ওয়েবডেস্ক: ক্রিকেটের জন্ম ইংল্যান্ডে। কালে কালে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই খেলা ছড়িয়ে পড়ে। এবং ভারতীয় উপমহাদেশে এই খেলা তো রীতিমতো জনপ্রিয়।

ভারতীয় ক্রিকেট দলের বিদেশ সফরের হাতেখড়িও ইংল্যান্ড দিয়ে। ১৯৩২ সালে ভারতের ক্রিকেট দল ইংল্যান্ডে যায়। সে বার সব ক’টা ম্যাচ হয়েছিল লর্ডস-এ। সেই ভারত আবার ইংল্যান্ডেে। টি২০ আর একদিনের সিরিজের পর এ বার শুরু হচ্ছে টেস্ট, ১ আগস্ট থেকে।

চিনে নেওয়া যাক সেই পাঁচ ভারতীয় ক্রিকেটারকে যাঁদের অভিষেক ইংল্যান্ডের মাঠে।

যার হাত ধরে ক্রিকেট জনপ্রিয় হল ভারতে   

vijay hajareপুরো নাম বিজয় স্যামুয়েল হাজারে। টেস্ট অভিষেক হয়েছিল লন্ডনে, ১৯৪৬ সালে। ভারতে ক্রিকেটকে জনপ্রিয় করার ক্ষেত্রে হাজারের নাম প্রথমেই মনে পড়ে। অভিষেক ইনিংসে হাজারে করেছিলেন ৩২। শেষ পর্যন্ত বোল্ড হয়ে যান অ্যালেক বেডসারের বলে।

মজার কথা হল, ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে এই বেডসারকেই তুলে নেন হাজারে। বেডসার করেছিলেন ৩০ রান।

ক্রিকেটার, যিনি পরে কোচ হয়েছিলেন

abbas ali baigনিজের প্রতিভার প্রতি সুবিচার করেননি এই ক্রিকেটার। অভিষেক টেস্টেই করেছিলেন সেঞ্চুরি। কিন্তু ওই পর্যন্তই। তার পর আর তাঁর ঝুলিতে সেঞ্চুরি নেই। থাকবেই বা কী করে! ১৯৫৯ থেকে ১৯৬৭, এই আট বছরে মাত্র ১০টা টেস্ট খেলেছিলেন এই ক্রিকেটার। ইনি আব্বাস আলি বেগ।

১৯৫৯ সালে ম্যাঞ্চেস্টারে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তাঁর অভিষেক। পরে ১৯৯১-৯২ অস্ট্রেলিয়া ট্যুরে এবং ১৯৯২-এ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের কোচ হয়েছিলেন বেগ।

আরও পড়ুন অস্ট্রেলিয়া সফরেও অনিশ্চিত হয়ে গেলেন ঋদ্ধিমান
ভারতের সর্বশ্রেষ্ঠ স্পিনার

anil kumbleক্রিকেটর এক কিংবদন্তি অনিল কুম্বলে। তাঁর টেস্ট অভিষেক ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাঞ্চেস্টারে, ১৯৯০ সালে। প্রথম ইনিংসে ৩টি উইকেট তুলে নিয়ে দলে জায়গা পাকা করে নেন।

ভারতের হয়ে ১৩২টি টেস্ট খেলেছেন, উইকেট পেয়েছেন ৬১৯টা। বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ স্পিনারদের অন্যতম কুম্বলে। তাঁর ক্রিকেট জীবনে সব চেয়ে স্মরণীয় ঘটনা, এক ইনিংসে ১০টি উইকেট পাওয়া। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে মাত্র দু’ জনই এই কৃতিত্বের অধিকারী – ইংল্যান্ডের জিম লেকার আর ভারতের অনিল কুম্বলে।  ১৯৯৯-এর ফেব্রুয়ারি। দিল্লিতে দ্বিতীয় টেস্টে পাকিস্তানের ইনিংসে ১০টি উইকেটই তুলে নেন কুম্বলে মাত্র ৭৪ রান দিয়ে।

ক্রিকেট ম্যাচের ‘দ্য ওয়াল’

rahul dravidক্রিকেট বিশ্বে যত জন ক্রিকেটার ব্যাটিং-এ ধারাবাহিকতার জন্য বিখ্যাত, তাঁদের মধ্যে অন্যতম রাহুল শরদ দ্রাবিড়। তাই তাঁর আর এক নাম ‘দ্য ওয়াল’।

ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক বেঙ্গালুরুর এই ক্রিকেটারের টেস্ট অভিষেক লর্ডসে, ১৯৯৬ সালে। সৌরভ গাঙ্গুলির সঙ্গে জুটি বেঁধে করেছিলেন ৯৫ রান।

২০০৩-এ অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের জয়ে রাহুলের অবদান ছিল মনে রাখার মতো।

মাঠে যখন প্রিন্স এলেন

saurav gangulyএকদিনের ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল ১৯৯২ সালে। সেই দুঃস্বপ্ন ভুলে আবার তাঁর ক্রিকেট মাঠে আগমন ১৯৯৬ সালে। ঘটল টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক। এবং সেই রাজকীয় অভিষেকের পর জিওফ বয়কট নাম দিয়ে দিলেন ‘প্রিন্স অফ ক্যালকাটা’।

সত্যিই যেন প্রিন্স। লর্ডসে অভিষেক টেস্টেই দ্রাবিড়ের সঙ্গে জুটি বেঁধে করলেন সেঞ্চুরি। করলেন ১৩১ রান। পরের টেস্ট ট্রেন্টব্রিজ, ফের সেঞ্চুরি। শুরু হল মহারাজার জয়যাত্রা। ভারতীয় দলে পালা হয়ে গেল আসন। বছর চারেকের মধ্যেই অধিনায়ক। ২০০৩-এ দলকে তুললেন বিশ্বকাপের ফাইনালে।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here