খবরঅনলাইন ডেস্ক: শুধু অস্ট্রেলিয়াই নয়, ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টেও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছেন মহম্মদ শামি। তাঁর হাতের চোট সারতে অন্তত ৬ সপ্তাহ সময় লাগবে বলে মনে করছে বিসিসিআই।

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টে মিচেল স্টার্কের বল শামির ডান হাতে লাগে। তিনি আর ব্যাট করতে পারেননি। স্ক্যান রিপোর্টে দেখা যায়, শামির হাতের হাড় ভেঙেছে। চিকিৎসা পদ্ধতি এবং বিশ্রাম মিলিয়ে শামিকে ছয় সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা।

Loading videos...

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতের চার টেস্টের সিরিজ শুরু হচ্ছে ৫ ফেব্রুয়ারি চেন্নাইতে। চোট সারাতে ছয় সপ্তাহ সময় লাগলে শামির পক্ষে প্রথম টেস্ট খেলা সম্ভব নয়। বোর্ডের একটি সূত্র জানাচ্ছে, ‘‘বিশ্রাম এবং রিহ্যাব মিলিয়ে ছয় সপ্তাহ লাগবে। এখন ওর হাতে প্লাস্টার করা রয়েছে। প্লাস্টার কাটার পর বেঙ্গালুরুতে ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে শামির রিহ্যাব শুরু হবে।’’

বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফেরার কথা শামির। ফেরার পর অল্প কিছু দিন তাঁকে নিভৃতবাসে থাকতে হবে। তার পর তিনি বেঙ্গালুরুতে জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে যেতে পারবেন।

দ্বিতীয় টেস্টে কি ফিরতে পারবেন?

প্রথম টেস্টে না খেলতে পারলেও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টে শামি ফিরতে পারবেন কি না, সেটাই দেখার। উল্লেখ্য, চেন্নাইতেই দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে ১৩ ফেব্রুয়ারি। বিসিসিআই অবশ্য মনে করছে দ্বিতীয় টেস্টের আগেই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে যাবেন শামি।

সিরিজের বাকি দু’টি টেস্ট হবে অমদাবাদে, যথাক্রমে ২৪ ফেব্রুয়ারি এবং ৪ মার্চ। এর পর অমদাবাদের পাঁচ ম্যাচের একটি টি২০ সিরিজ হবে। তার পর পুণেতে তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ হবে ভারত আর ইংল্যান্ডের মধ্যে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

প্রথমে গোল করেও নর্থইস্টের বিরুদ্ধে জিততে পারল না ওড়িশা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.