চাঞ্চল্যকর ঘটনাপ্রবাহ! শাকিব ও বুকির হোয়াটসঅ্যাপ কথোপকথন প্রকাশ করল আইসিসি

0

ওয়েবডেস্ক: মঙ্গলবার শাস্তির খাঁড়া নেমে এসেছে শাকিব আল হাসানের ওপরে। তাঁকে এক বছরের জন্য নির্বাসিত করেছে আইসিসি। বুকির সঙ্গে কথাবার্তা বোর্ডের কাছে গোপন করার জন্যই এই শাস্তি দেওয়া হয়েছে শাকিবকে। বাংলাদেশের তারকা অলরাউন্ডারও যাবতীয় অভিযোগ মেনে নিয়েছেন।

এই শাস্তির পরেই শাকিবের সঙ্গে বুকি দীপক অগ্রবালের মধ্যে হওয়া হোয়াটসঅ্যাপ কথোপকথন প্রকাশ করেছে আইসিসি। সেই কথোপকথনের মধ্যে দিয়ে চাঞ্চল্যকর ঘটনাপ্রবাহ প্রকাশ্যে এসেছে।

আইসিসি জানাচ্ছে ২০১৭ সালে প্রথম বার অগ্রবালের সঙ্গে কথা হয় শাকিবের। এর পর থেকে এই কুখ্যাত বুকির সঙ্গে যোগাযোগ ছিল শাকিবের। কথোপকথনে মাঝেমধ্যেই ‘আইপিএল’ শব্দটি উঠে আসায় এই গোটা ঘটনায় যে একটা ভারত-যোগও রয়েছে তা অস্বীকার করার কোনো জায়গা নেই।

নভেম্বর ২০১৭

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ঢাকা ডায়নামাইট দলে থাকাকালীন প্রথম বার ওই বুকির সংস্পর্শে আসেন শাকিব। এই পরিপ্রেক্ষিতে আইসিসি জানাচ্ছে, “শাকিব জানতেন যে তাঁর ঘনিষ্ঠ কেউ, তাঁর ফোনের নম্বর অগ্রবালকে দিয়েছেন।”

অগ্রবালের সঙ্গে মাঝেমধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ চালাচালি হয়েছে শাকিবের। এরই মধ্যে শাকিবের সঙ্গে একবার দেখা করার ব্যাপারেও আগ্রহ প্রকাশ করে অগ্রবাল।

জানুয়ারি ২০১৮

বাংলাদেশে আয়োজিত একটি ত্রিদেশীয় সিরিজ চলাকালীন বুকির সঙ্গে যোগাযোগ আরও বাড়ে শাকিবের।

১৯ জানুয়ারি একটি ম্যাচে সেরার পুরস্কার পান শাকিব। তার পরেই অগ্রবাল তাঁকে মেসেজ করে শুভেচ্ছা জানায়। সেই সঙ্গে বলে, “আমরা কি এখন কাজ করব না কি আইপিএল পর্যন্ত অপেক্ষা করব?”

আরও পড়ুন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের স্বার্থে আরও এক বিশেষ পদক্ষেপ সৌরভের

শাকিব যাতে দলের অভ্যন্তরীণ খবরাখবর বুকিকে দেন, সেই ব্যাপারটাকেই ‘কাজ’ বলে উল্লেখ করে অগ্রবাল। অগ্রবালের এই কথাবার্তাটি দুর্নীতিবিরোধী কোনো সংস্থা বা নিজের ক্রিকেট বোর্ডকেও জানানোর প্রয়োজন মনে করেননি শাকিব।

২৩ জানুয়ারি আবার অগ্রবাল মেসেজ করে শাকিবকে বলে, “ভাই, এই সিরিজে কিছু হবে কী?” শাকিব এটাও গোপন করে যান।

এপ্রিল ২০১৮

সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে আইপিএলের ম্যাচ চলাকালীন ২৩ তারিখ, আবার মেসেজ পান শাকিব। সেখানে ওই বুকি হায়দরাবাদের অভ্যন্তরীণ তথ্য জানতে চান শাকিবের কাছে। এবং যথারীতি শাকিব এই ব্যাপারটিও চেপে যান।

আইসিসি যদিও সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে বুকির কাছে কোনো তথ্যই দেননি শাকিব। তাদের কথায়, “শাকিব ওই বুকিকে কোনো তথ্য দেননি। এমনকি ওই বুকির থেকে কোনো উপহার বা টাকাও গ্রহণ করেননি। কিন্তু বুকির সঙ্গে কথাবার্তার ব্যাপারটি এক বারের জন্যও ঊর্ধ্বতন কাউকে বলেননি শাকিব।”

ফলে শাকিব দেশ বা ক্রিকেট-বিরোধী কোনো কাজ না করলেও অগ্রবালের সঙ্গে কথাবার্তার ব্যাপারটি গোপন করতে গিয়েই শাস্তির মুখে পড়লেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.