খবর অনলাইন: এই দেশটা সম্পর্কে ইউরোয় একটা রসিকতা চলছে যে, তাদের জনসংখ্যার কুড়ি শতাংশই মাঠে আসছেন প্লেয়ারদের হয়ে গলা ফাটাতে। জনসংখ্যার বিচারে বিশ্বের ১৮২তম এই আইসল্যান্ড, বরফ আর আগ্নেয়গিরির সহাবস্থানে যাকে আদর করে বলা হয় আগুন আর বরফের দেশ, ফের অঘটন ঘটিয়ে ফেলল। ২-১ গোলে হারাল নামে ‘ফুটবলের বাঘ’ অথচ খেলায় ‘ইঁদুর’ ইংল্যান্ডকে। ‘ব্রেক্সিট’-এর পর এ বার ইউরোর আসর থেকে ‘এক্সিট’ হল।

এ দিন ম্যাচ শুরু চার মিনিটের মাথায়েই রুনির পেনাল্টির দৌলতে এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড। ব্যাস, ইংল্যান্ডের বলার মতো এই ম্যাচে আর কিছু ছিল না। এর ঠিক দু’মিনিট পরেই সিগার্ডসনের হেডে সমতা ফেরায় আইসল্যান্ড। বারো মিনিট পর আবার আইসল্যান্ড। ইংল্যান্ড গোলকিপার হার্টের ভুলে জালে বল জড়ান সিগোর্থসন। এর পরই ক্রমাগত ডিফেন্সে ইংল্যান্ডের টুঁটি চেপে ধরে আইসল্যান্ড। এতটাই আটুট ছিল সেই রক্ষণের দেওয়াল যে তা ভেদ করে বিপক্ষের গোলের কাছে এগোতে না পেরে পরের পর লং-রেঞ্জ শট খেলতে হচ্ছিল ইংল্যান্ডের ফুটবলারদের। ৬০ মিনিটে পরিবর্ত খেলোয়াড় জেমি ভার্দিকে নামালেও বিশেষ লাভ হয়নি। ম্যাচ শেষের মুহূর্তে ইংল্যান্ডের গোলকিপার সিগার্ডসনের শট না বাঁচালে কপালে আরও দুঃখ ছিল ইংল্যান্ডের।

ম্যাচ শেষে, নিজেদের ঢঙে সমর্থকদের সাথে তাল মিলিয়ে আইসল্যান্ডের ফুটবলারদের হাততালি দেওয়ার চেনা ছবিটা দেখা যায়, যা ‘স্লো-হ্যান্ড ক্ল্যাপ সেলিব্রেশন’ নামে পরিচিত হয়েছে। নিজের দায়িত্ব থেকে পদত্যাগ করেন হতাশ ইংল্যান্ডের কোচ রয় হজসন।

এই ম্যাচ দিয়ে শেষ হল প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াই। কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচগুলি হবে: পর্তুগাল বনাম পোল্যান্ড (১ জুলাই), ওয়েলস বনাম বেলজিয়াম (২ জুলাই), জার্মানি বনাম ইতালি (৩ জুলাই) আর ফ্রান্স বনাম আইসল্যান্ড (৪ জুলাই)। সব ম্যাচগুলিই হবে রাত সাড়ে ১২টায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here