ভারত ৪৭৪ (ধাওয়ান ১০৭, বিজয় ১৫, আহমেদজাই ৩-৫১)

আফগানিস্তান ১০৯ (নবি ১৪, অশ্বিন ৪-২৭) এবং ১০৩ (শাহিদী ৩৬ অপরাজিত, জাদেজা ৪-১৭)

বেঙ্গালুরু: অপেক্ষা ছিল অনেক দিনের। শেষ হয়ে গেল মাত্র দু’দিনে। আফগানদের ঐতিহাসিক মঞ্চ মাটি হয়ে গেল ভারতের বোলারদের দাপটে। একাধিক রেকর্ড করে বিশাল ব্যবধানে টেস্ট জিতে গেল ভারত।

গত মাসেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট অভিষেক ঘটিয়েছিল আয়ারল্যান্ড। গোটা ম্যাচে লড়াই করেছিল তারা। একটা সময় তো এমনও মনে হচ্ছিল যে পাকিস্তানকে হয়তো হারিয়েও দিতে পারে তারা। সে রকমই কিছু দেখার আশা করেছিলেন আফগান সমর্থকরাও। পরাজয় যে হবে সেটা নিশ্চিত। কিন্তু তবুও যদি একটা লড়াই দেখা যায়। কিন্তু আদতে কিছুই হল না।

বোলিং-এ যে প্রতিশ্রুতি আফগান শিবির দেখিয়েছিল, ব্যাটিং-এ তার বিন্দুমাত্র কিছু ধরা পড়ল না। অষ্টম উইকেটে জাদেজা এবং হার্দিক পাণ্ড্যর মধ্যে দুরন্ত পার্টনারশিপটা তৈরি না হলে হয়তো চারশোর আগেই ভারতকে আটকে রেখে দিত আফগানিস্তান। জানুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে কেপটাউন টেস্টে দুর্দান্ত ব্যাটিং-এর পর আবার জ্বলে উঠলেন হার্দিক। তাঁর ৭১ রানের ইনিংসে ভর করেই পৌনে পাঁচশো পর্যন্ত গেল ভারত।

এ বার সব নজর ছিল মহম্মদ শেহজাদ, মহম্মদ নবিদের ওপরে। একদিনের এবং টি২০ ক্রিকেটে ব্যাটসম্যান হিসেবে ভালো নাম করেছেন তাঁরা। দরকার ছিল টেস্টে তাঁদের প্রভাব রেখে যাওয়া। কিন্তু কিছুই হয়নি। আফগান ব্যাটসম্যানদের অসায়হতার সুযোগ নিয়ে তাঁদের ওপরে বুল্ডোজার চালিয়ে দেন ভারতের বোলাররা। মাত্র ২৮ ওভার স্থায়ী হয় আফগানিস্তানের ইনিংস। কিন্তু তাদের রক্তে এখনও সীমিত ওভারের ক্রিকেট থাকায় এই ২৮ ওভারেই স্কোরবোর্ডে ১০৯ রান তুলে নেয় আফগানিস্তান।

ফোলো-অন করেও বিশেষ কোনো সুবিধা করতে পারেনি তারা। তবে ভবিষ্যতে যে তাদের বড়ো ক্রিকেটার হওয়ার সুযোগ রয়েছে সেটা বুঝিয়ে দিলেন অধিনায়ক অসগর স্ট্যানিকজাই এবং হসমতুল্লাহ শাহিদি।

টেস্টের ইতিহাসে সব থেকে বড়ো ব্যবধানে জিতল ভারত, তাও রেকর্ড সময়ে। ইনিংস এবং ২৬২ রানে জিততে মাত্র দু’দিন নিল ভারত। এই প্রথম দু’দিনে টেস্ট জিতল ভারতীয় দল। এই প্রথম এশিয়াতেও কোনো টেস্ট শেষ হল দু’দিনে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন