ভারত: ৬৪৯-৯ (বিরাট ১৩৯, পৃথ্বী ১৩৪, বিশু ৪-২১৭)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৯৪-৬ (চেজ ২৭ অপরাজিত, পল ১৩ অপরাজিত, শামি ২-৫)

রাজকোট: রাজকোটের বাসিন্দাদের সত্যিই পোয়াবারো। এই নিয়ে এই শহরে দু’টি টেস্ট হল এবং দু’টিতেই শতরান করলেন ঘরের ছেলেরা। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২০১৬-এর টেস্টে শতরান করেছিলেন পুজারা, এ বার করলেন জাদেজা। শুক্রবারের রাজকোটের প্রথম অর্ধটা জাদেজাময় হয়ে থাকল। পরের অর্ধটা রাজ করে গেলেন ভারতের বোলাররা।

এমনিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের খেলার মান এখন যে পর্যায় নেমেছে, ভারতের শক্তিশালী রাজ্য দলও তাদের হারিয়ে দিতে পারে। এ হেন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে ভারত যে ছেলেখেলা করবে সেটা তো আন্দাজই করা যাচ্ছিল, এবং হলও তাই। এ দিনের ভারতীয় ব্যাটিং-এর তিনটে হাইলাইট আগে বলে দেওয়া যাক।

১) বিরাট কোহলির রক্ষণাত্মক শতরান

২) আট রানের জন্য ঋষভ পন্থের শতরান ফসকানো এবং

৩) রবীন্দ্র জাদেজার শতরান

প্রথমে আসা যাক বিরাটের কথায়। স্বভাববিরুদ্ধ রক্ষণাত্মক ভাবে এ দিনও খেলে গেলেন তিনি। কোনো হুড়োহুড়ি নেই, এগিয়ে এসে মারা শট নেই। হয়তো তিনি নিজেই খেলার ধরন পালটে দিয়েছেন। হয়তো মনে করেছেন অস্ট্রেলিয়া সফরের আগে ক্রিজে অনেক বেশি করে সময়ে কাটাতে চান তিনি। তবে ইনিংসটি ছিল এক্কেবারে নিখুত।

এ বার আসা যাক ঋষভ পন্থের কথায়। ওভাল টেস্টে যেখানে তিনি শেষ করেছিলেন, এ দিন সেখান থেকে শুরু করলেন। সেই চিরাচরিত ঢঙ। বোলারদের মাথার ওপর দিয়ে পাঠিয়ে দিচ্ছেন গ্যালারিতে। শতরানটা ফসকানোর জন্য তিনি নিজেই দায়ী। ৯২-তে দাঁড়িয়ে থেকেই ছক্কা হাঁকাতে গেলেন তিনি এবং ক্যাচ। মাঠে পড়ে রইল তাঁর দ্বিতীয় শতরান।

অবশেষে শতরান পেলেন রবীন্দ্র জাদেজাও। ওভাল টেস্টের প্রথম ইনিংস সঙ্গীর অভাবে ৮৭ রানে থেমে গিয়েছিল তাঁর ইনিংস। এ দিন অবশ্য কোনো সমস্যা হয়নি। তিনি শতরান পেরিয়ে যেতেই ইনিংসের সমাপ্তি ঘোষণা করলেন ভারত অধিনায়ক।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই ব্যাটিং-এর কাছে সাড়ে ছ’শো রানটা বড্ড বেশি সেটা তো বোঝাই যায়। কিন্তু তা বলে তারা যে কোনো লড়াই-ই দিতে পারবেন না সেটা আন্দাজ করা যায়নি। শুরুর ধাক্কাটা দেন মহম্মদ শামি। দুই ওপেনারকে ফেরত পাঠিয়ে। তার পর আসরে নামেন স্পিনাররা। অশ্বিন, জাদেজা এবং কুলদীপ তিন জনেই একটা করে উইকেট তুলে নিয়েছেন। দিনের শেষে একশোও পেরোয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

টেস্টের কী ফল হবে সেটা তো বোঝাই যাচ্ছে, এখন প্রশ্ন হল ম্যাচটা রবিবার পর্যন্ত যাবে না কি শনিবারই শেষ হবে!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন