india vs england fourth test
দিনের শুরুতে বিরাটদের এই উল্লাস, দিনের শেষে অনেকটাই ফিকে। ছবি: টুইটার (আইসিসি)

ইংল্যান্ড: ২৪৬ এবং ২৬০-৮ (বাটলার ৬৯, রুট ৪৮, শামি ৩-৫৩)

ভারত: ২৬৩

সাউদাম্পটন: ভারতের বোলাররা এই সিরিজে নিঃসন্দেহে দাপট দেখিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু সেই সঙ্গে মোক্ষম সময়ে রাশ আলগা করে দেওয়ার একটা ব্যাপারও চোখে পড়েছে। এর ফলেই হাত থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল প্রথম টেস্ট। এর ফলেই আবার হাত থেকে বেরিয়ে যেতে পারে চতুর্থ টেস্টটাও।

অথচ মধ্যাহ্নভোজনের এক ঘণ্টা পরে পর্যন্তও ম্যাচে ভারতের দাপট অব্যাহতই ছিল। একশো রানের লিডের আগেই পাঁচ উইকেট চলে গিয়েছে ইংল্যান্ডের। ভালো বোলিং করলে আর পঞ্চাশ রানের মধ্যেই গোটা ইংল্যান্ড দলকে শেষ করে দেওয়া সম্ভব। ঠিক এই পরিস্থিতিতেই রাশ আলগা করে দিলেন বোলাররা। যথারীতি লোয়ার অর্ডারে দুর্দান্ত জুটি তৈরি করে ফেললেন ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা।

আরও পড়ুন এশিয়া কাপে ভারতীয় দলে খলিল আহমেদ, কে তিনি?

অথচ দিনের শুরুতে মনে হয়েছিল পেসারদের দাপটে ক্রমশ ভেঙে পড়বে ইংল্যান্ড আর চতুর্থ টেস্টও জিতে নিয়ে সিরিজ জমিয়ে দেবে ভারত। দলের স্কোর ১০০ পৌঁছোনোর আগেই চার উইকেট চলে গিয়েছিল ইংল্যান্ডের। বিরাটবাহিনীকে স্বস্তি দিয়ে এ দিনও খারাপ ফর্ম থেকে বেরোতে পারেননি কুক। অন্য দিকে প্রথম সারির ব্যাটসম্যানরা সবাই প্যাভিলিয়নে।

যখন মনে হচ্ছিল অধিনায়ক রুট ফিরে যাওয়ায় ভারতের ভিত আরও মজবুত হবে, তখনই ঘুরে দাঁড়াল ইংল্যান্ড। প্রথমে স্টোক্স এবং পড়ে কুর‍্যানকে নিয়ে দুর্দান্ত জুটি তৈরি করলেন বাটলার। অর্ধশতরান করে বাটলার ফিরে গেলেও এখনও লড়ে যাচ্ছেন কুর‍্যান। দিনের শেষ বলে রশিদ আউট হলেও ইংল্যান্ড শিবির স্বস্তিতেই বলতে হয়। সব মিলিয়ে ইংল্যান্ডের লিড এখন পৌঁছে গিয়েছে ২৩৩ রানে।

আরও পড়ুন এশিয়া কাপের দলে নেই বিরাট কোহলি

এজবাস্টন দেখিয়েছে কী ভাবে দু’শোর কম রান তুলতে ব্যর্থ হয়েছে ভারত। এ বারও পরিস্থিতি অনেকটা সে রকমই হয়ে গিয়েছে। ব্যাটসম্যানরা ভালো কিছু না করতে পারলে এ বারও ইংল্যান্ড থেকে টেস্ট সিরিজ অধরাই থেকে যাবে ভারতের।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন