ভারত: ৪১৬ ও ২৪৫ (পুজারা ৬৬, ঋষভ ৫৭, স্টোক্স ৪-৩৩)

ইংল্যান্ড: ২৮৪ ও ২৫৮-৩ (রুট ৭৬ অপরাজিত, বেয়ারস্টো ৭০ অপরাজিত, বুমরাহ ২-৫৩)

বার্মিংহ্যাম: বার বার চার বার। মানে, ইংল্যান্ড যদি আকস্মিক প্রত্যাবর্তন ঘটিয়ে ভারতকে চলতি সিরিজে হারিয়ে দেয়, তা হলে অনন্য একটা রেকর্ড করে ফেলবে তারা। এই নিয়ে পর পর চারটে টেস্টে চতুর্থ ইনিংসে আড়াইশোর বেশি রান তুলে ঝড়ের গতিতে জয়।

ভারতীয় শিবিরে এমন আশংকা এখন ষোলোআনা। কারণ চতুর্থ দিনের খেলা যেখানে শেষ হয়েছে, তাতে ইংল্যান্ডের জয়ের সম্ভাবনাই বেশি মনে হচ্ছে। ভারতকে এখন এই টেস্ট জিততে গেলে খুব অতিরঞ্জিত কিছু করে দেখাতে হবে।

এক এক সময় মনে হচ্ছে গণ্ডগোলটা বিরাট কোহলিও করে দিয়েছিলেন, জনি বেয়ারস্টোকে খেপিয়ে দিয়ে। ওই উত্তেজক কথাবার্তার পরেই তো বেয়ারস্টো ঝড়ের গতিতে রান তুলতে শুরু করেন এবং আর একটা শতরানের দিকে চলে যান। দ্বিতীয় ইনিংসেও সেটাই করছেন জনি, এ বার রুটকে সঙ্গে নিয়ে।

সোমবার চতুর্থ দিনের খেলা যেখানে শেষ হয়েছে, সেখান থেকে জয়ের জন্য আর ১২০ রান করতে হবে। ইতিমধ্যেই দেড়শো রানের জুটি তৈরি করেছে জো এবং জনি।

অথচ মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগেও ম্যাচের রাশ পুরোপুরি ভারতের কব্জায় ছিল। দ্বিতীয় ইনিংসে আশাপ্রদ ব্যাটিং না করতে পারলেও ইংল্যান্ডকে ৩৭৮ রানের লক্ষ্যমাত্রা তো দিয়েছিল। এ দিন ৩ উইকেট হারিয়ে ১২৫ রান হাতে নিয়ে চতুর্থ দিন ক্রিজে নেমেছিলেন চেতেশ্বর পূজারা ও ঋষভ পন্থ।

এর পর দু’ জন মিলে রান গড়ে তোলার চেষ্টা করলেও, দলের রান যখন ১৫৩ তখন পূজারা (৬৬) ফিরে যান। অত্যন্ত সাবলীল ভাবে খেলছিলেন পুজারা। অন্য দিকে আরও একটা অর্ধশতরান করে ফেলেন পন্থ (৫৩)। কিন্তু পন্থ এবং পুজারা ফিরতেই ভাররতীয় ব্যটিং ভেঙে পড়ে। ২৪৫ রানের বেশি উঠতে পারেনি তারা। চার উইকেট নেন অধিনায়ক স্টোক্স।

৩৭৮ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরুটা দুরন্ত করে ইংল্যান্ড। ঝড়ের গতিতে রান তুলতে থাকেন দুই ওপেনার অ্যালেক্স লিজ এবং যাক ক্রলি। দু’ জনের মধ্যে ১০৭ রানের জুটি তৈরি হয়। অর্ধশতরান করেন লিজ। তবে ভারত অধিনায়ক বুমরাহ ক্রলিকে তুলতেই ইংল্যান্ড শিবিরে হালকা ভাঙন শুরু হয়। পরের দু’ রানের মধ্যে আরও উইকেট হারায় ব্রিটিশরা।

কিন্তু এর পরে তৈরি হওয়া জো রুট এবং জনি বেয়ারস্টোর জুটিকে আর কেউ আলাদা করতে পারেনি। দলের স্কোর পৌঁছে গিয়েছে ২৫৮ রানে।

আরও পড়তে পারেন

হাসিমারায় বিমানবন্দর তৈরির জন্য রাজ্যের কাছে জমি চাইল কেন্দ্র

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন