virat-kohli
বিরাট কোহলি, সৌজন্য: এএফপি

ওয়েবডেস্ক: “ওভাল টেস্টেও আমাদের হৃদয় দিয়ে খেলতে হবে”। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ হারের পর এমনটাই বললেন ভারত অধিনায়ক। তাঁর মতে ভারতীয় দল এই ম্যাচে খুব বেশি ভুল করেনি। কিন্তু ইংল্যান্ড অনেক ভাল খেলেছে। দ্বিতীয় ইনিংসে তাঁদের টেইল এন্ডাররা যে রানটা যোগ করেছে, তার থেকেই ব্রিটিশদের প্যাশনের পরিচয় পাওয়া যায়। সাংবাদিক সম্মেলনে এদিন স্য়াম কুরানের প্রভূত প্রশংসা করেন বিরাট।

সাউদাম্পটনে ইংল্যান্ডের কাছে ৬০ রানে হেরে গেছে ভারত। জেতার জন্য দরকার ছিল ২৪৫ রান। ১৮৪ রানে অল আউট হয়ে যান কোহলিরা। কোহলি ও রাহানে ছাড়া দ্বিতীয় ইনিংসে কেউ প্রতিরোধ গড়ে তুলেতে পারেননি মইন আলিদের সামনে। এই নিয়ে টানা তিনবার ইংল্যান্ডের মাটিতে সিরিজ হারল ভারত।

ভারতীয় দল সিরিজ হারলেও এদিন একগাদা রেকর্ড করলেন বিরাট। এদিন তিনি ৫৮ রান করে আউট হন। ফলে এই সিরিজে তাঁর মোট রান হয়ে দাঁড়াল ৫৪৪। এখনও একটি টেস্ট বাকি। সিরিজের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান করেছেন জোস বাটলার(২৬০)। অর্থাৎ বিরাটের অর্ধেকেরও কম। বিরাটই প্রথম ভারত অধিনায়ক যিনি দেশের বাইরে কোনো টেস্ট সিরিজে ৫০০ রান করলেন। ইংল্যান্ডের মাটিতে একটি সিরিজে সফরকারী দলের অধিনায়কদের রানের তালিকায় তিনি রয়েছেন পাঁচ নম্বরে।

এ সবের পাশাপাশি এদিন বিরাট একটি বিশ্বরেকর্ড করেছেন। অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে কম টেস্টে ও কম সময়ে চার হাজার রান করে ফেললেন তিনি। তাঁর লাগল ৩৯টি টেস্ট ও ৬৫টি ইনিংস। তিনি ভাঙলেন ব্রায়ান লারার রেকর্ড। অধিনায়ক হিসেবে ৪০০০ টেস্ট রান করতে লারা নিয়েছিলেন ৪০টি টেস্ট ও ৭১টি ইনিংস। তিনিই প্রথম ভারতীয় ক্রিকেটার যিনি অধিনায়ক হিসেবে ৪০০০ টেস্ট রান করলেন। এই রান করতে তাঁর সময় লাগল ৩ বছর ২৬৫ দিন। সময়ের দিক থেকে যা দ্রুততম।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন