটা মেনে নিতে পারেননি। অশ্বিনের মতে, নিয়ম অনুযায়ী তিনই ঠিক কাজ করেছেন। তবে এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছুটা মজা করেন অ্যান্ডারসন।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.