Connect with us

ক্রিকেট

মাঠে নয়, রোহিতের ব্যাটে ঘূর্ণিঝড়, উড়ে গেল বাংলাদেশ

Published

on

বাংলাদেশ ১৫৩-৬ ( নঈম ৩৬, সৌম্য ৩০, চাহল ২-২৮)

ভারত ১৫৪-২ (রোহিত ৮৫, ধাওয়ান ৩১, আমিনুল ২-২৯)

Loading videos...

রাজকোট: প্রথম ম্যাচে আকস্মিক হার যে রোহিত শর্মারা হজম করতে পারেননি, সেটা বোঝা গেল দ্বিতীয় ম্যাচে এসে। বাংলাদেশের বোলারদের চরম শাসন করে ম্যাচ জিতে নিল ভারত। সিরিজে ফিরল সমতা।

ঘূর্ণিঝড় ‘মহা’-এর হুংকার ছিল। চিন্তা ছিল, কোনো ভাবে ম্যাচ যদি পরিত্যক্ত হয়, তা হলে সিরিজ জেতার সম্ভাবনা হারাবে ভারত। কিন্তু ম্যাচ যখন শুরু হল, তখন রাজকোটের আকাশ একদম পরিষ্কার। বুধবারের প্রবল বৃষ্টিরও কোনো চিহ্ন নেই।

আরও পড়ুন: ধোনির উত্তরসূরি ভাবা হত এক সময়, গড়াপেটার অভিযোগে গ্রেফতার সেই ক্রিকেটার

এই পরিস্থিতিতে টসে জিতে বোলিং ছাড়া অন্য কিছু ভাবার অবকাশ ছিল না রোহিতের কাছে। কারণ প্রথম ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ডুবেছে ভারত। আর দ্বিতীয়ত, টি২০তে রান তাড়াতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্য মনে করেন অধিনায়করা।

যা-ই হোক, বাংলাদেশ ব্যাটিং শুরু করল। এবং শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক লিটন দাস এবং মহম্মদ নঈম। দু’জনের আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের সামনে মনে হচ্ছিল ভারতীয় বোলাররা খেই হারিয়ে ফেলেছেন। সপ্তম ওভারেই বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে উঠে গেল ৬০, বিনা উইকেটে।

এই পরিস্থিতিতেই প্রত্যাবর্তন করে ভারত। ব্রেক লাগিয়ে দেয় বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে। সৌম্য সরকার এবং মহমুদুল্লাহরা রানের গতি বাড়ানোর চেষ্টা করলেও খুব একটা সফল হননি। তবে ভারতকে চিন্তায় রাখবে খলিল আহমেদের পারফরম্যান্স। কারণ প্রথম টি২০-এর পর দ্বিতীয় ম্যাচেও খারাপ বোলিং করলেন তিনি।

১৫৪ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই সুপার আগ্রাসী ঢঙে চলে যান রোহিত শর্মা। রোহিত সব সময়েই কিছুটা ধীরে শুরু করে পরের দিকে ইনিংসের গতি বাড়ান। কিন্তু এ দিন শুরু থেকেই বাংলাদেশের বোলারদের মাথায় চেপে বসেন তিনি।

উলটো দিকে ছিলেন শিখর ধাওয়ান, যাঁকে টি২০ দল থেকে বাদ দেওয়ার একটা দাবি উঠছে কারণ এই ফরম্যাটে বিশেষ রান পাচ্ছেন না তিনি। এ দিন তাই তাঁর কাছে একটা পরীক্ষা ছিল। রোহিতকে সঙ্গ দিয়ে নিজের ইনিংসের দিকেও নজর দিলেন শিখর। তবে বেশি তাড়াহুড়ো না করলে একটা অর্ধশতরান তাঁর পাকা ছিল।

তবে এ দিন যাবতীয় নজর ছিল রোহিতের দিকে। যে ফর্মের ঝলক দেখিয়েছেন, সেটা আগে খুব একটা দেখা যায়নি। হয়তো রবিবার এই দলের বিরুদ্ধে হেরে যাওয়াটা মনে থেকে মেনে নিতে পারেননি, তাই এ দিন পুরো ব্যাপারটা সুদেআসলে পুষিয়ে দিলেন।

যদিও রোহিতের ইনিংস যে ভাবে শেষ হল, সেটা তিনি বিশ্বাস হয়তো করতে পারবেন না। শতরানটা মাঠে রেখে দিয়ে এলেন তিনি।

শেষে চার ওভার হাতে রেখেই ভারতকে জয়ের গণ্ডি পার করিয়ে দেন কেএল রাহুল এবং শ্রেয়স আয়্যার।

ক্রিকেট

IPL 2021: সাড়ে ৭টায় খেলা শুরু হওয়া নিয়ে তীব্র অসন্তুষ্ট মহেন্দ্র সিংহ ধোনি

চেন্নাই সুপারকিংস অধিনায়কের মতে এই সময়ের পরিবর্তনই ম্যাচের নির্ধারক হয়ে উঠছে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত বছর থেকে আইপিএলে খেলা শুরুর সময়টা কিছুটা পালটে গিয়েছে। রাত ৮টার বদলে শুরু হচ্ছে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। রাত ৮টায় শুরু হলে অধিকাংশ ম্যাচই মাঝরাত পর্যন্ত গড়িয়ে যাওয়াযর কারণে এই অদলবদল করা হয়েছে।

তবে এই সিদ্ধান্তে যথেষ্ট ক্ষুব্ধ মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। চেন্নাই সুপারকিংস অধিনায়কের মতে এই সময়ের পরিবর্তনই ম্যাচের নির্ধারক হয়ে উঠছে।

Loading videos...

দিল্লি ক্যাপিটালসের কাছে ৭ উইকেটে হারের পরেই ধোনি যুক্তি দিয়ে জানালেন, “৮টায় খেলা শুরু হলে শিশির ততক্ষণে মাঠে পড়ে যেত। তাই দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামা দল কোনো বাড়তি সুবিধা পেত না। তবে ৭.৩০ টায় শুরু হওয়ায় যে কোনো এক দল ৩০-৪০ মিনিট একদম শুকনো পরিবেশে ব্যাট করার সুবিধা পায়। এটা তফাত গড়ে দিতে পারে।”

ধোনির কথায়, “এমনিতে শিশিরের কারণে প্রথমে ব্যাট করা দল সব সময় ১৫-২০ রান অতিরিক্ত তুলে রাখতে চায়। তবে এটা ৮টার সময় ম্যাচ শুরু করার সময়। ৭.৩০ ম্যাচ শুরু হলে প্রতিপক্ষ সব সময় আধঘন্টার সুবিধা পেয়ে যাবেই। দ্বিতীয় ইনিংসে বল যে ভাবে সুন্দরভাবে ব্যাটে আসবে, প্ৰথমে ব্যাটিংয়ে সেটা মোটেও হবে না। তাই অতিরিক্ত ১৫-২০ রান করার সঙ্গেই বল হাতে শুরুতেই কয়েকটা উইকেট তুলে নিতে হবে প্রতিপক্ষের। তাহলেই ব্যাপারটা সমান-সমান হবে।” এমনই বলেন ধোনি।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

IPL 2021: নীতীশ-রাহুলের ব্যাটে ভর করে হায়দরাবাদকে হারাল কেকেআর

Continue Reading

ক্রিকেট

IPL 2021: নীতীশ-রাহুলের ব্যাটে ভর করে হায়দরাবাদকে হারাল কেকেআর

হায়দরাবাদের ওপরে দাপট বজায় রাখল কেকেআর

Published

on

কেকেআর: ১৮৭-৬ (নীতীশ ৮০, রাহুল ৫৩, রশিদ ২-২৪)

হায়দরাবাদ: ১৭৭-৫ (মনীশ ৬১ অপরাজিত, বেয়ারস্টো ৫৫, প্রসীদ ২-৩৫)

Loading videos...

