এই প্রথম পূর্ণ সদস্য কোনো আন্তর্জাতিক দলকে অনির্দিষ্টকালের জন্য সাসপেন্ড করল আইসিসি

0

ওয়েবডেস্ক: জিম্বাবোয়ে ক্রিকেটের কালো দিন। এক সময়ে যে দলে খেলে বিশ্বখ্যাত হয়েছেন অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার, হিথ স্ট্রিকরা, সেই দলকেই অনির্দিষ্টকালের জন্য সাসপেন্ড করে দিল ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থা আইসিসি। লন্ডনে আইসিসির বৈঠক চলাকালীন এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন সংস্থার চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহর।

এই প্রসঙ্গে মনোহর বলেন, “ক্রিকেটে কোনো ভাবেই রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ চলতে পারে না। জিম্বাবোয়ে ক্রিকেটে যা হচ্ছিল সেটা অনেক দিন ধরেই চলছিল। ফলে এই সিদ্ধান্ত আমরা নিতে বাধ্য হয়েছি।”

আইসিসির এই নিষেধাজ্ঞার ফলে ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত জিম্বাবোয়ের। কিছু দিনের মধ্যে আয়ারল্যান্ড সফরে যাওয়ার কথা ছিল তাদের মহিলা দলের। সেই সফর বাতিল হয়ে গিয়েছে। সামনের বছর টি২০ বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে আগামী মাসে মহিলাদের এবং অক্টোবরে পুরুষদের যোগ্যতা অর্জনকারী টুর্নামেন্ট হবে। সেই টুর্নামেন্ট দু’টিতে জিম্বাবোয়ের মহিলা এবং পুরুষ দল খেলতে পারবে কি না, সেটাই এখন বড়ো প্রশ্নের মুখে পড়ে গিয়েছে।

মনে করা হচ্ছে জিম্বাবোয়ের ক্রিকেট বোর্ডে মাত্রাতিরিক্ত সরকারি হস্তক্ষেপের কারণেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি। প্রত্যেক পূর্ণ সদস্যের বোর্ডকেই আর্থিক অনুদান দেয় আইসিসি। জিম্বাবোয়ের ক্ষেত্রে এই আর্থিক অনুদান, ক্রিকেট বোর্ডের থেকে সরকারের হাতে চলে যাচ্ছে। অর্থাৎ, আইসিসির টাকা নিজেদের জন্য কাজে লাগাচ্ছে জিম্বাবোয়ে সরকার। জিম্বাবোয়ের ওপরে নিষেধাজ্ঞার ফলে আইসিসির এই অনুদানও বন্ধ হয়ে গেল।

আরও পড়ুন সচিন তেন্ডুলকরকে বিশাল সম্মান দিল আইসিসি

আইসিসির এই সিদ্ধান্তের ফলে মাথায় হাত ক্রিকেটারদের। আরও সমস্যা হচ্ছে যে হেতু আইসিসি কোনো সময়সীমা বেঁধে দেয়নি। ফলে অনেকেই মনে করছেন, এই নিষেধাজ্ঞা সহজে ওঠার নয়। নিষেধাজ্ঞার খবর শোনার পরেই হতাশায় ডুবে গিয়েছেন দলের প্রতিশ্রুতিমান অলরাউন্ডার সিকান্দর রাজা বাট। তিনি বলেন, “জানি না আমরা এ বার কী করব। বুঝতে পারছি, অনেকেরই ক্রিকেট কেরিয়ার এখানে শেষ হয়ে গেল। আমরা কি তা হলে ক্রিকেটের সরঞ্জাম পুড়িয়ে ফেলে অন্য চাকরির জন্য আবেদন করব?”

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here