শামি-কুলদীপের দাপটে নিউজিল্যান্ড সিরিজে এগিয়ে গেল ভারত

দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে প্রথম চার ওভারের মধ্যেই নিউজিল্যান্ড ব্যাটিং-এর ঘাড় মটকে দেন শামি।

0

নিউজিল্যান্ড: ১৫৭ (উইলয়ামসন ৬৪, টেলর ২৪, কুলদীপ ৪-৩৯)

ভারত: ১৫৬-২ (ধাওয়ান ৭৫ অপরাজিত, বিরাট ৪৫, ব্রেসওয়েল ১-২৩)

Loading videos...

নেপিয়ার: শুরু করেছিলেন মহম্মদ শামি, শেষ করলেন কুলদীপ যাদব। পেস-স্পিনের এই জুটির সুবাদে নিউজিল্যান্ডকে হেলায় হারিয়ে সিরিজ শুরু করল ভারত।

ছবির মতো সুন্দর নেপিয়ারের ক্রিকেট স্টেডিয়াম। মাঠের এক্কেবারে কাছেই ধাক্কা মারে সাগরের নীল জল। রৌদ্রোজ্বল দিনে পুরো পরিবেশটা আরও সুন্দর হয়ে ওঠে। বুধবার এমনই একটা দিন ছিল। পরিষ্কার নীল আকাশ এবং ব্যাটিং সহায়ক পিচ। এই পরিস্থিতিতে টসে জিতে ব্যাটিং ছাড়া আর কী-ই বা ভাবতে পারেন কোনো অধিনায়ক। সেটাই করলেন কেন উইলিয়ামসন। কিন্তু তিনি জানতেন না মহম্মদ শামি নামক একজন তখনই নিজের অস্ত্রে শান দিতে শুরু করে দিয়েছেন।

এই মুহূর্তে বিশ্বের তৃতীয় সেরা দল নিউজিল্যান্ড। ইংল্যান্ড এবং ভারতের পরেই রয়েছে তারা। এর অবশ্য যথেষ্ট কারণও রয়েছে। গত কয়েক বছরে উইলিয়ামসনের নেতৃত্বে নিজেদের অন্যতম শক্তিশালী করেছে তারা। তাই এমনও মনে করা হচ্ছিল যে ভারতের কাছে অস্ট্রেলিয়ার থেকে বেশি চ্যালেঞ্জের হবে এই নিউজিল্যান্ড সিরিজ। কিন্তু প্রথম এক দিনের ম্যাচে যেটা হল, সেটা যদি বহাল থাকে তা হলে সিরিজ যে বিরাটবাহিনীর দখলেই যাবে তা বলাই বাহুল্য।

সাধারণত নিউজিল্যান্ডে দিন রাতের ম্যাচ যে সময়ে শুরু হয়, তার এক ঘণ্টা পর থেকে শুরু হচ্ছে এই সিরিজের ম্যাচগুলি। সেটা যে ভারতীয় দর্শকদের জন্য সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে ভারতীয় ক্রিকেটভক্তরা দুই ক্রিকেট বোর্ডকেই এই সিদ্ধান্তের জন্য ধন্যবাদ দিতে পারেন। কারণ সেটা না হলে শামির দুর্ধর্ষ প্রথম স্পেলটা মিস হয়ে যেত।

দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে প্রথম চার ওভারের মধ্যেই নিউজিল্যান্ড ব্যাটিং-এর ঘাড় মটকে দেন শামি। রস টেলরকে সঙ্গে নিয়ে উইলিয়ামসন দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করছিলেন বটে, কিন্তু যজুবেন্দ্র চহলের সৌজন্যে সেটা ব্যর্থ হয়। স্কোরবোর্ডে ৮০ ওঠার আগেই চার উইকেট হারিয়ে মোটামুটি বেলাইন হয়ে গিয়েছে কিউয়ি ব্যাটিং। কিন্তু তখনও ছবিতেই আসেননি কুলদীপ।

তিনি আসতেই অবশ্য নিউজিল্যান্ড কার্যত তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে। এক দিকে শামি যখন তিন উইকেট নেন, তখন কুলদীপের দখলে যায় চারটে উইকেট। বাকি তিনটে উইকেট নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করে নেন চহল এবং কুলদীপ যাদব।

১৫৮ রানের লক্ষ্যমাত্রা কখনোই ভারতকে বেশি চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলত না। তবে দেখার ছিল অস্ট্রেলিয়ায় রান না পাওয়া শিখর ধাওয়ান কিছু করতে পারেন কি না। ধাওয়ান রান পেয়েছেন। ভারতও খুব সহজেই ম্যাচটি জিতে গেল। কিন্তু এ দিন ভারতীয় ব্যাটিং নয়, যাবতীয় আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল অন্য একটি কারণ।

আরও পড়ুন দ্রুততম ভারতীয় হিসেবে এই কৃতিত্ব অর্জন করলেন শামি

কখনও শুনেছেন ভালো আবহাওয়ার জন্য ম্যাচ স্থগিত হয়ে গিয়েছে? এ দিন সেটাই হল। অতিরিক্ত সূর্যের আলোর জন্য আধ ঘণ্টা বন্ধ থাকল খেলা। আসলে চোখে আলো পড়ার ব্যাপারে আম্পায়ারদের কাছে অভিযোগ জানান ধাওয়ান। তার পরেই খেলা স্থগিত হয়ে যায়।

এর ফলে একটি ওভার কমে যায় ভারতের ইনিংসে এবং লক্ষ্যমাত্রা দু’রান কমে যায়। এক দিকে ধাওয়ান ফর্মে ফিরেছেন তো অন্য দিকে বড়ো রানের দিকেই পা বাড়িয়েছিলেন বিরাট কোহলি। কিন্তু মনঃসংযোগের ব্যাঘাত ঘটায় ৪৫-এই থেমে যায় তাঁর ইনিংস।

যা-ই হোক, পাঁচ ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেল ভারত। শনিবার সিরিজের দ্বিতীয় এক দিনের ম্যাচ।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন