Connect with us

আইপিএল

আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে বিরক্তি, ব্যাট ছুঁড়ে ক্রিজের বাইরে গিয়ে ব্যাট ধরলেন পোলার্ড, ভিডিও

pollard

ওয়েবডেস্ক: রবিবারই শেষ হয়েছে চলতি বছরের আইপিএল। চেন্নাই সুপার কিংসকে হারিয়ে ফের একবার আইপিএল খেতাব জিতেছে মুম্বই ইন্ডিয়ন্স। মোট চারবার। তবে এই আইপিএলে আম্পারিং বিতর্ক অনেকবারই লক্ষ করা গেছে। ফাইনালেও ফের লক্ষ করা গেল।

আরও পড়ুন: ডিককের উইকেট নিয়ে শার্দুলের সেলিব্রেশন, বিরক্তি প্রকাশ রোহিতের, ভিডিও

ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে মুম্বই। মুম্বইয়ের শেষ ওভারে ব্যাটে ছিলেন কায়রন পোলার্ড এবং বল করছিলেন ডোয়েন ব্রাভো। ব্রাভোর প্রথম বলটি অফ সাইডের বাইরে ছিল অর্থাৎ ট্রামলাইনের বাইরে। কিন্তু সরে ব্যাট করতে আসার ফলে তা ওয়াইড দেননি আম্পায়ার। কিন্তু দ্বিতীয় বলটিও ট্রামলাইনের বাইরে ছিল অর্থাৎ অফসাইডের বাইরে। এক্ষেত্রে অবশ্য উইকেটের মধ্যেই দাঁড়িয়েছিলেন পোলার্ড। তা সত্ত্বেও ওয়াইড দেননি আম্পায়ার। আর যার জেরে বিরক্তি প্রকাশ করে বাতাসে নিজের ব্যাটটি ছোঁড়েন পোলার্ড।

এবং ব্রাভোর পরের বলটি যখন করতে আসে তখন দেখা যায়, অফসাইডের বাইরে গিয়ে ব্যাট ধরে আছেন পোলার্ড। এমন সময় নষ্টের জেরে আম্পায়াররা পোলার্ডকে ডেকে তার সঙ্গে কথা বলেন। ম্যাচে মুম্বইয়ের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেন পোলার্ড। এদিনই ৩২-য়ে পা দিলেন এই ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটার।

আইপিএল

আইপিএল থেকে বিশ্বকাপ, ক্লান্তি কতটা চাপে ফেলবে ভারতীয় ক্রিকেটারদের?

ict

ওয়েবডেস্ক: চলতি মাসেই শেষ হয়েছে দ্বাদশ আইপিএল। আর এই মাসের ৩০ তারিখ থেকেই শুরু হয়ে যাচ্ছে বিশ্বকাপের আসর। ইংল্যান্ডে হতে চলেছে বিশ্বকাপ। টুর্নামেন্টে অন্যতম ফেভারিট দল ভারত। তবে এই বিশ্বকাপে কি ক্লান্তি বড়ো ফাক্টর হয়ে দাঁড়াতে পারে ভারতীয় দলের কাছে?

অতীতেও এমন ক্লান্তির সাক্ষী থেকেছিল ভারত। তবে সেই সময়য টি২০ ফরম্যাট ছিল না। ১৯৯২ ক্রিকেট বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে পাঁচটি টেস্ট এবং ত্রিদেশীয় এক দিনের সিরিজ খেলেছিল ভারত। তৎকালীন একজন ভারতীয় দলের ক্রিকেটার জানিয়েছিলেন, “আমাদের মধ্যে কয়েক জন কিছু দিনের জন্য ব্যাট ধরতে চাই না”।

আরও পড়ুন: এই তরুণ ফুটবলারকে দলে আনতে বদ্ধপরিকর ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড

অনেক বিশেষজ্ঞদের মতে এমনটা হতে পারে। কারণ লাগাতার দেড় মাস ধরে টি২০ খেলা দেশ জুড়ে। টি২০-র সঙ্গে ৫০ ওভারের ম্যাচের বিস্তর ফারাক। টি২০ লিগ বেশ রাত পর্যন্ত চলেছে। ফলে ক্রিকেটাররা রাতে খুব একটা ঘুমাতে পারেননি। ফলে দেখা গিয়েছে বিমানবন্দের কিছুক্ষণের জন্য ঘুমিয়ে পড়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনির মতো খেলোয়াড়ও।

এমন ধকলের জেরে টুর্নামেন্টে সেরাটা না দেওয়া অতীতে দেখা গিয়েছে। ২০০৯ আইপিএল হওয়ার পর টি২০ বিশ্বকাপ ছিল। ক্লান্তির জেরে সেই টুর্নামেন্টের সুপার এইট স্টেজ থেকেই ছিটকে যায় ভারত। তবে আইপিএল খেলে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে ভালো ফল করেছে ভারত এমন উদাহরণও আছে। যেমন ২০১৩ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে চ্যাম্পিয়ন এবং ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালেও উঠেছিল ভারত।

যদিও বিসিসিআই জানিয়েছিল, তারা আইপিএল ফ্রাঞ্চাইজিদের সঙ্গে কথা বলেছে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের ওয়ার্কলোড নিয়ে। কিন্তু তা সত্ত্বেও তেমন কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি। রেহাই পাননি পেস বোলাররাও।

বিশ্বকাপ নিয়ে ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক দিলীপ বেঙ্গসরকার জানান, “বিশ্বকাপ সম্পূর্ণ আলাদা ফরম্যাট। বোলারদের ১০ ওভার বল করতে হবে। টি২০ থেকে একদিনের ক্রিকেটে মাইন্ডসেট তৈরি করতে হবে”।

ভারতীয় দলের একজন সদস্য জানিয়েছেন, ক্লান্তি একটা বড়ো ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়াতে পারে। তাঁর মতে, “ আইপিএল এবং বিশ্বকাপের মধ্যে বড়ো ব্যবধান। ক্রিকেটার হিসাবে খেলার মধ্যে থাকলেই আপনি সাহায্য পান। আমাদের সব খেলোয়াড়ই অভিজ্ঞ এবং খেলার জন্য প্রস্তুত। যেহেতু সদ্য আইপিএল শেষ হয়েছে তাই ওদের ইয়ো-ইয়ো টেস্ট হয়নি।  প্লে-অফের আগে কিছু ক্রিকেটার বেশি সুযোগ পেয়েছেন। খেলোয়াড়দের স্ত্রী এবং বান্ধবীদের সঙ্গে থাকার অনুমতি আছে ২১ দিনের। ফলে সেই দিক দিয়ে ক্লান্তির কোনো ব্যাপার নেই”।

প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার এবং নির্বাচক কিরন মোরে জানান, “আমার মনে হয় না ভারতীয় ক্রিকেটাররা ক্লান্তির মুখোমুখি হবে। সে দিন চলে গিয়েছে। এখন এরা সবাই ফিট। আইপিএল, জাতীয় দল সব জায়গাতেই ফিজিও রয়েছে। আগে ক্যাম্প করা হতো ফিটনেসের জন্য। এখনকার দিনে সব খেলোয়াড়ই ফিট। আইপিএল দলগুলি পেশাগত দিক দিয়ে খেলোয়াড়দের তৈরি করে। দু’সপ্তাহ বিশ্রাম যথেষ্ট”।

ভারতের বর্ষীয়ান উইকেটকিপার পার্থিব পটেল জানান, “এটা খুব ভালো যে ভারত তাড়াতাড়ি ইংল্যান্ড যাচ্ছে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে। ১৫ দিন যথেষ্ট আইপিএলের রেশ কাটিয়ে ফের ক্রিকেট মাঠে ফেরার জন্য”।

এই প্রসঙ্গে ভারতীয় নির্বাচকমণ্ডলীর প্রধান এম এস কে প্রসাদ জানান, “আমরা খুশি দলের প্রায় সবাই ফিট। আইপিএলের চাপ কাটিয়ে, নিজের সেরাটা দিয়ে জাতীয় দলের জার্সি চাপাবে। আইপিএলের ভালো ফর্ম খুব গুরুত্বপূর্ণ”।

Continue Reading

আইপিএল

ডিককের উইকেট নিয়ে শার্দুলের সেলিব্রেশন, বিরক্তি প্রকাশ রোহিতের, ভিডিও

shardul

ওয়েবডেস্ক: রবিবার চেন্নাই সুপার কিংসকে হারিয়ে ফের একবার আইপিএল খেতাব জিতেছে মুম্বই ইন্ডিয়ন্স। এই নিয়ে মোট চারবার আইপিএল খেতাব জিতল রোহিত শর্মার দল। টসে জিতে এদিন প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় মুম্বই।

আরও পড়ুন: আসন্ন বিশ্বকাপে দুটি দলের স্পনসর হচ্ছে ভারতের দুই নামি বাণিজ্যিক সংস্থা

টি২০-তে যখনই দুই হেভিওয়েট দলগুলি মুখোমুখি তখন খেলার থেকে, খেলার বাইরেরও ঘটনা লক্ষ করা যায়। এই ম্যাচেও হল। মুম্বই ইনিংসয়ের পঞ্চম ওভারে চেন্নাই বোলার শার্দুল ঠাকুরের বোলিংয়ের ব্যাট করেছিলেন মুম্বইয়ের ডিকক। শার্দূলের বলে ছয় মারেন ডিকক। কিন্তু তার ঠিক পরের বলে ফের শট মারার চেষ্টা করেন ডিকক কিন্তু টাইমিং ঠিক ছিল না সেই পুল শটের। যা ক্যাচ উঠে গেলে ধরে নেন ধোনি।

এরপরই আসল ঘটনা। উইকেটে পেয়ে কিছুটা মজার ভঙ্গিতে ডিককের দিকে তাকিয়ে সেলিব্রেশন করছিলেন শার্দূল। আঙুল দেখিয়ে ডিকককে প্যাভিলিয়নে ফিরে যেতে বলে। যা দেখে বিরক্তি প্রকাশ করেন নন স্ট্রাইকারে থাকা রোহিত শর্মা। আম্পায়ারকে এই বিষয় জানালে, আম্পায়ার শার্দূলকে শান্ত থাকতে বলেন।

Continue Reading

আইপিএল

অদ্ভুত সেই ধারাকে বজায় রেখে আরও একবার আইপিএল সেরা টিম রোহিত

MI wins IPL final 2019

মুম্বই: ১৪৯-৮ (পোলার্ড ৪১ অপরাজিত, ডে কক ২৯, চাহর ৩-২৭)

চেন্নাই: ১৪৮-৭ (ওয়াটসন ৮০, দু’প্লেসি ২৬, বুমরাহ ২-১৪)

হায়দরাবাদ: আরও একটা ফাইনাল, আরও একটা রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ এবং আরও একবার জিতল মুম্বই। ২০১৩, ২০১৫, ২০১৭-এর পর এ বার। অদ্ভুত সেই ধারাকে বজায় রেখে আইপিএল ট্রফি ঘরে তুলল রোহিত শর্মার মুম্বই।

ফাইনালের রেকর্ড এবং এই টুর্নামেন্টের ইতিহাস, সব কিছুতেই ধোনির থেকে যজনখানেক এগিয়ে ছিলেন রোহিত শর্মা। সেই রোহিত শর্মা এবং কুইন্টন ডে কক মিলে যখন শুরুর ওভারগুলোতে মারমার কাটকাট শুরু করলেন তখন ধরেই নেওয়া হচ্ছিল, আরও একবার সহজেই চেন্নাইয়ের ওপরে দাপট দেখাবে মুম্বই। দুই পেসার দীপক চাহর এবং শার্দূল ঠাকুরকে একের পর এক ছক্কা মেরে চলেছে দুই ওপেনার। রান রেট উঠে গিয়েছে দশের ওপরে। এই অবস্থাতে মোক্ষম একটা চাল চালেন ধোনি। দুই পেসারের দিক অদলবদল করে দেন। আর তাতেই সাফল্য।

