ওয়েবডেস্ক: ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে না খেলার তৈরি ভারত। বিসিসিআই-এর ঘনিষ্ঠ সূত্র এনডিটিভিকে এই খবর দিয়েছে।

সূত্রের খবর, সরকারি তরফে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রশাসক কমিটিকে (সিওএ) পাকিস্তানের বিরুদ্ধে খেলতে নিষেধ করা হয়েছে। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে না খেলার সিদ্ধান্ত হলে সে দেশের ওপর চাপ সৃষ্টি করার ক্ষেত্রে একটা বড়ো পদক্ষেপ করা যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

ক্রিকেট বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে এড়িয়ে যাওয়ার অন্য পথের কথাও ভাবা হচ্ছে। ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলকে (আইসিসি) বলে টুর্নামেন্টের ফরম্যাট বদল করা যায় কিনা তারও চেষ্টা হচ্ছে। এমন ভাবে ফরম্যাট বদল করা যাতে অন্তত পক্ষে নক আউট স্তর পর্যন্ত পাকিস্তানের মুখোমুখি হতে না হয়। এর ফলে পাকিস্তানও অস্বস্তিতে পড়বে।

তবে ফরম্যাট বদল করলে আইসিসি বিপুল আর্থিক চাপে পড়বে। স্পনসররাও বেঁকে বসতে পারে। যা-ই হোক, আশা করা যায়, বিসিসিআই-এর সিওএ শীঘ্রই এ নিয়ে আইসিসি-র সঙ্গে কথা বলবে।

আরও পড়ুন গাওস্করের মতো সচিনও চান পাকিস্তানকে খেলে হারাক ভারত

এ বার বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আসর বসতে চলছে ইংল্যান্ডে। পুলওয়ামা হামলার পরিপ্রেক্ষিতে ভারতের বিভিন্ন মহল থেকে পাকিস্তানের সঙ্গে ম্যাচ বয়কট করার আওয়াজ উঠেছে। তারই প্রেক্ষিতে শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত বিসিসিআই-এর প্রশাসক কমিটি এক বৈঠকে বসে। সেই বৈঠকে আলোচ্য বিষয় ছিল বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ।

ইতিমধ্যে হরভজন সিং, ভিভিএস লক্ষ্মণ, চৌহান, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়-সহ ভারতের বহু প্রাক্তন ও বর্তমান ক্রিকেটার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের ম্যাচ বয়কট করার ডাক দিয়েছেন।

ও দিকে অবশ্য গাওস্কর, তেন্ডুলকরের মতো ক্রিকেটাররাও আছেন, যাঁরা চান ক্রিকেটের মাঠেই পাকিস্তানকে হারিয়ে ভারত জবাব দিক।

ইতিমধ্যে সূত্রের খবর, পাকিস্তানকে যাতে বিশ্বকাপ থেকে নির্বাসিত করা হয় তার জন্য আইসিসি-এর কাছে চিঠি পাঠাতে বিসিসিআই-এর সিইও রাহুল জোহুরিকে বলেছে প্রশাসক কমিটি।

তবে ক্রিকেটমহলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অনেকেই মনে করেন, ভারতের এই প্রচেষ্টা বুমেরাং হয়ে আসতে পারে, কারণ বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তানকে নির্বাসিত করার বিষয়টি বাদবাকি দেশ সমর্থন করবে বলে মনে হয় না। এখন আইসিসি-র বোর্ডে ভারতের আর একাধিপত্য নেই। পাকিস্তানকে নির্বাসিত করার কথা ভারত বললে ভারতের হাত থেকে ২০২১-এর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ও ২০২৩-এর বিশ্বকাপ আয়োজনের ক্ষমতাও চলে যেতে পারে।

২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে আইসিসি-র যে বৈঠক শুরু হচ্ছে তাতে বিসিসিআই পাকিস্তানকে নির্বাসিত করার বিষয়টি তুলতে পারে বলে মনে হয়।

১৬ জুন ম্যাঞ্চেস্টারে ভারত-পাকিস্তান খেলা হওয়ার কথা।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here