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ফের একবার কলকাতা নাইটরাইডার্সের কাছে হেরে গেল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ওইন মর্গ্যানের দলের এই জয়ের পেছনে মুখ্য ভূমিকা রেখে গেলেন দুই ব্যাটসম্যান নীতীশ রানা এবং রাহুল ত্রিপাঠি।

গত মরশুমের আইপিএলে মাত্র এক বার ওপেনিং জুটি পঞ্চাশ পেরিয়েছিল। তবে সে বার ওপেনিং নিয়ে নানা রকম পরীক্ষানিরীক্ষা চালিয়েছিল কেকেআর টিম ম্যানেজমেন্ট। শুধুমাত্র শুভমন গিলের জায়গাই পাকা ছিল। তাঁর বিপরীতের ব্যাটসম্যানদের মাঝেমধ্যেই বদলে ফেলা হত। তবে এই মরশুমের প্রথম ম্যাচেই মনে হল পরিকল্পনা একদম ঠিকঠাক ভাবেই নিয়েছে কেকেআর। তাই গিলের সঙ্গী করা করা হল নীতীশ রানাকে। আর সেই সিদ্ধান্ত শুরুতেই লেগে গেল।

অস্ট্রেলিয়া সফরের সুবাদে টি নটরাজন এখন ঘরে ঘরে পরিচিত নাম। সেই নটরাজন এবং ভুবনেশ্বর কুমার-সন্দীপ শর্মা সম্বিলিত পেস আক্রমণের বিরুদ্ধে কেকেআরের হয়ে দুরন্ত শুরু করেন শুভমন এবং নীতীশ। অস্ট্রেলিয়ায় দুরন্ত পারফর্ম করলেও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে ফর্ম খুইয়েছিলেন শুভমন। এই ম্যাচের মধ্যে দিয়ে তিনি ফর্মে ফেরার চেষ্টা করলেন। অন্য দিকে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন নীতীশ।

কোনো উইকেট না হারিয়ে ষষ্ঠ ওভারেই পঞ্চাশ পেরিয়ে যায় কেকেআর। তবে এর ঠিক পরেই ড্রেসিং রুমে ফেরেন শুভমন। যদিও এতে বিচলিত হননি নীতীশ। বরং তিন নম্বরে নামা রাহুল ত্রিপাঠীকে সঙ্গে নিয়ে দলের স্কোরকে আরও এগিয়ে যেতে থাকেন তিনি। হায়দরাবাদের প্রধান তুরুপের তাস রশিদ খানকেও দুর্দান্ত ভাবে সামলে দেন রাহুল-নীতীশ। একটা সময় মনে হচ্ছিল অবলীলায় দু’শো পেরিয়ে যাবে কেকেআর। শতরানের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন নীতীশ।

ঝোড়ো ইনিংসের মধ্যে দিয়ে পঞ্চাশ পেরিয়ে যান রাহুল। কিন্তু এর পরেই তিনি আউট হয়ে যান। ১৬তম ওভারে নটরাজনের বলে রাহুল ফিরতেই ভেঙে পড়ে কেকেআরের ইনিংস। পরের ওভারেই রশিদের বলে শিকার হন আন্দ্রে রাসে। ১৮তম ওভারে পর পর দু’বলে নীতীশ এবং অধিনায়ক ওইন মর্গ্যানকে ফিরিয়ে কেকেআরকে মোক্ষম ধাক্কা দেন আফগানিস্তানের মহম্মদ নবী।

শেষের কয়েকটি ওভারে হায়দরাবাদের চাপা বোলিংয়ের জেরে কেকেআরের ইনিংসে অনেকটাই ধাক্কা খেয়ে যায়। তবে শেষ ওভারে প্রাক্তন অধিনায়ক দীনেশ কার্তিকের সংক্ষিপ্ত ঝোড়ো ইনিংসের জেরে ১৯০-এর কাছাকাছি পৌঁছে যায় কেকেআর।

ভারতীয় দলে জায়গা খোয়ানোর পর ঋদ্ধিমান সাহা কেমন খেলেন, সেই দিকে নজর ছিল সবার। গত আইপিএলে একদম শেষ মুহূর্তে মাত্র চারটে ম্যাচ খেললেও দুরন্ত খেলেছিলেন ঋদ্ধি। সে কারণে এ বার প্রথম ম্যাচ থেকেই দলে রয়েছেন তিনি। প্রথম ওভারের হরভজন সিংহের বলকে তুলে গ্যালারিতেও ফেলে দেন ঋদ্ধি। কিন্তু তার পরেই ব্রেক লেগে যায় তাঁর ইনিংসে। শাকিব আল হাসানের বলে বোল্ড হয়ে যান তিনি। ততক্ষণে ড্রেসিং রুমে ফিরে গিয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নারও।

এগারো রানের মাথায় দু’টো উইকেট খুইয়ে আচমকা বিপদে পড়ে যায় হায়দরাবাদ। সেই বিপদ থেকে দলকে রক্ষা করার দায়িত্ব এসে পড়ে মনীশ পাণ্ডে এবং জনি বেয়ারস্টোর ওপরে। ভারতের বিরুদ্ধে সীমিত ওভারের দু’টি সিরিজে দুরন্ত ফর্মে ছিলেন বেয়ারস্টো। সেই ফর্ম এই ম্যাচেও নিয়ে আসেন তিনি। ধীরে ধীরে রানের গতি বাড়তে শুরু করে।

সিভি বরুণকে খেলানোর জন্য এ দিন সুনীল নারিনকে নামায়নি কেকেআর। সম্ভবত সেই কারণে বাড়তি একটা সুবিধা পেয়ে গিয়েছিলেন বেয়ারস্টো এবং মনীশ পাণ্ডে। কেকেআর বোলারদের বিরুদ্ধে দাপট বাড়াতে থাকেন দু’জন। বরুণের বিরুদ্ধেও দুরন্ত গতিতে রান করতে শুরু করেন। ক্রমশ নিজেদের নাগালের মধ্যে আস্কিং রেটকে নিয়ে আসেন দু’জন। দুরন্ত একটি অর্ধশতরান পেরিয়ে যান বেয়ারস্টো।

তবে খুব বাজে সময়ে আউট হয়ে যান বেয়ারস্টো, ১৩তম ওভারের শেষ বলে। তাঁর উইকেট তোলেন প্যাট কামিন্স। ততক্ষণে সবে ১০০ পেরিয়েছে হায়দরাবাদ।

বেয়ারস্টো আউট হয়ে যাওয়ার পর লড়াইয়ে বেশ কিছুটা পিছিয়ে পড়তে থাকে হায়দরাবাদ। আস্কিং রেটি ক্রমশ চড়তে থাকে। বরুণ, হরভজন, প্রসীদ কৃষ্ণ, কামিন্সদের চাপা বোলিংয়ের জেরে প্রবল চাপে পড়তে শুরু করে দক্ষিণের এই দলটা। কিন্তু যতক্ষণ মনীশ ছিলেন, ততক্ষণ ভরসা ছিল হায়দরাবাদের।

কিন্তু মনীশ সঙ্গী পাননি। মহম্মদ নবী বোলিংয়ে বেশি দক্ষ হলেও ব্যাটিংয়ে এখনও উল্লেখযোগ্য কোনো ইনিংসে হায়দরাবাদের হয়ে খেলতে পারেননি। এ দিনও ব্যর্থ হলেন তিনি। নবীর পর বিজয় শঙ্কর নামেন। মারকুটে ব্যাটসম্যান হিসেবে বেশ নামডাক রয়েছে তাঁর। তিনিও ব্যর্থ হন। শেষ দুই ওভারে হায়দরাবাদের আস্কিং রেট উঠে যায় ১৯-এ। ম্যাচের ফলাফল কার্যত নিশ্চিতই ছিল।

তবে শেষ মুহূর্তে কাশ্মীরের তরুণ ক্রিকেটার আব্দুল সামাদ কিছুটা চেষ্টা করছিলেন জয়ের কাছাকাছি দলকে নিয়ে যাওয়ার জন্য। তাঁর সংক্ষিপ্ত মারকাটারি ব্যাটিং দেখে মনে হচ্ছিল নবীরও আগে তাঁকে নামালে অন্য রকম ফলাফল হয়ে পারত হায়দরাবাদের জন্য।