৫০ পেরোনোর আগেই দুই ওপেনারকে হারিয়ে হঠাৎ করে চাপে পড়ে মুম্বই। সেই চাপ থেকে কখনোই আর সে ভাবে বেরোতে পারেনি তারা। ষষ্ঠ থেকে ১৬তম ওভারের মধ্যে মুম্বইয়ের ওপরে ক্রমশ চাপ বাড়াতে থাকেন ধোনি। চাহর-শার্দূলের পরে আসরে নামেন হরভজন এবং ইমরান তাহির। এ দিন হরভজন খুব একটা প্রভাব সৃষ্টি করতে না পারলেও তাহির কিন্তু নিজের ফর্মেই ছিলেন। শুধু উইকেট তোলা নয়, সেই বিখ্যাত নাচেও কোনো অভাব দেখাচ্ছিলেন না তিনি।

এই অবস্থায় মুম্বইয়ের ওপরে চাপ কমানোর জন্য আসরে নামতে হয় হার্দিক এবং কায়রন পোলার্ডকে। হার্দিক গোটা দুয়েক ছয় মেরে যখন ক্রমশ ভয়ংকর হয়ে উঠছেন, তখনই তাঁর পা-কে উইকেটের সামনে পেয়ে যান চাহর। কিন্তু তখনও ক্রিজে ছিলেন পোলার্ড। তাঁকে আটকে রাখার প্রচুর চেষ্টা করছিলেন ধোনি। চাপ এতটাই বেড়ে যায় যে শেষ ওভারে ডোয়েন ব্রাভোর প্রথম তিনটে বলে কোনো রানও করতে পারেননি তিনি। এমনকি মেজাজ হারিয়ে অখেলাওয়াড়সুলভ আচরণের জন্য আম্পায়ার সতর্কও করেন তাঁকে। কিন্তু শেষমেশ এই পোলার্ডের জন্যই দেড়শোর দোরগোড়ায় গিয়ে থামে নীল জার্সিধারীরা।

দেড়শো রান তাড়া করা চেন্নাইয়ের পক্ষে চাপের কোনো ব্যাপার ছিল না। কিন্তু দু’টো জিনিস তাদের বিপক্ষে ছিল। এর মধ্যে একটা ঘটনা ঘটেছিল ছ’বছর আগে। ২০১৩ সালের আইপিএল ফাইনালে ইডেনে ১৪০-এর একটু বেশি রান তুলতে ব্যর্থ হয়েছিল চেন্নাই। আর দ্বিতীয় ব্যাপারটি হল হায়দরাবাদের এই পিচ, যেখানে এ বার দেড়শো রান তোলা কষ্টকর হয়ে যাচ্ছে। এই সব মাথায় রেখেই চেন্নাই ব্যাটিং এবং মুম্বই বোলিং শুরু করে।

আরও পড়ুন নিজের মেয়েদের বাইরে খেলা বারণ, সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল শহিদ আফ্রিদি

এর পর অনেকটা মুম্বইয়ের ইনিংসের মতোই এগোতে থাকল চেন্নাইয়ের ব্যাটিং। শুরুর দিকে যথারীতি ঝড় তুললেন দুই ওপেনার। তবে বেশি বিধ্বংসী ছিলেন ফাফ দু’প্লেসি। কিন্তু চতুর্থ ওভারে দু’প্লেসি আউট হতেই হঠাৎ করে ব্রেক লেগে গেল চেন্নাইয়ের ইনিংসে। এক দিকে ওয়াটসন ধরে রেখেছিলেন, কিন্তু অন্য দিকে ক্রমশ উইকেট পড়তে শুরু করল।

এই টুর্নামেন্টে চেন্নাইয়ের হয়ে সব থেকে বেশি রান করেছেন ধোনি। তাই ম্যাচ ক্রমশ শক্ত হয়ে এলেও ধোনিতে ভরসা ছিল চেন্নাইয়ের। কিন্তু মোক্ষম দিনে তিনি ব্যর্থ। চূড়ান্ত চাপ সহ্য করতে না পেরে রান আউট হয়ে যান তিনি। এর পর দায়িত্ব পুরোপুরি চলে আসে ওয়াটসন এবং ব্রাভোর ওপর।

