virat kohli

ওয়েবডেস্ক: খেলা শুরুর আগে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার কার্যনির্বাহী অধিকর্তা থাবাং মোরে জানিয়েছিলেন, “বিরাট কোহলি খুবই আগ্রাসী এক খেলুড়ে। তাই আমরা তাঁকে একটু আদর-যত্নে, বিলাসে রাখতে চাই। আর চাই, তিনি স্ত্রীর সঙ্গে যতটা পারেন সুখের সময় কাটান। তাতে আশা করি, ওঁর পারফরম্যান্স একটু কম আগ্রাসী হবে। যার পরিণামে আমাদের বোলাররা একটু বেশি সময় টিঁকতে পারবেন ওঁর ব্যাটের সামনে”!

তা, অনুষ্কা শর্মা ঠিক সময় মতো দেশে ফিরে আসায় সে পরিকল্পনা তো আর ধোপে টিঁকল না। তারই পরবর্তী পদক্ষেপে কি আফ্রিকার দক্ষিণ দেশ এমন বিস্বাদ খাবার পরিবেশন করছে ভারতীয় ক্রিকেট দলকে, যাতে কম খেয়ে দুর্বল হয়ে পড়েন খেলুড়েরা?

থাবাং মোরের উক্তিটা রসিকতা হলেও খাবার-দাবার নিয়ে যে বিরাট কোহলি অ্যান্ড কোং চাপে পড়েছিলেন, সেটা মিথ্যা নয়। ম্যাচ চলার সময়ে এবং অনুশীলনের দিনগুলোতে যে খাবার পরিবেশন করা হচ্ছিল, তা মুখে রুচছিল না তাঁদের। ফলে, বাধ্য হয়েই একপ্রকার রাঁধুনি বদলাতে হল ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকাকে। বিরাট এবং দলবলের জন্য বন্দোবস্ত করতে হল ভারতীয় রাঁধুনির।

আরও পড়ুন: বিরাটের ব্যাট থামাতে বিশেষ তোয়াজ, অনুষ্কাকে ব্যবহারের বন্দোবস্তে দক্ষিণ আফ্রিকা!

জানা গিয়েছে, খ্যাতনামা এক দক্ষিণ আফ্রিকার রেস্তোরাঁ বিরাটদের গুণগত মানে খুবই ভালো খাবার পরিবেশন করলেও তা তাঁদের খেতে ভালো লাগছিল না। তাই তাঁরা বাড়ির মতো করে রান্না খাবার খেতে চান। কিন্তু সেখানেও বিপত্তি- দক্ষিণ আফ্রিকার ওই রেস্তোরাঁর পক্ষে তো আর ভারতের হেঁশেলের স্বাদ পাতে বেড়ে দেওয়া সম্ভব নয়। ফলে, গীত নামের ওই দেশেরই এক পঞ্জাবি রেস্তোরাঁকে বিরাটদের খাবার সরবরাহের ভার দিয়ে আপাতত নিশ্চিন্ত হয়েছে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা।

তবে, প্রাতরাশটা সব দলের জন্যই এক এবং সেটা পরিবেশন করছে ওই দক্ষিণ আফ্রিকার রেস্তোরাঁই। তালিকায় থাকছে- বাদাম ও মধু দিয়ে মাখা ওটস, সব শস্য মিশ্রিত ফ্লেকস, হাই প্রোটিন সিরিয়াল, ডবল থিক গ্রিক ইয়োগার্ট, ফ্যাট-ফ্রি দুধ, তাজা ফল, শুকনো ফল, শুকনো মাংস, নানা রকম বাদামের পাঁচমিশেলি রোস্ট, চা বা কফি। এর সঙ্গে দেশি স্বাদকোরককে তৃপ্তি দেওয়ার জন্য ওমলেটের আবেদন করেছেন বিরাটরা এবং তা মঞ্জুরও হয়েছে।

তবে দুপুরের খাবার তাঁদের পরিবেশন করছে ভারতীয় রেস্তোরাঁই। চিকেন রেজালা, মশলাদার ভেড়ার মাংস, দাল মাখানি ছাড়াও আরও দুই রকমের ডাল, পালক পনির, গোবি মশালা, বাটার নান, বাসমতী চালের ভাত খেয়ে-দেয়ে আপাতত বিরাটরা সন্তুষ্ট রয়েছেন বলেই খবর!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here