যাই হোক, আইপিএলে এমনিতেই হায়দরাবাদের ওপরে বরাবরই দাপট থাকে কেকেআরের। সেটা এই ম্যাচেও বজায় থাকল।

আরও পড়ুন:  IPL 2021: পৃথ্বী-ধাওয়ানের দাপটে খড়কুটোর মতো উড়ে গেল চেন্নাই

Continue Reading

ক্রিকেট

IPL 2021: পৃথ্বী-ধাওয়ানের দাপটে খড়কুটোর মতো উড়ে গেল চেন্নাই

চেন্নাইয়ের শনির দশা চলছেই।

Published

on

চেন্নাই ১৮৮-৭ (রায়না ৫৪, মঈন ৩৬, ওক্স ২-১৮)

দিল্লি ১৯০-৩ (ধাওয়ান ৮৫, পৃথ্বী ৭২, শার্দূল ২-৫৩)

Loading videos...

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দুশোর কাছাকাছি রান তুলেও পার পেল না চেন্নাই। পৃথ্বী শ এবং শিখর ধাওয়ানের ব্যাটিং দাপটের কাছে খড়কুটোর মতো উড়ে গেল মহেন্দ্র সিংহ ধোনির চেন্নাই। গত আইপিএলের হতশ্রী পারফরম্যান্সের পর চলতি আইপিএলও খুব খারাপ ভাবে শুরু করল তারা। এ দিকে গুরু ধোনির বিরুদ্ধে নেমে অধিনায়কত্বের অভিষেকটি দারুণ হল শিষ্য ঋষভ পন্থের।

তবে এ দিন প্রথম ইনিংসে চেন্নাইয়ের ব্যাটিং দেখে আদৌ মনে হয়নি যে তাদের বোলিং এ ভাবে অসহায় আত্মসমর্পণ করে ফেলবে। কারণ প্রত্যাবর্তনেই ব্যাট চলচিল সুরাশ রায়নার।

সুরেশ রায়না থাকা আর না-থাকার মধ্যে কতটা ফারাক তৈরি হতে পারে, চোখে আঙুল দিয়ে তা দেখিয়ে দিল এ দিনের চেন্নাইয়ের ইনিংস। গত বারের আইপিএলে চেন্নাইয়ের খারাপ অবস্থার অন্যতম কারণ ছিল রায়নার অনুপস্থিতি। সেই রায়না ফিরতেই পুরো ঘুরে গেল চেন্নাইয়ের ব্যাটিং।

আর রায়নার কারণেই প্রথম তিন ওভারের মধ্যে দুই ওপেনারকে হারালেও বিশেষ চাপে পড়তে হয়নি চেন্নাইয়ে। চেন্নাইয়ের ব্যাটিং শুরু হতেই এ দিন ড্রেসিং রুমের পথ দেখেন দুই ওপেনার ফাফ দু’প্লসি এবং ঋতুরাজ গায়েকওয়াড়। কিন্তু মঈন আলিকে সঙ্গে নিয়ে চতুর্থ উইকেটে দুরন্ত জুটি তৈরি করে চেন্নাইয়ের হাল ধরেন রায়না।

আইপিএলের নিলামে মঈনকে চেন্নাই যখন তুলেছিল, তখন বলা হচ্ছিল চেন্নাইয়ের ঘূর্ণি পিচে তাঁর স্পিন খুব কাজে দেবে। কিন্তু এ বারের আইপিএলে ঘরের মাঠে খেলার সুযোগই হল না তাঁর। সেই মঈন কিন্তু ব্যাট হাতে বেশ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে গেলেন। ৩৪ রান করে দেড়শোর স্ট্রাইক রেটে। মারলেন দুটো ছয়।

তবে এ দিন সব নজর একাই কেড়ে নিলেন রায়না। প্রায় দু’বছর পর আইপিএলের কামব্যাক ইনিংসে জ্বলে উঠল তাঁর ব্যাট। তাঁর ইনিংসে সাজানো ছিল চারটে ছক্কাই। দিল্লির বোলারদের কার্যত নাকানিচোবানি খাইয়ে দেন তিনি। এ ভাবেই একটি গুরুত্বপূর্ণ অর্ধশতরান করে ফেলেন তিনি।

তবে দুর্ভাগ্যের রান আউট হয়ে যান রায়না। কোনো রান না করে ভক্তদের হতাশ করে বোল্ড হয়ে ফিরে যান ধোনি। তবে তার পর দলের রানকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব নেন স্যাম কারান এবং রবীন্দ্র জাদেজা। দু’জনের মধ্যে সপ্তম উইকেটে ৫১ রানের জুটি তৈরি হয়। এতেই দুশোর কাছাকাছি চলে যায় চেন্নাই।

বড়ো রানই তুলেছিল চেন্নাই। কিন্তু সেটা দিল্লির দুই ওপেনার শিখর ধাওয়ান এবং পৃথ্বী শ এত ছোটো করে দেবেন সেটা কার্যত কল্পনা করা যায়নি। মনে পরে গত বছরের শেষ দিকের কথা? অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম টেস্টের দুই ইনিংসে চূড়ান্ত ব্যর্থ হয়ে কী পরিমাণ ট্রোল্‌ড হয়েছিলেন শ। এর পরেই স্বপ্নের ফর্মে ফিরে আসেন তিনি। কয়েক মাস আগে বিজয় হাজারে ট্রফিতে মুম্বইয়ের হয়ে দুর্দান্ত খেলেছিলেন তিনি। ভেঙে দিয়েছিলেন একের পর এক সব রেকর্ড।

সেই ফর্মটাই এ দিন ধরে রেখেছিলেন শ। চেন্নাইয়ের বোলিং আক্রমণ শুরু হতেই তিনিও আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন। স্যাম কারান এবং দীপক চাহরের ওপরে দাপিয়ে বেড়াতে শুরু করেন তিনি। কী অসাধারণ অবলীলায় চার এবং ছয়গুলো তিনি মারছিলেন, সেটা না দেখলে বিশ্বাসই করা যায় না। পিছিয়ে ছিলেন না ধাওয়ানও। এই দুই ক্রিকেটারের দাপটে প্রথম পাওয়ারপ্লে অর্থাৎ প্রথম ছয় ওভারের মধ্যে ৬৫ রান তুলে ফেলে দিল্লি।

এ দিকে শিখর ধাওয়ানের প্রমাণ করার তাগিদটা আরও বেশি ছিল। অক্টোবরে আসন্ন টি২০ বিশ্বকাপে ভারতের ওপেনিংয়ের স্থানটা পাকা করার ব্যাপারে তিনি বদ্ধপরিকর। সেই কারণেই পাখির চোখ করেছেন আইপিএলকে। তার প্রথম ম্যাচেই ব্যাট চলল ধাওয়ানের।

এ দিকে, ইনিংস যত এগিয়ে যাচ্ছিল ততই দাপট বাড়ছিল ধাওয়ান আর পৃথ্বীর। নিমেষের মধ্যে একশো রান পেরিয়ে গেলেন দু’জনে। রানরেট তখনও দশের ওপরে। প্রয়োজনীয় রানের ব্যাপারটি তখন অনেক সহজ হয়ে আসছে। তবে যেই মনে হচ্ছিল দশ উইকেটেই ম্যাচটা পকেটে পুড়বে দিল্লি, তখনই আঘাত হানলেন ডোয়েন ব্রাভো, পৃথ্বী শ’কে ফিরিয়ে।

