ভারতকে হারিয়ে নিজস্বীতে মাতলেন ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা। ছবি: আইসিসি

অ্যান্টিগা: গাঁট গাঁটই থেকে গেল। মধুর প্রতিশোধ দূরে থাক, চূড়ান্ত একপেশে ম্যাচে খড়কুটোর মতো উড়ে গেল হরমনপ্রীত-মিতালিদের ভারত।

গত বছর জুলাইয়ে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল বিশ্বকাপের ফাইনালে, আর এ বার হল সেমিফাইনালে। গ্রুপ লিগে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার মতো বাঘা বাঘা দলকে হারিয়ে ইংল্যান্ডের কাছে আটকে গেল তারা।

শুক্রবার ভোর, অর্থাৎ স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ভরসন্ধ্যায় টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। টসের সিদ্ধান্তটাই ভারতের কাছে বিপদ ডেকে আনল, এমন অবশ্য বলা যায় না, কারণ ১৪ ওভার পর্যন্ত ইনিংস পুরোপুরি ভারতের দখলে ছিল।

যথারীতি নিজের চিরাচরিত ঢঙে শুরু করেছিলেন স্মৃতি মনধনা। তাঁর ব্যাট থেকে ২৩ বলে ৩৪ বেরোনোর পরে ভারতের ইনিংসকে টেনে নিয়ে যাচ্ছিলেন জেমিমা রডরিগেজ এবং হরমনপ্রীত। ১৪ তম ওভারে রডরিগেজ আউট হওয়ার আগে পর্যন্ত ভারতের স্কোর ছিল দুই উইকেটে ৮৯। তার পরেই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ল ভারত। মিডল এবং লোয়ার অর্ডারের তরফ থেকে কোনো উল্লেখযোগ্য অবদান লক্ষ করা যায়নি। ১১২ রানেই গুটিয়ে যায় ভারত।

ইংল্যান্ডের মতো দলের কাছে, ১১২টা কোনো রানই নয়। তা-ও পাঁচ ওভারের মধ্যেই দু’টো উইকেট ফেলে দিয়ে একটা আশা জাগিয়েছিল ভারত। কিন্তু তৃতীয় উইকেটে স্কিভার এবং জোনসের মধ্যে দুর্দান্ত জুটি ভারতকে ছিটকে দেয় ম্যাচ থেকে। আট উইকেটে ম্যাচ জিতে ফাইনালে উঠে গেল ইংল্যান্ড।

তবে স্বপ্নভঙ্গ হলেও, এই টি২০ বিশ্বকাপে ভারতের পারফরম্যান্স জানিয়ে দিয়েছে, ভারতের মহিলা ক্রিকেট একেবারে ঠিক দিকে এগোচ্ছে।

ছিটকে গেল প্রাক্তন বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা

স্বপ্নভঙ্গ হল ওয়েস্ট ইন্ডিজের। বা বলা যায় মধুর প্রতিশোধ নিল অস্ট্রেলিয়া। আড়াই বছর আগে ইডেনে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়েই টি২০ বিশ্বকাপের ট্রফি তুলেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাই এ বার নিজেদের মাঠে তাদের দলকে নিয়ে অনেক আশা ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ সমর্থকদের। কিন্তু সেটা হল না। প্রথমে ব্যাট করে পাঁচ উইকেটে ১৪২ করে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে মাত্র ৭১-এ শেষ হয়ে যায় ক্যারিবিয়ানরা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here