Cricketimage

ওয়েবডেস্ক: ২০ আগস্ট, ২০০৬। কুয়ালা লামপুর, মালয়েশিয়া। এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল ট্রফি। ১৭টি দল অংশ নিয়েছিল সেই প্রতিযোগিতায়। এসিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের অ্যাসোসিয়েটেড ও অ্যাফিলিয়েটেড সদস্যদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের স্বাদ দেওয়ার জন্য ওই ওয়ান ডে প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল।

সে সময় এশিয়ার দ্বিতীয় সারির ক্রিকেট দলগুলির মধ্যে নেপালকে এগিয়ে রাখা হত আফগানিস্তানের থেকেও। আর সবচেয়ে পেছনে থাকা দল ছিল মায়ানমার(ব্রুনেই-এরও পেছনে)। এই দুই দলই পড়েছিল গ্রুপ সি-তে। তারাই মুখোমুখি হয় এই দিনে।

প্রথমে ব্যাট করে মায়ানমার অল আউট হয়ে যায় ১২.১ ওভারে। মাত্র ১০ রান করে। তার মধ্যে ২টি ছিল ওয়াইড, ৩টি লেগ বাই। সবচেয়েলম্বা পার্টনারশিপটি টিকেছিল ২১ বল। মায়ানমারের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান জাকারিয়া ক্রিজে ছিলেন ২১ মিনিট। ২০ বল খেলে করেন ১ রান।

১১ রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ব্যাট করতে নেমে, আয়ে মিন থানের প্রথম দুই বলেই তিন রান করে নেন নেপালের ওপেনাররা। তারপর তিনটি ওয়াইড করেন আয়ে মিন থান। তার মধ্যে একটি ওয়াইড বল উইকেট রক্ষক ধরতে নাপারায় ব্যাটসম্যানরা ২ রান নিয়ে নেন। হয়ে যায় ১১ রান। তারপর আম্পায়ার আরও একটি বল করিয়েছিলেন। তাতে রান নেয়নি নেপাল। প্রয়োজনও ছিল না। রেকর্ডেও বলটিকে স্থান দেওয়া হয়নি। আম্পায়ার কেন ওই বলটি করিয়েছিলেন, তা জানা যায়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন