প্রত্যাশিত রান না করলেও সিরাজ-শামির দাপটে কিছুটা এগিয়ে ভারত

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: জেমস অ্যান্ডারসনের দাপটের কাছে নতিস্বীকার করল ভারতীয় ব্যাটিং। লর্ডস টেস্টের দ্বিতীয় দিন যত রান হবে আশা করা হয়েছিল, তার ধারেকাছেও পৌঁছোতে পারেনি ভারত। তবে দিনের শেষে মহম্মদ সিরাজের জোড়া এবং শামির একটি শিকারের কারণে কিছুটা হলেও এগিয়েই রয়েছে ভারত।

ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক স্যার অ্যান্ড্‌রু স্ট্রাউসের স্ত্রী রুথের স্মরণে বিশেষ দিন পালন হচ্ছে লর্ডসে। এক অসাধারণ মুহূর্তের মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছিল এ দিনের ম্যাচ। কিন্তু দিনের খেলাটা ভালো ভাবে শুরু করতে পারেনি ভারত।

দিনের দ্বিতীয় বলেই উইকেট হারায় ভারত। একটি হাফ ভলি বল ড্রাইভ করতে গেলে ডম সিবলের হাতে লোপ্পা ক্যাচ দিয়ে বসেন কেএল রাহুল। ঠিক পরের ওভারে আবার ধাক্কা। এ বার অজিঙ্ক রাহানেকে ফিরে ভারতকে চরম ধাক্কা দিলেন জেমস অ্যান্ডারসন। জো রুটের হাতে ক্যাচ দিয়ে ১ রানে আউট হন রাহানে। ২৮২ রানের মধ্যেই ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত। 

দিনের শুরুতেই দুই উইকেট হারালেও মারমুখী মেজাজেই হাজির হন ঋষভ পন্থ। রবীন্দ্র জাদেজাকে সঙ্গে নিয়ে ভারতের স্কোরকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন। এই ভাবেই ৩০০ রানের গণ্ডী পেরিয়ে যায় ভারত। সেট হয়ে গিয়েছিলেন ভালো, জাদেজার সঙ্গে তাঁর জুটিও এগিয়ে যাচ্ছিল ভালো ভাবেই। কিন্তু সেট হয়েও মার্ক উডের বাইরে যাওয়া বলে অহেতুক খোঁচা মেরে আউট হয়ে যান পন্থ।   

Shyamsundar

কিছুক্ষণের মধ্যে আরও একটা উইকেট। ৩৩১-৫ থেকে আচমকা ৩৩৬-৭ হয়ে যায় ভারত। বড়ো রান যে হবে না সেটা এখান থেকেই বোঝা যাচ্ছিল। কারণ টেল এন্ডারদের নিয়ে আর কতই বা রান করতে পারতেন জাদেজা। তাও ইশান্ত শর্মাকে নিয়ে কিছুটা লড়াই করার চেষ্টা করেন জাড্ডু। আর কোনো উইকেট না হারিয়েই সাড়ে তিনশো পেরিয়ে যায় ভারত।

ভারতের স্কোর যখন ৩৬২, আউট হয়ে যান ইশান্ত। বাকি দুটো উইকেটও পড়ে যায় আর দু’রানের মধ্যে। ৩৬৪ রানেই গুটিয়ে যায় ভারত। বুড়ো হাড়ে ভেল্কি দেখিয়ে ফের একবার পাঁচ উইকেট নেন অ্যান্ডারসন।

ইংল্যান্ডের জবাব

ভারতের রানের জবাবে খুব সন্তর্পণে শুরু করেছিলেন ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার ররি বার্ন্স এবং ডম সিবলি। চা বিরতি পর্যন্ত ১৪ ওভার খেলে ফেললেও স্কোরবোর্ডে মাত্রর ২৩ রান তুলেই সন্তুষ্ট ছিলেন দু’জন।

তবে বিরতির ঠিক পরেই সাফল্য পায় ভারত, মহম্মদ সিরাজের হাত ধরে। সিবলিকে আউট করে ভারতকে প্রথম উইকেটটি এনে দেন সিরাজ। ঠিক পরের বলেই হাসিব হামিদকে ফিরিয়ে দেন সিরাজ। ভারত তখন রীতিমত ফুটছে। কিন্তু এখান থেকেই বার্ন্সের সঙ্গে খেলা ধরে ফেলেন ইংরেজ অধিনায়ক জো রুট।

তৃতীয় উইকেটে ৫০ রান যোগ করে ফেললেন জো রুট ও রোরি বার্নস। দু’জনে মিলে জুটিতে লুটতে শুরু করেন। ধীরে ধীরে রান রেটও বাড়তে থাকে ইংল্যান্ডের। বিরাটবাহিনীকে কিছুটা অস্বস্তির মধ্যে ফেলে দিয়েই বার্ন্স এবং রুট বলে দলের স্কোরকে একশোর গণ্ডি পার করিয়ে দেন।

তবে দিনের খেলা শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ আগে ভারতের হয়ে মোক্ষম ধাক্কাটি দেন মহম্মদ শামি। ব্যক্তিগত ৪৯ রানে ব্যাট করতে থাকা বার্ন্সকে এলবিডব্লিউ করে ড্রেসিং রুমে পাঠিয়ে দেন তিনি।

আরও পড়তে পারেন

বৃহস্পতিবার লর্ডস লালে লাল, কেন জানেন?

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন