ওয়েবডেস্ক: টিভি শো-এ হার্দিক পাণ্ড্য এবং কেএল রাহুলের বিতর্কিত মন্তব্যের পর মুখ খুললেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। সাফ জানিয়ে দিলেন তিনি এবং তাঁর দল এই মন্তব্যের সঙ্গে একেবারেই সহমত নয়।

শনিবার অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম এক দিনের ম্যাচ। তাঁর আগে সাংবাদিক সম্মেলনে এসে বিরাট বলেন, ‘‘দায়িত্বজ্ঞানসম্পন্ন ক্রিকেটার হিসেবে ওঁদের মতামতের সঙ্গে একেবারেই একমত নই আমরা। ওগুলো নিতান্তই ব্যক্তিগত অভিমত। হার্দিকদের নিয়ে কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, তার জন্যই আমরা অপেক্ষা করছি।’’

এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে দলের মধ্যে কোনো নেতিবাচক পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে না বলেও জানিয়ে দিয়েছেন অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘‘জাতীয় দলের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বলতে পারি, ড্রেসিংরুমে কোনো নেতিবাচক পরিস্থিতি তৈরি হবে না এই জন্যে। যে মনোবল আমরা তৈরি করেছি সাজঘরে, তা পূর্ণ মাত্রায় বজায় থাকবে।” বিসিসিআইয়ের সিওএ এই দুই ক্রিকেটারের ব্যাপারে কী সিদ্ধান্ত নেন, তার ওপরেই তাঁদের জাতীয় দলে থাকার ভাগ্য নির্ভর করছে বলে সাফ জানিয়েছেন তিনি।

ঘটনার সূত্রপাত, কর্ণ জোহরের টক শো-এ। নারীসঙ্গ ও যৌনতার বিষয়ে এক্কেবারে লাগামহীন মন্তব্য করেন পাণ্ড্য। হার্দিক বিতর্কিত ভাবে বলেছিলেন, ‘‘আমি এইমাত্র করে এসেছি।’’ তার পরেই তীব্র বিতর্কের তৈরি হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনা হওয়ার পরে নড়েচড়ে বসে ভারতীয় বোর্ড।

আরও পড়ুন দ্বিতীয় ইনিংসে আধিপত্য থাকলেও এক পয়েন্টেই সন্তুষ্ট থাকল বাংলা

বিসিসিআইও যে এই দুই ক্রিকেটারের মন্তব্য হালকা ভাবে নিচ্ছে না, সেটা জানা গিয়েছে। দুই ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে চরম শাস্তির দাবি করেছেন সিওএ প্রধান বিনোদ রাই। অন্য দিকে তাঁদের দুই ম্যাচ সাসপেন্ড করার দাবি করেছেন সিওএ-এর অন্যতম সদস্য ডায়ানা এদুলজি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here