india

ওয়েবডেস্ক: আগামী বছর ইংল্যান্ডের মাটিতে বসছে বিশ্বকাপের আসর। ফের বিশ্বজয়ের লক্ষ্যে মাঠে নামতে চায় বিরাট কোহলির টিম ইন্ডিয়া। চলতি বছর ইংল্যান্ডের মাটিতে সিরিজ খেলে এসেছে তারা। তবে বিশ্বকাপ চলাকালীন যাতে ক্রিকেটারদের কোনো অসুবিধা না হয়, তার জন্য প্রশাসনিক কমিটির কাছে কিছু অনুরোধ রেখেছিলেন বিরাটরা। অবশ্য তা মাঠের ভিতরের নয়, মাঠের বাইরের।

আরও পড়ুন: রেয়াল মাদ্রিদের এল ক্ল্যাসিকো-বিপর্যয়ের ক্ষতয় ছেঁকা দিলেন রোনাল্ডো

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ শুরু হওয়ার আগে অধিনায়ক বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, অজিঙ্কে রাহানে, কোচ রবি শাস্ত্রী এবং নির্বাচক কমিটির প্রধান এম এস কে প্রসাদরা রিভিউ মিটিংয়ে বসেছিলেন প্রশাসনিক কমিটির সঙ্গে। সেখানেই বিরাটরা আবেদন করেছেন বিশ্বকাপ চলাকালীন রিজার্ভ ট্রেনের কামরা, বান্ধবী/ স্ত্রীদের উপস্থিতি এবং পর্যাপ্ত কলার ব্যবস্থা রাখার।

সুত্র মারফত জানা যাচ্ছে, ইংল্যান্ড সিরিজ চলাকালীন ইংলিশ বোর্ড ভারতীয় খেলোয়াড়দের নিজেদের ইচ্ছা মতো ফল দিতে পারেনি। তবে মিটিং চলাকালীন প্রশাসনিক কমিটি এমন শুনে কিছুটা অবাক হয়ে যায়। তবে তারা জানান এই ব্যাপারে টিম ম্যানেজারকে বলা উচিত ছিল কলা কিনে দেওয়ার জন্য। যার খরচ বহন করত বিসিসিআই।

শুধু তাই নয় খেলোয়াড়দের রিজার্ভ ট্রেনের কামরার আবদার শুনে কিছুটা থতমত খেয়ে যান কর্তৃপক্ষ। এই নিয়ে বিরাটরা বলেন, ট্রেনে করে অনুশীলনে গেলে সময় বাঁচবে। যার পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসনিক কমিটি প্রথমে মানতে রাজি হয়নি। তবে কোহলি জানান, ইংল্যান্ড দলও ট্রেনেই যাতায়াত করে। কমিটি চিন্তিত ছিল, কারণ সেই কামরায় থাকা ভারতীয় সমর্থকরা বিরাটদের দেখে নিজেদের সামলে রাখতে পারবেন না। তবে তারা রাজি হলেও, জানিয়েছে অপ্রীতিকর কিছু হলে কমিটি বা বিসিসিআইয়ের দায় থাকবে না।

তৃতীয় এবং সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ যা নিয়ে অনেকক্ষণ বৈঠক চলে তা হল খেলোয়াড়দের সঙ্গে বান্ধবী বা স্ত্রীদের উপস্থিতি। বিরাট কোহলি অনেকদিন আগেই জানিয়েছিলেন, বিদেশে সিরিজ চলাকালীন বান্ধবী/ স্ত্রীরা যেন সঙ্গে থাকার অনুমতি দেওয়া হয়। অবশ্য এই নিয়ে কমিটি জানিয়েছে তারা দলের সব সদস্যদের লিখিত অনুরোধ চেয়েছেন। তবে যতক্ষণ না এই বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হচ্ছে, তখন আগের নিয়ম অর্থাৎ সিরিজের মাঝে দু’সপ্তাহের জন্য তাঁদের থাকার সুযোগ দেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here