এমএসকে প্রসাদের মেয়াদ রবিবারেই শেষ হয়ে গেল, বুঝিয়ে দিলেন সৌরভ

0
msk prasad and sourav ganguly
এম এস কে প্রসাদ ও সৌরভ গাঙ্গুলি।

ওয়েবডেস্ক: নির্বাচক কমিটির যে সব সদস্যের কার্যকালের মেয়াদ পূর্ণ হয়ে গিয়েছে, তাঁদের মেয়াদ আর বাড়ানো হবে না। রবিবার ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা বিসিসিআইয়ের ৮৮তম বার্ষিক সাধারণ সভার পর সাংবাদিকদের এ কথা ঠারেঠোরে বুঝিয়ে দিলেন সংস্থার সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি।

সৌরভের কথার অর্থ, নির্বাচক কমিটির প্রধান এমএসকে প্রসাদের কার্যকালের মেয়াদ আর বাড়ছে না। বাড়ছে না আরও এক নির্বাচক গগন খোড়ারও কার্যকাল। অর্থাৎ এঁদের কার্যকাল রবিবারই শেষ হয়ে গেল।  

বোর্ডের পুরোনো গঠনতন্ত্র অনুযায়ী একটা নির্বাচক কমিটির মেয়াদ চার বছর। প্রসাদ ও খোড়ার কার্যকাল ইতিমধ্যেই শেষ হয় গিয়েছে। এঁরা ২০১৫ সালে কমিটিতে আসেন। কমিটির বাকি তিন সদস্য যতীন পরাঞ্জপে, শরনদীপ সিং এবং দেবাং গান্ধী ২০১৬ সালে নির্বাচক কমিটিতে আসেন।

সংশোধিত গঠনতন্ত্র অনুযায়ী অবশ্য নির্বাচক কমিটির মেয়াদ পাঁচ বছর।

আরও পড়ুন: সৌরভের মেয়াদ বৃদ্ধি: সিদ্ধান্ত নেবে সুপ্রিম কোর্ট

বার্ষিক সাধারণ সভার পর এমএসকে প্রসাদের পদে থাকা প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে সৌরভ বলেন, “মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়া মানে শেষ হয়ে যাওয়া। ওরা ভালো কাজ করেছে। আপনি আপনার কার্যকালের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেলে আর থাকতে পারেন না। সকলের মেয়াদ তো আর শেষ হচ্ছে না। অধিকাংশ সদস্যই থাকছেন। আমার মনে হয় না এতে কোনো সমস্যা হবে।”

গাঙ্গুলি বলেন, তাঁরা প্রতি বছর নির্বাচক নিয়োগ করতে পারেন না।

“আপনারা নিশ্চয়ই শুনেছেন, আইসিসি প্রতি বছর টুর্নামেন্ট করতে চায়। তার মানে এই নয় নির্বাচকরা আজীবন কাজ চালিয়ে যাবেন। একটা মেয়াদের ব্যাপার থাকবে এবং আমরা সেই মেয়াদ অনুযায়ী চলব”, বলেন সৌরভ।

সৌরভের বিবৃতি অনুযায়ী, নতুন নির্বাচকদের মেয়াদ পাঁচ বছর করে হবে। “মেয়াদ পাঁচ বছরের। তাঁরা পাঁচ বছর থাকতে পারবেন”, বলেন সৌরভ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.