নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে শেষ চারের দরজা খুললেন ভারতের মেয়েরা

0

মেলবোর্ন: ফের ১৩০ রানে আটকে গিয়েও দুর্ধর্ষ ম্যাচ জিতল ভারতীয় মহিলা দল। এই ম্যাচেও প্রভাব ফেললেন ভারতের স্পিনাররা। এই জয়ের সুবাদে টি-২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে চলে গেল ভারত।

এখনও পর্যন্ত এই টুর্নামেন্টে মনের মতো ব্যাটিং করতে পারছেন না ভারতের মেয়েরা। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তো বটেই, বাংলাদেশের বিরুদ্ধেও ১৪০-এর ঘরে আটকে গিয়েছিলেন হরমনপ্রীত কৌররা। বৃহস্পতিবারও সেই ধরনের ব্যাটিংয়েরই পুনরাবৃত্তি হল।

আগের দু’টি ম্যাচের মতো এ দিনও শুরুতেই ব্যাটে ঝড় তোলেন ভারতীয় মহিলা দলের ‘বীরেন্দ্র সহবাগ’ হিসেবে পরিচিতি পাওয়া শেফালি বর্মা। যদিও ব্যর্থ হন স্মৃতি মন্ধনা। চোট সারিয়ে ফিরে ১১ রানের বেশি করতে পারেননি তিনি। তিন নম্বর ব্যাটার তানিয়া ভাটিয়াকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংসকে থিতু করেন শেফালি।

কিন্তু তানিয়া আউট হওয়ার পরেই লাইনচ্যুত হয়ে যায় ভারতীয় ব্যাটিং। এ দিনও রান পাননি অধিনায়ক হরমনপ্রীত কৌর। খুব মোক্ষম একটা সময়ে এসে ফর্ম হারিয়েছেন হরমন। তিনি রান পেলে ভারত এমনিতেই দেড়শো-১৬০ করে ফেলতে পারে।

শুধু হরমনপ্রীতই নন, এ দিন রান পাননি জেমিমা রডরিগেজ, দীপ্তি শর্মা এবং বেদা কৃষ্ণমূর্তি। শুধুমাত্র দুই লোয়ার অর্ডার ব্যাটার শিখা পাণ্ডে আর রাধা যাদবের ঝোড়ো ব্যাটিংয়ের সৌজন্যে ৮ উইকেটে ১৩৩ করে ভারত।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভারতীয় স্পিনারদের বিরুদ্ধে হাত খুলতেই পারেননি নিউজিল্যান্ড। বিপক্ষের ব্যাটিংয়ের টুঁটি চেপে ধরে ভারত। তবে একটা সময়ে মনে হচ্ছিল ভারত অনায়াসে ম্যাচ জিতে যাবে। কিন্তু শেষ মুহূর্তে নিউজিল্যান্ডের এমেলিয়া কারের ঝোড়ো ব্যাটিং হরমনদের ওপরে কিছুটা চাপ তৈরি করে দেয়।

পুনম যাদব এ দিন চার ওভার হাত ধুরিয়ে ৩২ রান দেন। এর মধ্যে ১৮ রানই আসে ম্যাচের উনিশতম, অর্থাৎ পুনমের শেষ ওভারে।

আরও পড়ুন পুরভোটের আগেই অশোক ভট্টাচার্যের আমন্ত্রণে শিলিগুড়িতে ‘প্রচার’-এ যেতে পারেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

সেই ওভারের দৌলতে শেষ ওভারে নিউজিল্যান্ডকে জয়ের জন্য দরকার ছিল ১৬। ভারতীয় দলের একমাত্র পেসার শিখা পাণ্ডে, সেই রান বাঁচিয়ে জয়ে এনে দেন দেশকে। ঝোড়ো ব্যাটিংয়ের জন্য এ দিনও ম্যাচের সেরার পুরস্কার পান শেফালি বর্মা।

এই জয়ের ফলে ভারত শেষ চারে উঠে গেল। তবে লিগে আরও একটি ম্যাচ বাকি ভারতের, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.