মিশর। পিরামিডের দেশ। ইতিহাসের পাতায় উজ্জ্বল নানা ঘটনা ও রূপকথার মিশেলে। মিশরের‌ই এক জলজ‍্যান্ত রূপকথার নাম ইব্রাহিম হামাতো। রিও ডি জেনেইরোতে চলতি প‍্যারালিম্পিক্সে প্রথমবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেন এই টেবিল টেনিস খেলোয়াড়। বিশ্বের চার নম্বর ব্রিটিশ প্রতিপক্ষের কাছে হেরে ইতিমধ্যে থেমে গিয়েছে তার পদকাভিযান। তবে ৪৩ বছরের ইব্রাহিমের অদম‍্য জেদ, মানসিক দৃঢ়তা, কঠোর পরিশ্রমের উদাহরণ যেন জন্ম দিয়ে গেছে নতুন রূপকথার। কারণ, টেবিল টেনিসের ব‍্যাটটা তিনি ধরেন ও অবিশ্বাস্য খেলা উপহার দেন মুখ ও দাঁতের সাহায‍্যে।
১০ বছর বয়সে দুর্ভাগ‍্যজনক ট্রেন দুর্ঘটনায় কাটা পড়েছিল ইব্রাহিমের দুটো হাত-ই। দুর্ঘটনা হাত কেড়ে নিলেও আঁচড় ফেলতে পারেনি মনের জোরে। বিভিন্নভাবে  চেষ্টার পর মুখের মধ‍্যে ব‍্যাট নিয়ে ফের খেলা শুরু করেন তিনি। দাঁত দিয়ে ধরতে হাতলটাকে বিশেষভাবে তৈরি করেন। আর দুর্ঘটনার মাত্র তিন বছর বাদেই ফের খেলা শুরু করেন ইব্রাহিম।
সত্যিই তো হার-জিত দিয়েই  জীবনযুদ্ধের সব লড়াইয়ের হিসেব কষা যায় কি? কিন্তু কঠোর পরিশ্রম আর সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করলে কোন‌ও শক্তিই যে স্বপ্নপূরণের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে না, তা প্রমাণ করে দিয়েছেন ইব্রাহিম। ২০১১ ও ‘১৩ সালে আফ্রিকান চ‍্যাম্পিয়নশিপে রুপোজয়ী ইব্রাহিমের‌ই বলা সাজে, “অক্ষমতাটা হাত বা পায়ের সঙ্গে জড়িত নয়, যেটা করতে চাই সেটার জন‍্য টানা লড়াই না করাটাই অক্ষমতা।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here