আইএসএল ২০২১: বেঙ্গালুরুর কাছে পয়েন্ট খোয়াল এটিকে মোহনবাগান

0
Roy Krishna OF ATKMB
গোল করার পরে রয় কৃষ্ণের আনন্দ। কিন্তু এই আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হল না। ছবি সৌজন্যে ISL Twitter।

এটিকে মোহনবাগান ৩ (শুভাশিস বোস, হুগো বুমৌস, রয় কৃষ্ণ)

বেঙ্গালুরু এফসি ৩ (ক্লাইটন সিলভা, ড্যানিশ ফারুক ভাট, প্রিন্স আইবারা)

ব্যাম্বোলিম (গোয়া): এ বারের আইএসএল-এ অন্যতম আকর্ষণীয় ম্যাচ হল বৃহস্পতিবার। আবার বইল গোলের বন্যা। আবার পয়েন্ট খোয়াল এটিকে মোহনবাগান।

এ দিন ব্যাম্বোলিমের জিএমসি অ্যাথলেটিক স্টেডিয়ামে এটিকে মোহনবাগান বনাম বেঙ্গালুরু এফসি ৩-৩ গোলে শেষ হল। প্রথমার্ধেই ৪টি গোল হয়। বাকি ২টি গোল হয় দ্বিতীয়ার্ধে।

এ দিনের ম্যাচের পর এটিকে মোহনবাগান ৬টা ম্যাচ থেকে ৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করে লিগ টেবিলের ষষ্ঠ স্থানেই রইল। আর বেঙ্গালুরু এফসি ৭টা ম্যাচ থেকে ৫ পয়েন্ট সংগ্রহ রইল নবম স্থানে।  

প্রথমার্ধে ২-২

ম্যাচ শুরু থেকেই সমানে সমানে চলতে থাকে। ১১ মিনিটে ক্লাইটন সিলভার শট ধরেন মোহনবাগানের গোলকিপার অমরিন্দর সিং। পরের মিনিটেই রয় কৃষ্ণের দুর্দান্ত বাঁচান বেঙ্গালুরুর গোলকিপার গুরপ্রীত সিং।

১৩ মিনিটেই গোল করে এগিয়ে জেন এটিকে মোহনবাগান। বুমৌসের কর্নার থেকে হেড করে গোল করেন শুভাশিস বোস। গুরপ্রীত কাছে পিঠে ছিলেন না।

৫ মিনিট পরেই গোল শোধ করে দেয় বেঙ্গালুরু। নিজেদের বক্সে ক্লাইটন সিলভাকে ফেলে সেন লিস্টন। পেনাল্টি পায় বেঙ্গালুরু। পেনাল্টি কিকে অমরিন্দরকে পরাস্ত করেন সিলভা।

এ বার এগিয়ে যায় বেঙ্গালুরু। ম্যাচের ২৬ মিনিটে কর্নার কিকে মাথা ছুঁইয়ে মোহনবাগানের গোলের ক্রসবারের তলা দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন ড্যানিশ ফারুক ভাট।

১০ মিনিট পরে ম্যাচ ২-২ করে এটিকে মোহনবাগান। বল নিয়ে অনেকটা দৌড়ে হুগো বুমৌসকে মাপা পাস দেন রয় কৃষ্ণ। গোল লক্ষ্য করে শট নয়ে গুরপ্রীতকে পরাস্ত করতে কোনো ভুলচুক করেননি বুমৌস।

১৪ মিনিট এগিয়ে থাকল মোহনবাগান

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৩ মিনিটে গোলের সুবর্ণ সুযোগ নষ্ট করে মোহনবাগান। সরাসরি কর্নার থেকে গোল লক্ষ্য করে শট নেন বুমৌস। গুরপ্রীত হাতে সেই বল লাগান কিন্তু ঠিক ক্লিয়ার করতে পারেননি। বল রিবাউন্ড খেয়ে চলে যায় মোহনবাগানের ফিনিশীয় ফুটবলার ইয়োনি কাউকোর কাছে। কাউকো যে শট নেন তা ক্রসবারের উপর দিয়ে চলে যায়।

৫ মিনিট পরে গোল করে এগিয়ে যায় মোহনবাগান। এর জন্য দায়ী বেঙ্গালুরুর প্রিন্স আইবারা। তিনি নিজেদের বক্সে ফাউল করেন রয় কৃষ্ণকে। পেনাল্টি থেকে কোনো ভুলচুক করেননি কৃষ্ণ।

মোহনবাগানের এই লিড ১৪ মিনিট স্থায়ী হয়েছিল। ম্যাচের ৭২ মিনিটে সমতা আনে বেঙ্গালুরু। গোল করেন আইবারা। কর্নার কিকে হেড করে পরাস্ত করেন অমরিন্দরকে।

এর পর দু’ দলই গোল করার মতো আর তেমন সুযোগ পায়নি। এ দিনের ম্যাচে শুভাশিস বোস ‘হিরো অব দ্য ম্যাচ’ নির্বাচিত হন।

আরও পড়তে পারেন

বিরাট-বিতর্কে অবশেষে মুখ খুললেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

সাড়ে ৩ বছর পর অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হিসেবে ফিরলেন স্টিভ স্মিথ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন