virat-kohli
ভারত অধিনায়ক

ওয়েবডেস্ক: ১৪ জুন আফগানিস্তান তাঁদের প্রথম টেস্ট খেলবে ভারতের বিরুদ্ধে, ভারতের মাটিতে। আর সেই ঐতিহাসিক ম্যাচে খেলবেন না অধিনায়ক বিরাট কোহলি। কারণ তিনি তখন আসন্ন ইংল্যান্ড সফরের প্রস্তুতির জন্য কাউন্টি ক্রিকেট খেলবেন। এমনটাই ঠিক ছিল। তাতেই বেঁধে যায় তুমুল বিতর্ক। তাহলে কি ভারতের অন্যান্য ক্রিকেটারদের প্রস্তুতির দরকার নেই? দরকার শুধু অধিনায়কের? তারপরই প্রথম একাদশের আরও বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় ওই টেস্ট থেকে সরে দাঁড়ানোর ইচ্ছা প্রকাশ করেন। জানা গেছিল, অশ্বিন অধিনায়কত্ব করবেন ওই ম্যাচে।

আফগানিস্তান মুখে কিছু না বললেও এটা যে তাঁদের পক্ষে সম্মানহানিকর, সেটা বুঝতে পাচ্ছিলেন সকলেই। কারণ ইতিহাসে এই ধরনের ঐতিহাসিক টেস্টে কখনওই নবীন দলের বিরুদ্ধে বিপক্ষ দল তাঁদের গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটারদের বাদ দিয়ে নামেনি।

কেন্দ্রীয় সরকারও ব্যাপারটা ভালো ভাবে নেয়নি। কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেটের পোস্টার বয়ের ইচ্ছাকে প্রকাশ্যে অসম্মানও করা সম্ভব হয়নি।

এমন অবস্থায় বৃহস্পতিবার হঠাৎই জানা গেল আইপিএল-এর শেষ ম্যাচে নাকি ঘাড়ে চোট পেয়েছেন বিরাট। বিসিসিআই-এর মেডিকেল টিম তাঁর দেখভাল করছে। তাই তিনি কাউন্টি খেলার পরিকল্পনা ত্যাগ করছেন। ১৫ জুন থেকে জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে তাঁর রিহ্যাব হবে। মেডিকেল টিম নিশ্চিত, ইংল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ড সফরের আগে পুরো ফিট হয়ে যাবেন বিরাট।

ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা, যাতে সাপও মরে আর লাঠিও না ভাঙে, সে জন্যই এমন কৌশল নেওয়া হয়েছে। কাউন্টি আর আফগানিস্তান-দুয়ের বাইরে থেকেই ইংল্যান্ড যাবেন ভারত অধিনায়ক।

সেই বোঝাপড়ার অংশ হিসেবেই হয়তো কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী, বিরাট আর প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে ফিটনেস-ফিটনেস খেলা চলছে!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here