sourav ganguly

ওয়েবডেস্ক: ১৯৯২-এর অস্ট্রেলিয়া সফর। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের অভিষেক সিরিজ। খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন মাত্র একটা ম্যাচে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সেই ম্যাচে করেছিলেন ৩। কিন্তু ওই সফরে একটি মহাবিতর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। ভারতীয় দলের তৎকালীন ম্যানেজার রণবীর সিংহ মহেন্দ্র অভিযোগ করেছিলেন, সৌরভ নাকি মাঠে জল নিয়ে যেতে অস্বীকার করেছিলেন।

রণবীরের অভিযোগ ছিল, সৌরভ নাকি বলেছেন, “আমি মহারাজা, আমি জল নিয়ে যেতে পারব না।” এই বিতর্ক আজও মাঝেমধ্যে মানুষের আলোচনায় শোনা যায়। সত্যিই কি সে দিন জল নিয়ে যেতে অস্বীকার করেছিলেন সৌরভ?

রণবীরের অভিযোগ যে সম্পূর্ণ মিথ্যে, নিজের আত্মজীবনী, ‘আ সেঞ্চুরি ইজ নট এনাফ’-এ বলেছেন সৌরভ। তবে এটাও বলেছেন, ইচ্ছাকৃত ভাবে না হলেও, একটা ম্যাচে সত্যিই জল নিয়ে যেতে দেরি হয়ে গিয়েছিল তাঁর।

ওই সফরে সিডনিতে একটি ম্যাচ চলছিল। সৌরভ প্রথম একাদশে ছিলেন না বলে ড্রেসিংরুমে বসে ওই ম্যাচের টিভি ধারাভাষ্য শুনছিলেন। তাঁর কথায়, “চ্যানেল নাইনে রিচি বেনো এবং বিল লরি ধারাভাষ্য দিচ্ছিলেন। ধারাভাষ্যকার হিসেবে দু’জনকেই আমি খুব শ্রদ্ধা করি। তাই মাঠে যখন ম্যাচ চলছিল, ওই ম্যাচের টিভি সম্প্রচার আমি ড্রেসিংরুমে বসে দেখছিলাম।” সৌরভের কথায়, এর মধ্যেই একটা ঘটনা ঘটে যায়। অ্যালান বর্ডারকে বিষাক্ত ইনসুইং বলে বোল্ড করে দেন কপিল দেব।

সৌরভ বলেন, “কোনো উইকেট পড়লেই, মাঠে জল নিয়ে ছুটতে হত। কিন্তু আমি টিভিতে এতটাই মগ্ন ছিলাম যে আমি ভুলেই গেছিলাম, যে ম্যাচ মাঠে চলছে সেটারই সম্প্রচার দেখছি। আমার মনে হয়েছিল কোনো রিপ্লে দেখছি।”

সৌরভ আরও যোগ করেন, “আব্বাস আলি বেগের রাগত মুখ দেখে খেয়াল হয়, আমি মাঠে জল নিয়ে যেতেই ভুলে গেছি।”

এই একটা ছোট্টো একটা আগুনের ফুলকি থেকে কত বড়োই না আগ্নেয়গিরি তৈরি হয়ে গেল, যার ফলে সৌরভের কেরিয়ারে সাড়ে চার বছরের অলিখিত নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দিল বিসিসিআই।

১৯৯২-এ সৌরভের অভিষেক ম্যাচের ভিডিও-

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন