১৭ বছর আগের স্মৃতি ফিরিয়ে ভাইজাগে রোহিতরাজ

0

ভারত: ২০২-০ (রোহিত ১১৫ অপরাজিত, ময়াঙ্ক ৮৫ অপরাজিত)

বিশাখাপত্তনম: ২০০২-এর লর্ডস ফিরে এল ২০১৯-এর বিশাখাপত্তনমে। অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগবে, সতেরো বছর আগে লর্ডসে কী এমন ঘটনা ঘটেছিল, যা এ বার ফিরে এল?

অনেকের হয়তো সেই ঘটনাটি মনে পড়বে না, তাই মনে করিয়ে দেওয়া যাক। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সে বার লর্ডসে আয়োজিত প্রথম টেস্টে প্রথম বার ওপেনিং করতে নামেন বীরেন্দ্র সহবাগ। সৌরভের ফাটকা এক্কেবারে কাজে লেগে গিয়েছিল।

টেস্ট ওপেনিংয়ের প্রথম ইনিংসেই সহবাগের ব্যাট থেকে বেরিয়েছিল ৮৪ রানের এক ঝকঝকে ইনিংস। ব্যাস, ওই শুরু। তার পর টেস্ট ওপেনিংকে নতুন মাত্রা দিয়ে দিলেন সহবাগ।

কাট টু ২০১৯। এ বার মনে হচ্ছে তো ওই ঘটনার সঙ্গে কত মিল! তফাত শুধু একটাই। সহবাগ টেস্ট ওপেনিংয়ের সুযোগ পেয়েছিলেন মাত্র ২৪ বছর বয়সে। আর রোহিত যখন পেলেন তখন তাঁর ক্রিকেট কেরিয়ার অন্তিম অর্ধে পৌঁছে গিয়েছে।

তবুও দেরিতে হলেও সুযোগটা তো তিনি পেলেন। নিজেকে টেস্টে নিয়মিত করার জন্য এই একটাই জায়গা ছিল রোহিতের। কারণ মিডিল অর্ডারে ট্র্যাফিক জ্যাম লেগে গিয়েছে। আর আগে যত বার মিডিল অর্ডারে ব্যাট তিনি করেছেন বিশেষ সফল হননি।

ভারতে এ বার বর্ষা এত লম্বা ইনিংস খেলছে, যে ঘরোয়া ক্রিকেট মরশুমের ওপরে তা প্রভাব পড়ছে, যা আগে ভাবাই যেত না। বুধবারও সে রকমই হল। প্রথম টেস্টের প্রথম দিন মাত্র ৬০ ওভার খেলা হল। ঝেঁপে বৃষ্টি নামায় চা বিরতির পর আর কোনো খেলাই হল না।

এই সংক্ষিপ্ত দিনে একজনই সংবাদ শিরোনামে। রোহিত শর্মা।

বীরেন্দ্র সহবাগকে ওপেনিংয়ে নিয়ে আসার মূল মস্তিষ্ক যাঁর, সেই সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় অনেক দিন ধরেই রোহিতকে টেস্ট ওপেনিংয়ে পাঠানোর দাবি জানাচ্ছিলেন। কিন্তু কেউ শুনলে তো! রোহিতকে নিয়ে বিশেষজ্ঞমহলও দু’ভাগ হয়ে গিয়েছিল।

কিন্তু এ দিন রোহিত ‘দাদা’র ভবিষ্যদ্বাণীকে সত্যি প্রমাণ করে দিলেন। শুরুর দিকে একটু নড়বড়ে ছিলেন তিনি। সে তো যে কোনো ওপেনারই হন। কিন্তু ছন্দ পেয়ে যাওয়ার পর এক্কেবারে একদিনের ম্যাচের ফর্মে ধরা দিলেন রোহিত।

রোহিতকে বাগে আনার জন্য তিন স্পিনার নামিয়েছিলেন ফাফ দু’প্লেসি। সেটা পুরোপুরি বুমেরাং হয়ে গেল। মহারাজ, মুতুস্বামী এবং পিটকে এগিয়ে তুলে প্যাভিলিয়নের বাইরে পাঠালেন তিনি।

আরও পড়ুনআইপিএল নিলামের আসর বসতে চলেছে কলকাতায়

রোহিতের এই বিধ্বংসী মেজাজের সামনে কিছুটা ম্রিয়মাণ থাকলেও দুর্দান্ত সঙ্গত করে গেলেন ময়াঙ্ক অগ্রবাল। সেই সঙ্গে ওপেনিং জুটিও থিতু হল বলা চলে।

শেষ বার ভারতের টেস্ট ওপেনিং জুটি ১০০ রানের গণ্ডি পেরিয়েছিল ২০১৮-এর জুনে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে। তার পর দশ জনে দিয়ে ওপেনিং এবং সাত রকম ওপেনিং কম্বিনেশন চেষ্টা করেছে ভারত।

যা-ই হোক, অসময় বৃষ্টিটা না নামলে রোহিত আরও বড়ো ইনিংস খেলে ফেলতেন। কিন্তু সেটা হল না। বৃহস্পতিবার আবার প্রথম থেকে শুরু করতে হবে তাঁকে। তবে নামের পেছনে ১১৫ সংখ্যাটি যে তাঁকে বাড়তি আত্মবিশ্বাস দেবে তা বলাই বাহুল্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here