তিন নম্বরে নামা পন্থকে নিয়ে দলকে জয়ের আরও কাছাকাছি নিয়ে যাচ্ছিলেন ধাওয়ান। গত বছর আইপিএলে তিনটে শতরান করেছিলেন তিনি। এ বার আইপিএলের শুরুতেই একটা ছক্কা হাঁকাতে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু লাভ হল না। জয়ের কাছাকাছি পৌঁছে যাওয়ার পরেই ধাওয়ানের পা কে উইকেটের সামনে পেয়ে যান শার্দূল ঠাকুর। আঙুল তুলনে বিন্দুমাত্র বিড়ম্বনায় পড়েননি আম্পায়ার।

তবে ধাওয়ান আউট হলেও নতুন করে কোনো বিপদে পড়েনি দিল্লি। খুব সহজেই দলকে জয়ে পৌঁছে দেন পন্থ এবং শিমরন হেটমেয়ার।

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
india in celebration
বইপত্তর13 mins ago

পুস্তক পর্যালোচনা: ভারতের বর্ণময় মেলা-পার্বণের পরিচয় করাবে ‘ইন্ডিয়া ইন সেলিব্রেশন’

দেশ28 mins ago

Corona Update: এক ধাক্কায় সক্রিয় রোগীর সংখ্যায় প্রায় ১ লক্ষের বৃদ্ধি, তবে দৈনিক মৃত্যুহার ০.৫৩ শতাংশ

ক্রিকেট55 mins ago

IPL 2021: সাড়ে ৭টায় খেলা শুরু হওয়া নিয়ে তীব্র অসন্তুষ্ট মহেন্দ্র সিংহ ধোনি

দেশ1 hour ago

Kumbh Mela 2021: করোনাবিধিকে শিকেয় তুলে এক লক্ষ মানুষের সমাগম, আজ কুম্ভের প্রথম শাহি স্নান হরিদ্বারে

দেশ2 hours ago

Coronavirus Second Wave: স্বস্তির খবর এল পঞ্জাব থেকে, নতুন সংক্রমণকে ছাড়াল সুস্থতা, কমল সক্রিয় রোগী

দেশ2 hours ago

Coronavirus Second Wave: মহারাষ্ট্র লকডাউনের পথে গেলেও সংক্রমণের দাপট কিছুটা থিতু হওয়ার ইঙ্গিত দিচ্ছে

ক্রিকেট11 hours ago

IPL 2021: নীতীশ-রাহুলের ব্যাটে ভর করে হায়দরাবাদকে হারাল কেকেআর

ভিডিও13 hours ago

Bengal Polls 2021: বিধাননগরে মুখোমুখি টক্কর সুজিত বসু-সব্যসাচী দত্তর, ময়দানে জোট প্রার্থী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

রাজ্য2 days ago

Bengal Polls Live: সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ভোট পড়ল ৭৫ শতাংশের বেশি

ক্রিকেট2 days ago

IPL 2021: বলে ভেলকি হর্শল পটেলের, ব্যাটে জ্বলে উঠলেন ডেভিলিয়ার্স, বেঙ্গালুরুর কষ্টার্জিত জয়

দেশ2 days ago

Corona Update: রেকর্ড তৈরি করে দেড় লক্ষের দিকে এগিয়ে গেল দৈনিক সংক্রমণ, তবুও কম মৃত্যুহারে কিছুটা স্বস্তি

বিদেশ2 days ago

Coronavirus Infection: কোনো বস্তু থেকে করোনায় সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা ১০ হাজারে মাত্র ১, জানাল মার্কিন সিডিসি

রাজ্য2 days ago

Bengal Polls 2021: কোচবিহারে ৩ দিনের জন্য রাজনীতিবিদদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করল নির্বাচন কমিশন

রাজ্য2 days ago

Bengal Polls 2021: বাহিনীর গুলিতে হত ৪, শীতলকুচি যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রবন্ধ3 days ago

Bengal Polls 2021: কোচবিহার জেলার ন’টি বিধানসভা কেন্দ্রে লড়াইয়ে কে কোথায়

রাজ্য2 days ago

বিজেপি ‘গোপন’ অডিয়ো টেপ নিয়ে হইচই করলেও প্রশান্ত কিশোর অনড় নিজের মন্তব্যেই

ভোটকাহন

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 weeks ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা3 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা3 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা3 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা3 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা3 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে