রাবাদাতঙ্ক কাটিয়ে ভারতকে স্বস্তিদায়ক জায়গায় পৌঁছে দিলেন ময়াঙ্ক-বিরাটরা

0

ভারত ২৭৩-৩ (ময়াঙ্ক ১০৮, বিরাট ৬৩ অপরাজিত, রাবাদা ৩-৪৮)

পুনে: ব্যর্থ রোহিত, ময়াঙ্কের আরও এক শতরান এবং বড়ো রানের পথে বিরাট। এইগুলিই হল দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনের শেষে শীর্ষ খবর।

পুনের পিচের মতো পিচ গোটা ভারতে সাউথ আফ্রিকা হয়তো আর কোথাও পাবে না। কিছুটা কাছাকাছি আসতে পারে ইডেন গার্ডেন্‌স। দিনের শুরু থেকেই পিচ ব্যাপক সাহায্য করছিল পেসারদের।

টেস্টের প্রথম দিন পেসারদের বল এ ভাবে নাড়াচাড়া করছে, ভারতে তা খুব একটা দেখা যায় না। সেই সুযোগেই এ দিন শুরুতে ধাক্কা দিল সাউথ আফ্রিকা। প্রথম টেস্টের নায়ক রোহিত শর্মা, দুই অঙ্কের রানে ঢুকেই উইকেটকিপারকে খোঁচা দিয়ে দিলেন।

অথচ রোহিতের খুব একটা দোষ ছিল না। বৃহস্পতিবার টসে জিতে ভারত ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিলেও সাউথ আফ্রিকারও খুব একটা দুঃখিত হওয়ার কারণ ছিল না। কারণ শুরু থেকে অন্তত ১৫ ওভার বল যথেষ্ট সুইং করেছে। এই সুযোগেই তো দশম ওভারে আউট হলেন রোহিত।

এই পরিস্থিতিতে আরও দু’একটা উইকেট তুলে নিতে পারলেই ম্যাচে জমিয়ে বসত সাউথ আফ্রিকা। কিন্তু তা হতে দিলেন না ময়াঙ্ক অগ্রবাল এবং চেতেশ্বর পুজারা। রাবাদা আর ফিলান্ডারের বোলিংয়ের সামনে শুরুতে নড়বড়ে ছিলেন পুজারাও। কিন্তু ধীরে ধীরে নিজেকে সামলে নিলেন তিনি।

ময়াঙ্ক অবশ্য আগের টেস্টের প্রথম ইনিংসের মতোই সাবলীল। অস্ট্রেলিয়া সফরে হঠাৎ করে জায়গা পেয়ে গিয়েই সুযোগের সদ্ব্যবহার করেছিলেন তিনি। তার পর তাঁকে আর দল থেকে সরানোর কোনো প্রশ্ন ছিল না। আর এই সিরিজে যেমন খেলছেন তাতে তো আগামী অনেকগুলি সিরিজের জন্য ভারতীয় দলে নিজের জায়গা পাকা করে ফেলেছেন তিনি।

পিচ ব্যাটিংয়ের পক্ষে খুব একটা সহযোগী ছিল বলা যায় না। কঠিনই ছিল। আর সেই কঠিন পিচে বড়ো জুটি তৈরি করে দু’প্লেসিদের পালটা চাপে ফেলে দিলেন ময়াঙ্ক আর পুজারা।

আরও পড়ুন বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপের শেষ চারে মেরি কম, নিশ্চিত করলেন রেকর্ড অষ্টম পদক

পুজারা অর্ধশতরান এবং ময়াঙ্ক শতরান করার পরেই প্যাভিলিয়নের পথ দেখেন আর তাঁদের ড্রেসিং রুমে পৌঁছে দেন রাবাদাই। দু’জনেই আউট হন স্লিপে ক্যাচ দিয়ে। ভারতের পিচে ৫০ ওভার পেরিয়ে যাওয়ার পর স্লিপে ক্যাচ হচ্ছে এরকম ছবি ঘুব একটা দেখা যায় না।

ময়াঙ্ক আর পুজারাকে রাতারাতি হারিয়ে আবার কিছুটা চাপে পড়ে যায় ভারত। সেই চাপ থেকে মুক্তি দেওয়ার জন্য ছিলেন স্বয়ং অধিনায়ক বিরাট কোহলি। স্লথ গতিতে খেলে চলা রাহানেকে সঙ্গে নিয়ে ভারতের স্কোরকে তিনশোর কাছাকাছি নিয়ে গিয়েছেন তিনি।

অর্ধশতরান করে ক্রিজে জমে গিয়েছেন তিনি। শুক্রবার বিরাটের আরও একটা ‘মাস্টারক্লাস’ কি দেখা যাবে?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here