ওয়েবডেস্ক:  আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ছে তাও কয়েক বছর হয়ে গেল। তবে মাঠে ঘাম ঝরানো থামেনি। তাই বলে তিনি কিনা ফের সেঞ্চুরি হাঁকানোর স্বপ্ন দেখছেন?

সচিন তেন্ডুলকর স্পষ্ট করেই বলেছেন, হ্যাঁ, তিনি আরও একটা স্বপ্নের সেঞ্চুরি করতে চান। তবে সেটা মাঠে নয়। তাঁর স্বপ্ন-দেশের প্রতিটি স্কুলে আবশ্যক বিষয় হিসাবে গণ্য হোক খেলাধুলো। এই কথাই তিনি রাজ্যসভায় বলতে গিয়েছিলেন। কিন্তু প্রবল বাধার সম্মুখীন হয়ে তাঁকে বাকরুদ্ধ হতে হয়। পরে ফেসবুকে তার বক্তব্য পেশ করেন। আর এ বার দেশের মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক এবং ক্রীড়া মন্ত্রককে বিশেষ আবেদন জানালেন সে বিষয়ে।

রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে তিনি প্রত্যেক সাংসদকে উপহার দিয়েছেন একটি পুস্তিকা। যেখানে দেশের সফল ২০ জন ক্রীড়াবিদের ছবি-সহ বর্ণনা তুলে ধরা হয়েছে। অনেকের ধারণা, সচিন সম্ভবত খেলাধুলো শিক্ষার পাঠক্রমের প্রাথমিক রূপরেখাটা নির্মাণ করতে চেয়েছেন। যা মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের কাজ সহজ করার পক্ষে যথেষ্ট। কারণ ওই পুস্তিকা বিতরণের পর সচিন জানান, আমাদের কাছে এ রকম আরও পাঁচশো জনের উদাহরণ রয়েছে। যাঁদের জীবনী দেশের নবীনপ্রজন্মকে খেলাধুলোর পাশাপাশি সমগ্র দিক থেকে উৎসাহিত করবে। আর্থিক বিকাশের যে লক্ষ্য নিয়ে দেশ এগোচ্ছে তাতে সহায়ক হয়ে উঠবে এ ধরনের জীবনগাথা।

সচিন আশাপ্রকাশ করে বলেছেন, ক্রীড়া-শিক্ষার প্রসারে মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের সুবিধার জন্যই তিনি ওই পুস্তিকা দেশের উপ-রাষ্ট্রপতি এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকে পাঠিয়েছেন। আনফরগেটবল স্পোর্টিং হিরোজ অ্যান্ড লেজেন্ড অব ইন্ডিয়া শীর্ষক ওই পুস্তিকায় রয়েছে ৫৫টি পৃষ্ঠা। তাঁর ভক্তদের মধ্যে বেশির ভাগই এখন সন্তানের পিতা-মাতা। এ পুস্তিকা যেমন তাঁদের ভালো লাগবে তেমনই তাঁদের সন্তানদের আগ্রহ মেটাতে পরিপূরক হয়ে উঠবে বলেই মনে করেন ভারতীয় ক্রিকেটের জীবন্ত কিংবদন্তী সচিন।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন