সানি চক্রবর্তী:

গুরুত্বপূর্ণ দু’টো অ্যাওয়ে ম্যাচ থেকে ৬ পয়েন্ট নিয়ে ফিরেছে তাঁর দল। লিগের শীর্ষে থাকার পাশাপাশি ঠিক সময়ে ঘুরে দাঁড়িয়ে ফুরফুরে গোটা ইস্টবেঙ্গল শিবির। প্রশিক্ষক ট্রেভর জেমস মরগ্যান যদিও সতর্ক, যে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহনবাগানকে তাঁর দল টেক্কা দিতে পারেনি, তাদেরই হারিয়েছে চার্চিল ব্রাদার্স। আর পালটে যাওয়া সেই চার্চিলের বিরুদ্ধেই খেলতে নামতে হচ্ছে তাঁদের। ভারতীয় ফুটবলে অভিজ্ঞ ডেরেক পেরেইরার ছোঁয়ায় ভোল বদলে গেছে গোয়ার দলটির। গত তিন ম্যাচে তারা ৯টি গোল করেছে। হারিয়ে দিয়েছে শিবাজিয়ান্স ও মোহনবাগানকে। তাই প্রথম লেগে যে দুর্বল চার্চিলকে পাওয়া গিয়েছিল, এ বারে তা হচ্ছে না। তাই তাদের হাতে কোনো ভাবেই নিজের দলের ছন্দ বিগড়ে যাক, চাইছেন না মরগ্যান। ফুটবলারদের সরাসরি বলছেন, কাপ চাইলে ধারাবাহিকতা দেখাতে হবে খেলায়। আর ডেরেক ম্যাচের আগের দিনই মানসিক পালটা চাপটা দিয়ে বলে রাখলেন, “চাপে আছে ইস্টবেঙ্গলই। আমরা তো এই অ্যাওয়ে ম্যাচ থেকে ১ পয়েন্ট নিয়ে ফিরতে পারলেই খুশি হব।”

আসলে শিলংয়ের বিরুদ্ধে জিতলেও ইস্টবেঙ্গলের খেলায় প্রয়োজনীয় দখল ছিল না। দলের ছন্নছাড়া ফুটবলকে এক সুতোয় গাঁথার কাজটাই তাই মন দিয়ে করছেন মরগ্যান। চার্চিল ম্যাচকেই সেই জন্য মঞ্চ করে ব্রিটিশ কোচ বলছেন, ‘”এক-একটা করে ম্যাচ ধরে এগোতে হবে। ও ভাবে কোনো ম্যাজিক ফিগার নেই ভাবনায়।” প্রতিপক্ষ চার্চিল নিয়ে প্রশংসার পাশাপাশি মরগ্যান মজার ছলে বললেন, “প্রথমার্ধে দেখেছি ওদের খেলা, দ্বিতীয়ার্ধে তো আলো নিভে গিয়েছিল। তাই দেখতে পাইনি।”

এ দিকে চোট সারিয়ে প্রায় পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন লাল-হলুদ আক্রমণের ভরসা উইলিস প্লাজা। মরগ্যান জানিয়ে দিয়েছেন, ’১৮ জনের দলে থাকবেন প্লাজা।’ আপফ্রন্টে শুরুটা হয়তো করবেন পেইন-রবিন জুটিই। গত ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ান স্ট্রাইকার ক্রিস্টোফার পেইন জোড়া গোল করা ছাড়া সে ভাবে খেলতে পারেননি। কোচ যদিও তাঁর খেলায় খুশি। সঙ্গে তাঁর ও রবিনের বোঝাপড়াতেও। আর বেঙ্গালুরু ম্যাচের নায়ক রবিন চাইছেন আরও গোল পেতে। ওয়েডসন না থাকায় একটু নীচে শুরু করবেন পেইন। এ ছাড়া প্রথম দলে ফেরার সম্ভাবনা ডিকার। উইংয়ের বদলে ডিস্ট্রিবিউটারের স্থানে তাঁকে খেলাতে পারেন মরগ্যান। এ ছাড়া রফিক আগের ম্যাচে যে রকম পারফর্ম করেছেন, তাতে তাঁকে বসালে এক প্রকার অবিচারই করা হবে। তবে রক্ষণে পরিবর্তনের ইঙ্গিত মিলেছে। শিলং ম্যাচে একেবারেই ছন্দে ছিলেন না গুরবিন্দর। শেষ দিকে আনোয়ার নেমে পরিস্থিতি সামলান। তাই আনোয়ার বা অর্ণব শুরু করতে পারেন বুকেনার সঙ্গী হিসেবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here