india vs west indies
ওয়েস্ট ইন্ডিজের একটা উইকেট নিয়ে ভারতীয় দলের উল্লাস। ছবি: বিসিসিআই

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০৪ (হোল্ডার ৩৫, স্যামুয়েলস ২৪, জাদেজা ৪-৩৪)

ভারত ১০৫-১ (রোহিত ৬৩ অপরাজিত, বিরাট ৩৩ অপরাজিত, পল ১-৩৩)  

তিরুঅনন্তপুরম: কেরলের জন্মদিনে কেরলের রাজধানীতে এই প্রথম একদিনের ম্যাচের আসর বসছে। তিরুঅনন্তপুরমের মানুষরা হয়তো ভেবেছিলেন শহরের ইতিহাসে প্রথম ম্যাচটি বেশ জমাটি হবে। নৈশালোকে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে ভারত আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে। কিন্তু কোথায় কী! বোলারদের সামনে অসহায় ভাবে আত্মসমর্পণ করে ফেলল তারা। রাতের অন্ধকার নামার আগেই ভারত ড্যাং ড্যাং করে ম্যাচ জিতে সিরিজ পকেটে পুরে ফেলল।

টসের সময়েই সব থেকে বড়ো ভুলটা করে বসেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। ঠিকঠাক পিচ বুঝতে না পেরে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেন। শুরু থেকে ডুবতে শুরু করে তারা।

পিচ এমনিতেও বোলারদের জন্য সহায়ক ছিল। আরও বেশি সহায়তা মেলে মেঘলা আবহাওয়ায়। বলের সুইং দেখে তো এক এক সময় মনে হচ্ছিল, বুঝি ইংল্যান্ডে খেলা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিকে কাজে লাগিয়েই প্রথম দু’ওভারের মধ্যেই দু’জনকে তুলে নেন জসপ্রীত বুমরাহ এবং ভুবনেশ্বর কুমার।

আরও পড়ুন জানেন কি সৌরভ, ধোনি এবং বিরাট কোহলির মধ্যে মিল কোথায়?

তৃতীয় উইকেটে স্যামুয়েলস এবং রভম্যান পাওয়েলের মধ্যে একটা জুটি তৈরি হলেও স্যামুয়েলস ফিরে যাওয়ার পরে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর কোনো প্রতিরোধই তৈরি করতে পারেনি। তবে এরপর আর পেসাররা নন, আসরে নামেন স্পিনাররা। স্পিনের মধ্যে অবশ্য রবীন্দ্র জাদেজাই নজর কাড়েন। শুরুটা পেসাররা করলেও তিনি এই ম্যাচের সেরা বোলার হিসেবে উদিত হন। স্যামুয়লস এবং হেটমায়ার-সহ চারটে উইকেট তুলে নেন তিনি।

১০৫ রান কোনো টার্গেটই নয়, ভারতের এই ব্যাটিং লাইনআপের কাছে। তবুও ভারতকে কিছুটা চিন্তায় রেখে দিল শিখর ধাওয়ানের ফর্ম হারানো। এশিয়া কাপে দুর্ধর্ষ ফর্মে ছিলেন তিনি। এই সিরিজে অদ্ভুত ভাবে ম্লান তিনি। সে ভাবে জ্বলে উঠতেও দেখা গেল না তাঁকে। ধাওয়ানের উইকেটটা ছাড়া অবশ্য সবকিছু ঠিকঠাকই গেল ভারতের জন্য।

প্রথম কয়েকটা বল দেখে নেওয়ার পর নিজের স্বমূর্তি ধারন করেন রোহিত। কিন্তু যেহেতু লক্ষ্যমাত্রা খুবই কম, তাই অর্ধশতরানেই সন্তুষ্ট থাকতে হল তাঁকে। তবে রোহিত এই সিরিজে যে ফর্ম দেখালেন, এই ফর্ম চলতে থাকলে বিশ্বকাপে ভারতের পক্ষে সেটা হবে খুবই স্বস্তির খবর।

সিরিজের এই ফল দেখলে অবশ্য বোঝা যাবে না, যে এই সিরিজটা ঠিক কতটা হাড্ডাহাড্ডি হয়েছে। সিরিজের প্রথম তিনটে ম্যাচের দাপট দেখিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ম্যাচে ক্যারিবিয়ানরাই খেল দেখিয়েছিল। কিন্তু কথায় আছে, যার শেষ ভালো তার সব ভালো। তাই সব শেষে ফলটাই গুরুত্বপূর্ণ।

আরও পড়ুন তিন ক্রিকেটারের বিনিময়ে ধাওয়ানকে দিল্লি পাঠাল সানরাইজার্স

বিশ্বকাপের আগে দেশের মাঠে একদিনের ম্যাচ খেলার পালা চুকল ভারতের। এ বার অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডে একদিনের সিরিজ খেলে বিলেতে পাড়ি দেওয়ার পালা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here