এখানেই ওয়াটসনের থেকে গত বছরের আইপিএল ফাইনালের পারফরম্যান্সের পুনরাবৃত্তি চেয়েছিলেন চেন্নাই-ভক্তরা। সে দিন হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে অসাধারণ শতরান করে দলকে জিতিয়েছিলেন ওয়াটসন। এ দিন অর্ধশতরান করে ফেললেও সেই আগ্রাসন কিছুতেই দেখাতে পারছিলেন না তিনি। ফলে শেষ তিন ওভারে চেন্নাইয়ের দরকার হয়ে পড়ে ৩৮। এই অবস্থাতেই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন ওয়াটসন। ক্রুণাল পাণ্ড্যর ওভারে পর পর তিনটে ছয় মেরে চেন্নাইয়ের হিসেব অনেকটা সহজ করে দিলেন ওয়াটসন। শেষ দুই ওভারে চেন্নাইয়ের দরকার ছিল ১৮।

কিন্তু মুম্বইও অত সহজে হাল ছাড়ার পাত্র ছিল না। ১৯তম ওভারের দ্বিতীয় বলে ব্রাভোকে আউট করে ফের একবার ম্যাচ জমিয়ে দেন বুমরাহ। পুরো ওভারটা ভালোই বল করছিলেন বুমরাহ কিন্তু মোক্ষম সময়ে গুরুত্বপূর্ণ ক্যাচ ফেলে দেন উইকেট কিপার ডে কক। বল চলে যায় বাউন্ডারির বাইরে। এর ফলে শেষ ওভারে চেন্নাই এবং জয়ের মধ্যে তফাৎ কমে দাঁড়ায় মাত্র ন’রানে।

বল হাতে মালিঙ্গা। এবং ব্যাট হাতে তখনও অপরাজিত ওয়াটসন। পর পর ইয়র্কারে চাপ বাড়াতে শুরু করেন মালিঙ্গা। ওভারের চতুর্থ বলে চেন্নাই শিবিরে ধাক্কা দিয়ে রান আউট হয়ে যান ওয়াটসন। তখন চেন্নাইয়ের দরকার ২ বলে চার। পরের বলে সেই হিসেব গিয়ে দাঁড়ায় ১ বলে ২। ক্রিজে শার্দূল ঠাকুর। শেষ বলে শার্দূলকে এলবিডব্লিউ করে দেন মালিঙ্গা। চতুর্থ বারের জন্য চাম্পিয়ন হয়ে গেল মুম্বই।

Continue Reading
Advertisement
দেশ7 mins ago

৩২ হাজারেরও বেশি আক্রান্তের দিন ভারতে আরও এক নজির, সুস্থতা ছাড়াল ছ’লক্ষের গণ্ডি

দেশ11 mins ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৩২৬৯৫, সুস্থ ২০৭৮৩

দেশ44 mins ago

বুলডোজারে নষ্ট করা হচ্ছে ফসল, এই আঘাতে বিষ খেলেন দলিত দম্পতি

বিজ্ঞান8 hours ago

সূর্যাস্তের পর অন্তত ২০ মিনিট দেখুন উত্তর-পশ্চিম আকাশে ধূমকেতু ‘নিওওয়াইজ’, চলবে মাসভর

বাংলাদেশ10 hours ago

বাবা-মায়ের পাশে চিরনিদ্রায় প্লে-ব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোর

রাজ্য11 hours ago

প্রকাশিত হয়েছে মাধ্যমিকের ফলাফল, ভরতি কবে এবং কী ভাবে?

প্রযুক্তি13 hours ago

রিলায়েন্সের নতুন ‘জিও গ্লাস’, চশমাটি কী কাজে লাগবে?

রাজ্য14 hours ago

কলকাতার পাশাপাশি চিন্তা বাড়াচ্ছে উত্তরবঙ্গের দুই জেলার করোনা-পরিস্থিতি

কেনাকাটা

laptop laptop
কেনাকাটা15 hours ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

কেনাকাটা4 days ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

কেনাকাটা6 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা1 week ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

নজরে