dravid-bcci

ওয়েবডেস্ক: বিরাট কোহলির বদলে আফগানিস্তান টেস্টের জন্য ভারতীয় দলে জায়গা পেয়েছেন করুণ নায়ার। নির্বাচক কমিটির এই সিদ্ধান্ত অনেককেই অবাক করে দিয়েছে। ময়াঙ্ক অগরওয়ালের কথা না ভেবে কেন করুণকে দলে ফেরানো হল, এই নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন করছেন।

এ বার রঞ্জি মরশুমে ভূরিভূরি রান করেছেন ময়াঙ্ক। দু’হাজারের বেশি রান করা সত্ত্বেও ভারতীয় টেস্ট দলে তাঁর জায়গা না হওয়ার পেছনে রয়েছে, একটি শর্ত যেটা ময়াঙ্ক পূরণ করতে পারেননি। কী সেই শর্ত?

শর্তটি হল জাতীয় দলে জায়গা পেতে হলে আগে একজন ক্রিকেটারকে ভারতীয় ‘এ’ দলের হয়ে নিয়মিত ভালো খেলে যেতে হবে। এই মুহূর্তে ভারতের অনূর্ধ্ব ১৯ এবং ‘এ’ দলের দায়িত্বে রয়েছেন রাহুল দ্রাবিড়। এ রকম একটা সিদ্ধান্ত দ্রাবিড়ের মস্তিষ্কপ্রসূত বলে জানিয়েছে ওয়াকিবহাল মহল।

কিন্তু এই সিদ্ধান্তকে মেনে নিতে পারছেন না বিসিসিআইয়ের কর্মকর্তাদের একাংশ। বোর্ডের এক কর্তা বলেন, “এ রকমই যদি হয়, তা হলে জাতীয় নির্বাচকদের কোনো প্রয়োজন নেই। কারণ সে ক্ষেত্রে ঘরোয়া টুর্নামেন্টে ভালো খেললেও তো জাতীয় দলের ঢোকার কোনো সুযোগ থাকবে না কোনো ক্রিকেটারের। তা ছাড়া এ রকম সিদ্ধান্তে ক্রিকেটারদের কাছে ভুল বার্তা যেতে পারে এবং তারা শুধুমাত্র আইপিএল খেলেই সন্তুষ্ট থাকতে পারে।” একজন কর্তা মনে করেন ‘এ’ দলের সফর দিয়ে কারও যোগ্যতা বিচার করা যায় না, কারণ গোটা বছরে খুব কম ‘এ’ দলের সফর হয়।

এই সিদ্ধান্তের ফলে নির্বাচক কমিটির দায়িত্ব কমে যাবে বলে মনে করছে অনেকে। কমিটির এক প্রাক্তন সদস্যের মতে, জাতীয় দলে কে ঢুকবে কে ঢুকবে না এই সিদ্ধান্ত একমাত্র নির্বাচকদের হাতেই থাকা উচিত।

এই সিদ্ধান্তের সমর্থকও যেমন রয়েছে, তেমনই বিরোধিতাও হচ্ছে। এখন দেখার জাতীয় দলের প্রবেশ করার মাপকাঠি হিসেবে দ্রাবিড়ের লাইন জেতে নাকি দ্রাবিড়-বিরোধীদের।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here