বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে চেন্নাইকে জয় এনে দিল রায়না-ধোনি জুটি

0
CSK beats RCB
ছবি IPL Twitter থেকে নেওয়া।

আরসিবি: ১৫৬-৬ (পড়িক্কল ৭০, কোহলি ৫৩, ব্রাভো ৩-২৪)

সিএসকে: ১৫৭-৪ (১৮.১ ওভার) (রায়াডু ৩২, ঋতুরাজ ৩১, হর্শল পটেল ২-২৫)

দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত আইপিএলের ১৪তম সংস্করণের দ্বিতীয় ভাগে ভাগ্যটা ভালোই যাচ্ছে চেন্নাইয়ের। প্রথম ম্যাচে মুম্বইকে হারানোর পর দ্বিতীয় ম্যাচে বেঙ্গালুরুকে হারাল তারা। ঠিক বিপরীত অবস্থা বেঙ্গালুরুর। দুবাইয়ে প্রথম ম্যাচে কেকেআরের কাছে আত্মসমর্পণ করার পর শুক্রবার তারা হেরে গেল চেন্নাইয়ের কাছে। এই জয়ের পরে লিগ টেবিলে নিজেদের স্থান আরও শক্তপোক্ত করল চেন্নাই, থাকল শীর্ষ স্থানে।  

চেন্নাইয়ের জয়ের লক্ষ্যমাত্রা খুব বেশি ছিল না। বেঙ্গালুরু ইনিংসের গোড়ার দিকে ১৩ ওভার পর্যন্ত যতটা গর্জাল, শেষ পর্যন্ত ততটা বর্ষাল না। তারা ১৫৬ রানের লক্ষ্যমাত্রা দিল চেন্নাইকে। পঞ্চম উইকেটে দুই বর্ষীয়ান খেলোয়াড় সুরেশ রায়না ও মহেন্দ্র সিং ধোনির সুবাদে ৬ উইকেটে জয় পেল চেন্নাই।

টসে জয় সিএসকে-র, ব্যাটে আরসিবি       

টসে জিতে চেন্নাই সুপার কিংস (সিএসকে) ব্যাট করতে পাঠায় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে। দুর্দান্ত শুরু করল তারা। বিনা উইকেটে ইনিংস টেনে নিয়ে গেল ১১১ রান পর্যন্ত। কিন্তু এই পর্যন্ত যতটা গর্জাল, শেষ পর্যন্ত ততটা বর্ষাল না বেঙ্গালুরু। তাদের ইনিংস শেষ হয়ে গেল ১৫৬ রানে।

ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে এসে অধিনায়ক বিরাট কোহলি আর দেবদত্ত পড়িক্কল ১৩.১ ওভারে তুলে দিলেন ১১১ রান। অধিনায়কের তুলনায় অনেক বেশি মারাকাটারি ব্যাট করলেন পড়িক্কল। কিন্তু ১১১ রানে বিরাট ডয়েন ব্রাভোর বলে জাদেজার হাতে ধরা পড়তেই কেমন যেন ছন্দপতন ঘটল বেঙ্গালুরুর। যেখানে ১৩.২ ওভারে উঠল ১১১ রান, সেখানে বাকি ৬.৪ ওভারে উঠল ৪৫ রান। কোহলি করলেন ৪১ বলে ৫৩ রান।  

তবু এবি ডেভিলিয়ার্সকে সঙ্গী করে যতক্ষণ পড়িক্কল লড়ছিলেন ততক্ষণ রান ওঠার গতি মন্দ ছিল না। কিন্তু দলের ১৪০ রানের মাথায় শার্দুল ঠাকুরের বলে সুরেশ রায়নার হাতে ক্যাচ দিয়ে ডেভিলিয়ার্স আউট হতেই বেঙ্গালুরুর গাড়ি যেন থেমে গেল। ওই একই রানে বিদায় নিলেন পড়িক্কল ৫০ বলে ৭০ করে।

এর পর একে একে চলে গেলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, টিম ডেভিড ও হর্শল পটেল। ২৪ বলে ৩ উইকেট নিয়ে দুর্দান্ত প্রদর্শন করলেন ডোয়েন ব্রাভো। জয়ের জন্য চেন্নাইকে ১৫৭ রানের লক্ষ্যমাত্রা দিল বেঙ্গালুরু।

চেন্নাইয়ের জবাব  

ভালো শুরু করল চেন্নাইও। সৌজন্য ঋতুরাজ গায়কোয়াড় ও ফাফ দুপ্লাসি। দুপ্লাসির তুলনায় বেশি মারকুটে ছিলেন গায়কোয়াড়। ৮.১ ওভারে বিনা উইকেটে এই জুটি রান তুলে নিল ৭১।

কিন্তু এর পরেই তুমুল ধাক্কা দিল বেঙ্গালুরু। দুই ওপেনারকে একই রানে তুলে নিয়ে ম্যাচে ফিরল তারা। ঋতুরাজকে নিলেন যজুবেন্দ্র চহল আর দুপ্লাসিকে নিলেন ম্যাক্সওয়েল।

এর পর মইন আলি ও অম্বতি রায়াডুর জুটি কিছুটা সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেছিল। তাঁরা দলের রান টেনে নিয়ে গেলেন ১১৮ পর্যন্ত। রায়াডুর সঙ্গী হলেন সুরেশ রায়না। কিন্তু দলের ১৩৩ রানের মাথায় রায়াডু আউট হতেই মনে হল খেলার মোড় ঘুরতে পারে বেঙ্গালুরুর  দিকে।

কিন্তু বাধ সাধলেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। রায়নার ১০ বলে ১৭ এবং ধোনির ৯ বলে ১১ রানের সুবাদে লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছে গেল চেন্নাই।  

আরও পড়তে পারেন 

রাহুল ত্রিপাঠী, বেঙ্কটেশ আইয়ারের বিধ্বংসী ব্যাটিং, মুম্বইকে গুঁড়িয়ে চতুর্থ স্থানে উঠে এল কেকেআর

হায়দরাবাদকে সহজে হারিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষ স্থানে উঠল দিল্লি

গ্যালারিতে রয়েছেন মহিলারা, তাই আফগানিস্তানে আইপিএলের সম্প্রচার বন্ধ করে দিল তালিবান

কার্তিক ত্যাগীর অনবদ্য শেষ ওভার, রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে পঞ্জাবকে হারিয়ে দিল রাজস্থান

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন