cricket

নয়াদিল্লি: সব ধরনের ক্রিকেটকে বিদায় জানাতে চলেছেন প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার তথা প্রাক্তন নাইট অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর। ৬ ডিসেম্বর দিল্লিতে অন্ধ্রের বিরুদ্ধে রঞ্জি ম্যাচই হবে তাঁর শেষ প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ।

১৯৯৯-২০০০ সালে প্রথম শ্রেণি ক্রিকেটে অভিষেক করেন গম্ভীর। ২০০৩ বিশ্বকাপের ঠিক পরেই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এক দিনের ম্যাচ অভিষেক ঘটান তিনি। এর পরের বছরই অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট অভিষেক তাঁর। ২০০৪ থেকে ২০০৫ এবং ২০০৮ থেকে ২০১২ পর্যন্ত বীরেন্দ্র সহবাগের টেস্টে ওপেনিং-এর সঙ্গী ছিলেন গম্ভীর।

মোট ৫৮টা টেস্টে ৪১৫৪ এবং ১৪৭ এক দিনের ম্যাচে ৫২৩৮ রান করেছেন গম্ভীর। এ ছাড়াও ৩৭টা টি২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচও খেলেছেন গম্ভীর। তাঁর কেরিয়ারের সব থেকে উল্লেখযোগ্য মুহূর্ত ছিল ২০০৭-এর টি২০ বিশ্বকাপের ফাইনাল এবং ২০১১-এর বিশ্বকাপের ফাইনালে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলা। দু’টি ম্যাচই জিতে দু’টি বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত।

কলকাতা নাইটরাইডার্সের হয়েও সফল ছিলেন তিনি। ২০১১ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত দলের অধিনায়ক ছিলেন তিনি। এর মধ্যে দু’বার দলকে আইপিএল চ্যাম্পিয়ন করেন তিনি। তবে গম্ভীরের আইপিএল ভাগ্য এ বছর থেকেই খারাপ হতে শুরু করে। নিলামে তাঁকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কলকাতা। গম্ভীর দিল্লিতে গেলেও, নিজের সেরাটা দিতে পারেননি, এবং মাঝপথেই তাঁকে দল থেকে বহিষ্কার করে দিল্লি। কিছু দিন আগে জানা যায়, তাঁকে দল থেকেই বাদ দিয়ে দিয়েছে দিল্লি। এর পরেই জল্পনা শুরু হয়ে যায়, এ বছর আইপিএলের নিলামে অবিক্রীত থেকে যেতে পারেন তিনি। তার পরেই অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়ে নিলেন গম্ভীর।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here