Connect with us

ক্রিকেট

রানের বন্যা শেষে চেন্নাই-জয় রাজস্থান রয়্যালসের

Published

on

IPL rajasthan Royals

রাজস্থান ২১৬-৭ (সঞ্জু ৭৪, স্মিথ ৬৯, স্যাম কারান ৩-৩৯)

চেন্নাই ২০০-৬ (ধোনি ৭২, ওয়াটসন ৩৩, তেওয়াটিয়া ৩-৩৭)

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ১৩তম আইপিএলে প্রথম বার রানের বন্যা। আর সেই ম্যাচে চেন্নাই সুপারকিংসকে হারিয়ে কার্যত কিছুটা অঘটনই ঘটিয়ে ফেলল রাজস্থান রয়্যাল্‌স। এই জয়ের নেপথ্যে থাকলেন রাজস্থানের সঞ্জু স্যামসন। তবে চেন্নাই ইনিংসে ফাফ দু’প্লেসি যে ভাবে মরিয়া লড়াই করেছিলেন, সেটাও প্রশংসার যোগ্য।

২২ বছর আগে যে মাঠ সচিন তেন্ডুলকরের ‘মরুঝড়’-এর ইনিংস দেখেছিল, শারজার সেই ঐতিহাসিক মাঠেই এ দিন আছড়ে পড়ল সঞ্জু স্যামসনের ঝড়। ছেলেটার ভাগ্য সত্যি খারাপ বলতে হয়। প্রত্যেক বার আইপিএলে নজর কাড়েন তিনি। কিন্তু ভারতীয় দলে তাঁকে নিয়ে কারও বিশেষ উৎসাহ থাকে না। আবার ভারতীয় দলে সুযোগ পেলেও সেটা সদ্ব্যবহার করতেও পারেন না তিনি।

এ দিন অবশ্য শুরু থেকেই শারজা স্টেডিয়াম জুড়ে একটাই নাম। স্যামসন। ফাঁকা গ্যালারির বিভিন্ন প্রান্তে এ দিন বল পাঠিয়েছেন তিনি। ৭৪ রানের ইনিংস তিনি খেলেছেন মাত্র ৩২টা বলে। সব থেকে চমকপ্রদ ব্যাপার হল এই ইনিংসে ৯টা ছয় মেরেছেন তিনি। চার মেরেছেন মাত্র একটা।

ইনিংসটা দেখে এক এক সময়ে মনে হচ্ছিল, নির্বাচকদের উদ্দেশে তিনি কি কোনো বার্তা দিতে চাইছেন?

স্যামসন এসেছিলেন তিন নম্বরে ব্যাট করতে। ওপেনিং জুটিতেও বিশেষ বড়ো একটা চমক ছিল। নবাগত যশস্বী জয়সওয়ালের সঙ্গে এ দিন ওপেন করতে আসেন অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে তিনি এর আগে কখনও ওপেন করেছেন কি না, জানা নেই।

ওপেনিংয়ের এই অভিষেক বেশ সুখকরই হল স্মিথের জন্য। স্যামসনের দাপটের সামনে তিনি কিছুটা ম্রিয়মান থাকলেও ৬৯ রানের ঝকঝকে একটা ইনিংস খেলে যান।

রাজস্থানের ইনিংসের শেষ ওভারে আরও একজনের ব্যাট জ্বলে ওঠে। তিনি জোফরা আর্চার। শেষ ওভারের প্রথম চারটে বলকেই আর্চার মাঠের বাইরে না পাঠালে দুশোর আগেই থেমে যেত রাজস্থানের ইনিংস।

রাজস্থান যে রানটা তুলেছিল, এখনও পর্যন্ত আইপিএলে ওই রান তাড়া করে কেউ জিততে পারেনি। তাই এ দিন শুরু থেকেই চেন্নাইয়ের ওপরে বাড়তি চাপ ছিল। তবুও সেই চাপ সহ্য করে মোটামুটি ভালোই শুরু করেছিলেন দলের দুই ওপেনার মুরলি বিজয় এবং শেন ওয়াটসন।

কিন্তু দু’ জনের জুটি ৫৬ রান তুলে ভেঙে যাওয়ার পর ধীরে ধীরে চেন্নাইয়ের পুরো টপ অর্ডারটাই ভেঙে যায়। মাত্র ১৩ বলের মধ্যে আরও চারটে উইকেট হারিয়ে রীতিমতো ধুঁকতে শুরু করে হলুদ জার্সিধারীরা। তবে অবাক করা ব্যাপার হল, চার উইকেট পড়ার পরেই মহেন্দ্র সিংহ ধোনিকে ব্যাট হাতে দেখা যায়নি।

আরও অবাক করল পঞ্চম উইকেটে কেদার যাদব আর ফাফ দু’প্লেসির মন্থরতা। রানের গতি বাড়ানোর যে উদ্যম দেখানো উচিত ছিল, সেটা তাদের মধ্যে কখনই দেখা যায়নি। ১৪তম ওভারে যাদব আউট হতে আরও গর্তে ঘুকে যায় চেন্নাই।

পাঁচ উইকেট পড়ার পর ধোনি ক্রিজে আসেন। ধোনি যে ইদানীং ইনিংসে গতি পেতে অনেকটাই সময়ে নিয়ে নেন, সেটা এ দিনও দেখা গেল। তাঁর মধ্যে ছক্কা হাঁকানোর কোনো বাড়তি উদ্যম এ দিন দেখা যায়নি। অপর প্রান্তে থাকা দু’প্লেসিকে স্ট্রাইক দিয়ে দিচ্ছিলেন তিনি, আর যাবতীয় চেষ্টা দু’প্লেসিই করে যাচ্ছিলেন।

তবে ইনিংসের শেষ ওভারে মিনি ধোনি ধামাকা দেখা যায় এ দিন। স্টেডিয়ামের বাইরে বলকে বেশ কয়েক বার পাঠিয়ে ধোনি বুঝিয়ে দিলেন এই আইপিএলে তিনি জ্বলে উঠবেনই।

যদিও চেন্নাইয়ের আস্কিং রেট ক্রমশ বেড়ে যাচ্ছিল। সেই রেটের সঙ্গে পাল্লা দিতে দিতেই পরাজয় স্বীকার করে দেয় ধোনিবাহিনী।

ক্রিকেট

সূর্যের তেজে ঝলসে গেল বেঙ্গালুরু

Published

on

বেঙ্গালুরু: ১৬৪-৪ (পাড়িক্কাল ৭৪, ফিলিপে ৩৩, বুমরাহ ৩-১৪)

মুম্বই: ১৬৬-৫ (সূর্যকুমার ৭৯ অপরাজিত, কিষাণ ২৫, সিরাজ ২-২৪)

খবরঅনলাইন ডেস্ক: লড়াইটা ছিল টুর্নামেন্টের দুই সেরা দলের। লড়াই হলও হাড্ডাহাড্ডি। শেষে এক নম্বর স্থানে থাকা মুম্বই, দুই নম্বরের বেঙ্গালুরুকে হারিয়ে আইপিএলের শেষ চারে নিজেদের জায়গা কার্যত পাকা করে ফেলল। এই জয়ের নেপথ্যে থাকলেন সূর্যকুমার যাদব।

রোহিত শর্মার চোট নিয়ে রহস্য ছিল। কিন্তু সেই রহস্যে জল ঢালা হয়ে যায় ম্যাচের এক্কেবারে শুরুতেই যখন মুম্বইয়ের হয়ে টস করতে নামেন কায়রন পোলার্ড। অর্থাৎ বোঝা যায় যে রোহিত শর্মা এখনও সুস্থ হননি।

টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন পোলার্ড। দুর্দান্ত শুরু করে আরসিবি। দুই ওপেনার, দেবদত্ত পাড়িক্কাল এবং জস ফিলিপে খুব সাবলীল ভাবেই দলকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন। অ্যারন ফিঞ্চের বদলে ফিলিপেকে নামিয়েছিল বেঙ্গালুরু। রাহুল চহারের বলে স্ট্যাম্প হয়ে তিনি যখন ফিরলেন দল তখন বেশ শক্ত জমির ওপর দাঁড়িয়ে দল। ২৪ বলে তিনি করেন ৩৩ রান।

এই টুর্নামেন্টের অন্যতম সেরা আবিষ্কার দেবদত্ত পাড়িক্কাল এ দিন দুর্দান্ত ফর্মে দলকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন। তিনি অর্ধশতরান পূর্ণ করেন ৩০ বলে। এ বারের আইপিএলে তাঁর চতুর্থ ৫০।

তবে ওপেনিংয়ের সঙ্গী হারানোর পর থেকেই পাড়িক্কাল আর কোনো সঙ্গী পাননি। এক দিকে তিনি যখন দলকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন, অন্য দিক থেকে একের পর এক উইকেট হারাতে থাকে আরসিবি। দুই ওপেনার ছাড়া কেউ ২০-র গণ্ডিও টপকাতে পারেননি।

বুধবার ক্রিকেটপ্রেমীরা মুখিয়ে ছিলেন বিরাট কোহালি বনাম জশপ্রীত বুমরাহের লড়াই দেখতে। সেই লড়াইয়ে এক্কেবারে শুরুতেই জিতে যান বুমরাহ। তাঁর শর্ট পিচ বলে সৌরভ তিওয়ারির হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ভারত অধিনায়ক। এ দিন দুর্দান্ত বল করেন বুমরাহ। সেই সঙ্গে আইপিএলে নিজের একশোতম উইকেটও নিয়ে নেন তিনি।

এবি ডি’ভিলিয়ার্সও ফেরেন তাড়াতাড়ি। তিনি করেন মাত্র ১৫ রান। রান তোলার তাড়ায় উইকেট খোয়ালেন তিনি। এ দিনের মুম্বই অধিনায়ক কায়রন পোলার্ড নেন সেই গুরুত্বপূর্ণ উইকেট। শেষ দশ ওভারে বেলাইন হয়ে যাওয়া বেঙ্গালুরুকে আর খুব একটা সঠিক ট্র্যাকে নিয়ে আসা যায়নি। তাই কোনো রকমে ১৬৪-তেই শেষ করা তারা।

চলতি আইপিএলের নিরিখে এই স্কোরটা ভীষণ ভজকট রান তাড়া করা দলের কাছে। এটা যেমন খুব শক্ত স্কোরও নয়, তেমনই একদমই সোজা নয়। এটা তাড়া করার জন্য প্রথমে ওপেনিং জুটিকে কিছুটা থিতু হওয়ার দরকার।

পাঁচ ওভার পর্যন্ত দলকে টেনে নিয়ে গিয়ে মোটামুটি একটা ভিত তৈরি করে দেন মুম্বইয়ের কুইন্টন ডে কক এবং ঈশান কিষাণ। তার পর বেলাইন হয়ে পড়ে মুম্বইয়ের ইনিংস। একে একে ফেরেন ডে কক, কিষাণ এবং সৌরভ তিওয়ারি। একাদশ ওভারে তিন উইকেট হারিয়ে মাত্র ৭২ রান তুলেছিল মুম্বই।

এ দিকে বেঙ্গালুরুর বোলাররা ক্রমশ টুঁটি চেপে ধরছিল মুম্বইয়ের। ক্রিস মরিস এবং ওয়াশিংটন সুন্দর রান আটকে দেন। অন্য দিকে যজুবেন্দ্র চাহল এবং মহম্মদ সিরাজ উইকেট তোলেন। ঠিক যে সময়ে মনে হচ্ছিল বেঙ্গালুরু ম্যাচে ক্রমশ জাঁকিয়ে বসছে, তখনই হাল ধরেন সূর্যকুমার যাদব।

অস্ট্রেলিয়াগামী ভারতের টি২০ দলে সূর্যের কেন জায়গা হল না, সেই নিয়ে কিছু দিন আগেই নির্বাচক কমিটির উদ্দেশে তীব্র তোপ দেগেছিলেন হরভজন সিংহ। দ্বিচারিতার মারাত্মক অভিযোগও এনেছেন তিনি। চলতি আইপিএলটা ভালোই যাচ্ছে সূর্যের। এ দিন আরও একটা দুর্ধর্ষ ইনিংস উপহার দেন।

তিনি বেঙ্গালুরুর কোনো বোলারদের ছেড়ে কথা বলেননি। নিজের ওপর থেকে রান লক্ষ্যমাত্রার চাপ কমানোর জন্য শুরু থেকেই আগ্রাসী হয়ে ওঠেন। চার-ছক্কার বন্যায় ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন। ২৯ বলে অর্ধশতরান পূর্ণ করেন তিনি। এক দিকে সেট হয়ে যাওয়া সূর্য, অন্য দিকে হার্দিক পাণ্ড্য, ম্যাচটা ক্রমে মুম্বইয়ের দিকে এগিয়ে আসতে শুরু করে।

বেঙ্গালুরুর বোলাররা হাল ছাড়েননি। সেটা তাদের শেষ পর্যন্ত লড়ে যাওয়ার মানসিকতা দেখেই বোঝা যাচ্ছিল। কিন্তু সূর্যের দাপট অব্যাহত ছিল। পেস বোলারকে যে ভাবে অবলীলায় তিনি সুইপ মেরেছেন, তা এবি ডেভিলিয়ার্সের কথাই বার বার মনে করিয়ে দিচ্ছিল।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজের চূড়ান্ত সূচি ঘোষিত, বক্সিং ডে’র টেস্টে স্টেডিয়ামে ফিরতে পারেন দর্শকরা

Continue Reading

ক্রিকেট

ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজের চূড়ান্ত সূচি ঘোষিত, বক্সিং ডে’র টেস্টে স্টেডিয়ামে ফিরতে পারেন দর্শকরা

করোনার প্রকোপ অনেকটাই কমে যাওয়ায় বক্সিং ডে’র টেস্ট মেলবোর্নেই হবে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দরকার ছিল অস্ট্রেলিয়া সরকারের চূড়ান্ত সম্মতি। সেটা মিলতেই ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজের চূড়ান্ত সূচি প্রকাশ করল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এর থেকেও বড়ো কথা হল, সব কিছু ঠিকঠাক চললে বক্সিং ডে’র টেস্টে মেলবোর্নের মাঠে ফিরতে পারেন দর্শকরাও। এমনই ইঙ্গিত মিলেছে ভিক্টোরিয়া প্রদেশের সরকারের তরফে।

সিরিজের তিনটে একদিনের ম্যাচ এবং তিনটে টি২০ ম্যাচ সিডনি আর ক্যানবেরায় হওয়ার কথা। সেই অনুযায়ী ২৭ নভেম্বর সিডনিতে অনুষ্ঠিত হবে প্রথম এক দিনের ম্যাচ। এর পর, ২৯ নভেম্বর দ্বিতীয় এক দিনের ম্যাচও হবে সিডনিতে। সিরিজের শেষ এক দিনের ম্যাচ ২ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ক্যানবেরায়।

ঠিক দু’ দিন পর শুরু হবে টি২০ সিরিজ। ৪ ডিসেম্বরে প্রথম ম্যাচ ক্যানবেরায়। তার পর ফের সিডনিতে যাবে বিরাটবাহিনী। সেখানে সিরিজের শেষ দুটি ম্যাচ ৬ এবং ৮ নভেম্বর।

সাম্প্রতিক কালে অ্যাডেলেডে দিন রাতের টেস্ট আয়োজিত হচ্ছে। এ বারও সেই প্রথাই বহাল থাকছে। টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচই হবে দিন রাতের। সেটা শুরু ১৭ ডিসেম্বর থেকে, অ্যাডেলেডে।

২৬ ডিসেম্বরে বক্সিং ডে’র টেস্ট মেলবোর্নেই অনুষ্ঠিত হবে। উল্লেখ্য, অস্ট্রেলিয়ায় করোনার আঁতুড়ঘর হয়ে উঠেছিল এই মেলবোর্নই। তাই সেখানে আদৌ টেস্ট আয়োজন করা সম্ভব কি না, সেই প্রশ্নও উঠতে শুরু করেছিল। তবে পরিস্থিতির এতটাই উন্নতি হয়েছে, গত কয়েক দিনে একজনও নতুন করে কোভিডে আক্রান্ত হননি এই শহরে। তার পরেই টেস্ট ম্যাচটি মেলবোর্নেই করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শুধু তা-ই নয়, অল্প সংখ্যক হলেও এই টেস্টে বিখ্যাত মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে দর্শক ঢোকানো হবে বলেও জানানো হয়েছে।

এর পর প্রথামাফিক নিউ ইয়ার্স টেস্ট হবে সিডনিতে। ৩ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে এই টেস্ট। গ্লেন ম্যাকগ্রার প্রয়াত স্ত্রী জেনের স্মৃতির উদ্দেশে এবং ক্যানসার নিয়ে সচেতনতার জন্য এই টেস্টকে পিঙ্ক টেস্টও বলা হয়। সিরিজের চতুর্থ টেস্ট শুরু হবে ১৫ জানুয়ারি থেকে ব্রিসবেনে।

টেস্ট সিরিজ শুরু হওয়ার আগে ভারতীয় দল একটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলবে। ১১ থেকে ১৩ ডিসেম্বর সিডনিতে নৈশালকে সেই প্রস্তুতি ম্যাচটি হবে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

রোহিতে রহস্য! চোটের জন্য অস্ট্রেলিয়াগামী দল থেকে বাদ পড়লেও, মুম্বইয়ের অনুশীলনে ‘হিটম্যান’

Continue Reading

ক্রিকেট

দিল্লিকে তছনছ করে যেন কেকেআরকেও অলিখিত বার্তা দিল ঋদ্ধিমান সাহার ব্যাট

Published

on

হায়দরাবাদ: ২১৯-২ (ঋদ্ধিমান ৮৭, ওয়ার্নার ৬৬, অশ্বিন ১-৩৫)

দিল্লি: ১৩১ (পন্থ ৩৬, রাহানে ২৬, রশিদ ৩-৭)

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দুটো দলের মধ্যে লড়াই তো ছিলই। কিন্তু তার থেকেও বেশি লড়াই ছিল ব্যক্তিগত স্তরে। লড়াইটা ছিল দেশের সেরা দুই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানের মধ্যে। লড়াইটা ছিল, এক জনের ক্রিকেটারের দীর্ঘদিনের বঞ্চনার জবাব দেওয়ারও। সেই লড়াই শেষে জয়ী হলেন এক বঙ্গসন্তান। মহম্মদ শামির পর বাংলার আরও এক ক্রিকেটার প্রভাব ফেলে গেলেন চলতি আইপিএলে। তিনি ঋদ্ধিমান সাহা।

বাঙালি ক্রিকেটার মানেই কি কোনো ভাবে রাজকীয় প্রত্যাবর্তনের সঙ্গে সম্পর্কিত? না সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে কোনো তুলনাতেই আসেন না ঋদ্ধিমান সাহা। কিন্তু মঙ্গলবার দুবাইয়ে তিনি যেটা করলেন সেটা কে রাজকীয় প্রত্যাবর্তন ছাড়া কী-ই বা বলা যেতে পারে।

বার বার তাদের মিডল অর্ডার ব্যর্থ হয়েছে। তবুও ঋদ্ধিমানের কথা ভাবেইনি হায়দরাবাদ টিম ম্যানেজমেন্ট। মঙ্গলবারের পর তারা নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছে শিলিগুড়ির এই ছেলেটাকে খেলালে আরও বেশ কয়েকটি ম্যাচ জিততে পারত তারা। ঋদ্ধিমান যে আর বাদ পড়বেন না, সেটাও এখন নিশ্চিত হয়ে গেল।

তিনি আবেগহীন। রাগ প্রকাশ করেন না। কিন্তু এ দিন তাঁর ব্যাটিং দেখে মনে হয়েছে টিম ম্যানেজমেন্টের বিরুদ্ধে সব ক্ষোভ যেন উগরে দিচ্ছেন তিনি। সেই সঙ্গে ভারতীয় টিমের কাছেও বার্তা পাঠালেন যে অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট ঋষভ পন্থের বদলে তাঁকেই খেলাতে হবে। কারণ দুই উইকেটকিপারের লড়াইয়ে ঋষভ এ দিন ব্যর্থ হয়েছেন। এমনকি এই আইপিএলে এখনও সেই স্পার্ক দেখা যায়নি পন্থের মধ্যে।

ওপেনিংয়ে সঙ্গী বদল করে এ দিন ঋদ্ধিমান সাহাকে নিয়ে আসেন ডেভিড ওয়ার্নার। ঋদ্ধির আবির্ভাবে ওয়ার্নারের খেলাটাও কী ভাবে বদলে গেল যেন। শুরু থেকেই ঝড় ওঠে ঋদ্ধি আর ওয়ার্নারের ব্যাটে। তবে ওয়ার্নার শুরুতে বেশি আগ্রাসী ছিলেন।

দুশোর স্ট্রাইক রেটে পঁচিশ বলে ওয়ার্নার যখন নিজের অর্ধশতরান পূর্ণ করছেন, ততক্ষণে হায়দরাবাদের রানরেট উঠে গিয়েছে ১১-এর ওপরে। ঋদ্ধি উলটো দিকে বেশি প্রভাব না ফেললেও, স্ট্রাইক রেট দুশোর ওপরেই রেখেছিলেন তখন। দশ ওভারের আগেই দলের স্কোরকে একশোর ওপরে তুলে দিয়ে বিদায় নেন ওয়ার্নার।

এর পর শুরু হয় ঋদ্ধি-ঝড়। নিঃসন্দেহে এই আইপিএলের সেরা বোলিং লাইনআপ দিল্লির রয়েছে। ঋদ্ধি কিন্তু কাউকে রেয়াত করেননি। কাগিসো রাবাদা, এনরিকে নোর্কিয়া, রবিচন্দ্রন অশ্বিনদের তুলে মাঠের বাইরে ফেলেছেন তিনি।

২০১৪ সালে আইপিএলের ফাইনালে এমনই এক ঋদ্ধি-ঝড় আছড়ে পড়েছিল। সে বার কিংস ইলেভেন পঞ্জাবে খেলা ঋদ্ধি আইপিএলের ইতিহাসে অন্যতম স্মরণীয় শতরান করেছিলেন। এ দিনও শতরানের দিকেই এগোচ্ছিল তাঁর ইনিংস। তবে ইনিংসের শেষ দিকে গরমের কাছে কিছু অস্বস্তি বোধ করতে থাকেন তিনি। শিরায় টান ধরার সমস্যাও দেখা দেয়।

শেষে শতরান থেকে ১৩ রান তুলে থেমে যায় তাঁর ইনিংস। ৮৭ রান করতে ঋদ্ধি খরচ করেন মাত্র ৪৫ বল। ১২টা চার ছাড়াও দুটো ছক্কা মারেন তিনি। ঋদ্ধির এই ইনিংসের সৌজন্য বিশাল বড়ো স্কোর খাড়া করে হায়দরাবাদ।

দুবাইয়ের পিচ এই টুর্নামেন্টে কেমন আচরণ করেছে দেখা গিয়েছে। ফলে প্রথম ইনিংসের পরেই ম্যাচের ভাগ্য কার্যত নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। দিল্লির হারের হ্যাটট্রিক যে আসন্ন সেটা বোঝাই যাচ্ছিল। ব্যাপারটা শুধুমাত্র নিয়মরক্ষার হয়ে দাঁড়ায়।

কিন্তু তা বলে লিগের অন্যতম সেরা দল দিল্লি যে কোনো লড়াই-ই দেবে না বোঝা যায়নি। শনিবার কলকাতা নাইটরাইডার্সের বিরুদ্ধে তাও কিছুক্ষণ ম্যাচে ছিল দিল্লি। এ দিন শুরু থেকেই নেতিয়ে পড়ে পুরোপুরি।

ওপেন করতে নেমে অজিঙ্ক রাহানে এবং ঋষভ পন্থ ছাড়া দিল্লির কেউ রান পাননি। তা-ও এই পরিস্থিতিতে পন্থের থেকে যে ইনিংস আশা করা হচ্ছিল, তেমন খেলতেই পারেননি তিনি। উলটে কমলাবাহিনীর বোলারদের হাতে পুরোপুরি পর্যুদস্ত হয়ে যায় তারা।

সন্দীপ শর্মা শুরুতেই দুই উইকেট নেন হায়দরাবাদের হয়ে। তবে এ দিনও ব্যাপক ভাবে নিজের উপস্থিতি জানান দিয়ে যান আফগানিস্তানের রশিদ খান। ৪ ওভারে তিনি ওভারপ্রতি ১.৭৫-এ রান দিয়েছেন। রাহানে, হেটমেয়ার এবং অক্ষর পটেল তাঁর শিকার। দিল্লির ইনিংস শেষ হয়ে যায় মাত্র ১৩১ রানে।

হারের হ্যাটট্রিকের পরেও দিল্লি এখনও লিগ টেবিলের স্বস্তিদায়ক জায়গাতেই রয়েছে। প্লে-অফে পৌঁছোতে গেলে একটা ম্যাচ জিতলেই হবে। তবে বাংলার ক্রিকেটভক্তদের কাছে এ রাত স্মরণীয় হয়ে থাকল। সেই সঙ্গে বার্তা গেল বাঙালিহীন কলকাতা নাইটরাইডার্সের কাছেও। দীনেশ কার্তিকের বদলে ঋদ্ধিকে দলে রাখলে, লাভবান হতে পারত তারা।

Continue Reading

Amazon

Advertisement
রাজ্য51 mins ago

রাজ্যপাল জগদীপ ধানখড়কে বিজেপির ‘লাউডস্পিকার’ বলল তৃণমূল

কেনাকাটা1 hour ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

দেশ1 hour ago

দুই দেশ একে অপরের পরিপূরক শক্তি: বাংলাদেশের শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতীয় হাই কমিশনারের বৈঠক

দেশ1 hour ago

গাড়ি ব্যবহার বন্ধ রেখে সময় এসেছে সাইকেল চালানোর, বলল সুপ্রিম কোর্ট

রাজ্য2 hours ago

আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও রাজ্যে টেস্টও বাড়ল, কমল দৈনিক সংক্রমণের হার, ৮৮ শতাংশ পেরোল সুস্থতার হার

বিদেশ3 hours ago

‘ঘুস কে মারা’,পুলওয়ামা হামলায় বিস্ফোরক দাবি পাক মন্ত্রীর

দেশ4 hours ago

শেষ ৯ দিনে ভারতে এক কোটি নমুনা পরীক্ষা, করোনা সংক্রমণের হারে ধারাবাহিক পতন

বিদেশ5 hours ago

ফ্রান্সের গির্জা চত্বরে এক মহিলাকে গলা কেটে খুন, নিহত আরও ২

দেশ13 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৪৯,৮৮১, সুস্থ ৫৬,৪৮০

rohit sharma
ক্রিকেট3 days ago

রোহিতে রহস্য! চোটের জন্য অস্ট্রেলিয়াগামী দল থেকে বাদ পড়লেও, মুম্বইয়ের অনুশীলনে ‘হিটম্যান’

ক্রিকেট3 days ago

চতুর্থ স্থান থেকে কলকাতাকে ছিটকে দিয়ে টানা পঞ্চম ম্যাচ জয় পঞ্জাবের

containment kolkata
কলকাতা1 day ago

লকডাউন নিয়ে গুজবের বিরুদ্ধে পুলিশি পদক্ষেপ

বিনোদন2 days ago

সিবিআই গ্রেফতার করতে পারে, আশঙ্কায় তড়িঘড়ি আদালতের দ্বারস্থ সুশান্ত সিং রাজপুতের দুই দিদি

বিনোদন2 days ago

দেশের সব থেকে বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড কে?

কলকাতা3 days ago

পিতৃমাতৃহীন শিশুদের নিয়ে পুজোর দিনে ‘দুর্গা অ্যান্ড ফ্রেন্ডস’-এর অভিনব উদ্যোগ

বিদেশ3 days ago

২ নভেম্বর থেকে সাধারণের ওপরে অক্সফোর্ডের কোভিড-টিকার প্রয়োগ শুরু, ব্রিটেনের হাসপাতালকে তৈরি থাকার নির্দেশ

কেনাকাটা

কেনাকাটা1 hour ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা3 weeks ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা4 weeks ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা4 weeks ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা4 weeks ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা1 month ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা1 month ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা1 month ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা1 month ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 month ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

নজরে