বিরাট ব্যাটে ভর করে টি২০ সিরিজে খাতা খুলল ভারত

0

সাউথ আফ্রিকা ১৪৯-৫ (ডে কক ৫২, বাভুমা ৪৯, চাহর ২-২২)

ভারত ১৫১-৩ (বিরাট ৭২ অপরাজিত, ধাওয়ান ৪০, সামসি ১-১৯)

মোহালি: প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় সিরিজ কার্যত দুই ম্যচের হয়ে দাঁড়িয়েছিল। তার প্রথম ম্যাচে সাউথ আফ্রিকাকে হারিয়ে টি২০ সিরিজের জয়যাত্রা শুরু করল বিরাটবাহিনী। আর দুর্ধর্ষ ইনিংস খেলে ম্যাচকে স্মরণীয় করে রাখলেন বিরাট কোহলি।

ভারতের মাটিতে ভারতের বিরুদ্ধে সাউথ আফ্রিকার টি২০ রেকর্ড যথেষ্ট ভালো। সেই কারণে মানসিক ভাবে কিছুটা এগিয়ে থেকেই যে এই ম্যাচে সাউথ আফ্রিকা নেমেছিল তা বলাই বাহুল্য। শুরুর দশ ওভারে তাদের ব্যাটিং যথেষ্ট আগ্রাসীও ছিল।

বিরাট কোহলি টসে জিতে সাউথ আফ্রিকাকে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর পর শুরুতেও ঝড় তোলেন ডি কক। তাঁর দাপটের সৌজন্যে চতুর্থ ওভারে সাউথ আফ্রিকার উইকেট যখন পড়ল, ততক্ষণে তাদের ৩০ রান উঠে গিয়েছে। প্রথম উইকেট পড়লেও অবশ্য লাইনচ্যুত হয়নি সাউথ আফ্রিকার ব্যাটিং। ডি কককে যোগ্য সংগত দিয়ে যান টেম্বা বাভুমা। দু’ জনের জুটির সামনে ভারতীয় বোলারদের ম্লান লাগছিল। প্রথম দশ ওভারের পর মনে হচ্ছিল নিজেদের স্কোরকে প্রায় ২০০-এর কাছাকাছি নিয়ে যেতে পারে প্রোটিয়ারা।

দশ ওভারের পর থেকেই অবশ্য ম্যাচের মোড় কিছুটা ঘুরল। চাপা বোলিং শুরু করলেন ভারতীয় বোলাররা। আউট হলেন ডি কক এবং বাভুমা। মারকুটে হিসেবে পরিচিত ডেভিড মিলারও ১৮ রান করতে ১৫ বল খরচা করে ফেললেন। সব মিলিয়ে ১৫০-এর কমে আটকে গেল সাউথ আফ্রিকা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ঝড় তোলেন রোহিত শর্মা এবং শিখর ধাওয়ান। তবে বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি রোহিত। রোহিত ফিরতেই ভারতকে জয়ে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব পড়ে বিরাট আর ধাওয়ানের ওপরে।

সাম্প্রতিক কালে টি২০তে বেশি রান পাচ্ছিলেন না ধাওয়ান। তাই তাঁকে বাদ দেওয়ারও একটা দাবি উঠেছিল বিভিন্ন মহলে। ফলে এই ম্যাচটি তাঁর কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায়। এ দিন রানের মুখ দেখেছেন তিনি। বড়ো রানের দিকে এগোচ্ছিলেনও। তবে ৪০ রানের মাথায় ছয় মারতে গিয়ে বাউন্ডারি লাইনে ধরা পড়ে যান তিনি।

গত কয়েক দিন ধরেই ঋষভ পন্থের শট নির্বাচন নিয়ে চাপা ক্ষোভ প্রকাশ পাচ্ছে ভারতীয় শিবিরে। এ দিনও কিন্তু নিজের প্রতিভার প্রতি সুবিচার করতে পারলেন না তিনি। চার নম্বর নেমে যেখানে ম্যাচ শেষ করা উচিত ছিল তাঁর, সেখানেই তিনি আবার ভুল শট খেলে ফিরে গেলেন মাত্র চার রান করে।

তবে এ দিন আবার নিজের চিরাচরিত ফর্মেই খেলে যান বিরাট। তাঁর সাবলীল এবং দুর্ধর্ষ ইনিংসের সৌজন্যে এক বারের জন্যও চাপে পড়েনি ভারত। দুর্দান্ত একটি অর্ধশতরানের মধ্যে দিয়ে ভারতের বৈতরণী পার করে দেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here