ওয়েবডেস্ক: ২০০৫-এর সৌরভ-চ্যাপেল অধ্যায় ফিরে এসেছে মহিলা ক্রিকেটে। ক্রমশ জটিল হচ্ছে রমেশ পওয়ার এবং মিতালি রাজের মধ্যে ঝামেলা। এ বার পওয়ারের যাবতীয় অভিযোগ খণ্ডন করে আবেগঘন টুইট করলেন মিতালি।

মঙ্গলবার রমেশ পওয়ারের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ এনে বিসিসিআইকে চিঠি দিয়েছিলেন মহিলা ক্রিকেটের অন্যতম কিংবদন্তী মিতালি। বুধবার সেই অভিযোগ নস্যাৎ করে রমেশ বলেন, মিতালিই না কি খেলা ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার টুইট করে রমেশের সেই দাবি খণ্ডন করলেন মিতালি।

তাঁর জীবনের একটি কালো অধ্যায়, দাবি করে মিতালি বলেন, “কুড়ি বছর দেশের জার্সি গায়ে তোলার পরে এখন আমার দেশভক্তি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে। এত দিন ধরে যে পরিশ্রম আমি করে এসেছি, সব কিছু ফেলনা হয়ে গেল। এই ব্যাপারটা নিয়ে আমি খুব দুঃখিত। ঈশ্বর আমায় শক্তি দিন।”

উল্লেখ্য, বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে মিতালি রাজের না খেলা নিয়ে বিশাল জলঘোলা হয়েছে। ফর্মে থাকা একজন ক্রিকেটারকে কোন যুক্তিতে বসিয়ে রাখা হয়, সেই নিয়ে টিম ম্যানেজমেন্টের বিস্তর সমালোচনা হয়। এর পরে মুখ খোলেন মিতালিও। ডায়ানা এদুলজি এবং রমেশ পওয়ারের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক সব অভিযোগ এনে বিসিসিআইকে চিঠি দেন তিনি।

আরও পড়ুন ‘আমার ক্ষতি করতে উঠেপড়ে লেগেছে কিছু লোক,’ রমেশ পওয়ার, এদুলজির বিরুদ্ধে বোমা ফাটালেন মিতালি

তবে এই বিতর্কে মিতালিরই পাশে দাঁড়িয়েছেন সুনীল গাওস্কর। তিনি বলেন, “মিতালির জন্য আমার দুঃখ হচ্ছে। দেশকে কুড়ি বছর সেবা করার পরে, কী করে একজনকে এ ভাবে বসিয়ে দেওয়া যায়”।

তাঁর প্রশ্ন, “যে দু’টো ম্যাচ মিতালি খেলেছে, দু’টিতেই সে সেরার পুরস্কার পেয়েছে। একটা ম্যাচে চোটের জন্য ওকে খেলানো হয়নি। কিন্তু ফিট মিতালিকে কেন বাদ দেওয়া হল আমি তো বুঝতে পারছি না।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here