ভাগ্য এবং বৃদ্ধ ডুডুর সহায়তায় সুপার কাপের ফাইনালে ইস্টবেঙ্গল

0
1251
dudusupercup

এফসি গোয়া – ০              ইস্টবেঙ্গল – ১

ওয়েবডেস্ক: সুপার কাপের ফাইনালে ইস্টবেঙ্গল। সোমবার প্রথম সেমিফাইনালে ডুডুর করা একমাত্র গোলে তারা হারাল এফসি গোয়াকে। তবে এ দিনের ম্যাচে কিছুটা ভাগ্য সহায় না থাকলে পরিস্থিতি অন্য রকমও হতে পারত লালহলুদের পক্ষে।

এ দিন শুরুটা অবশ্য খারাপ করেনি ইস্টবেঙ্গল। লোবো এবং সামাদের শট একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এই ম্যাচে মানসিক ভাবে কিছুটা পিছিয়ে শুরু করেছিল গোয়া। প্রথম দলের পাঁচ ফুটবলারের কার্ড সমস্যায় না থাকা। তবে তার ফল মাঠে একবারও বোঝা যায়নি। ধীরে ধীরে ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করে তারা। এ দিনের ম্যাচে এফসি গোয়ার সবথেকে নজরকাড়া পারফরমেন্স মহাম্মদ আলির। একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় তাঁর হেডার। প্রতি আক্রমণ চালাতে থাকে ইস্টবেঙ্গলও। ফাঁকা জালে বল ঢোকাতে ব্যর্থ হন আল আমনা। এর মিনিট খানেকের মধ্যে ফের সুযোগ পায় ইস্টবেঙ্গল। গোল করতে ব্যর্থ হন ডুডু। তবে প্রথমার্ধে জাপানি মিডফিল্ডার কাতসুমি সহজ সুযোগ হাতছাড়া না করলে বিরতিতে এগিয়ে যেতে পারত ইস্টবেঙ্গল। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে নিজেদের সবথেকে সহজতম সুযোগটি পায় গোয়া। কোরোর বিপদজনক বল বাঁচিয়ে দেন ইস্টবেঙ্গল ডিফেন্ডাররা।

দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য আক্রমণ, প্রতি আক্রমণে শুরু হয় খেলা। শুরুটা ভালোই করে গোয়া। মনবীর, মান্দার রাওরা সাধ্যমতো আক্রমণ চালাতে থাকেন ইস্টবেঙ্গল বক্সে। তবে প্রতি আক্রমণে, গোলের লক্ষ্যে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দেয় ইস্টবেঙ্গলও। প্রথমে আমনার ফ্রি-কিক বাঁচান গোয়া গোলকিপার কাট্টিমণি। ফের সুযোগ হাতছাড়া করেন কাতসুমি। এবারও ফাঁকা গোলে বল রাখতে ব্যর্থ হন তিনি।

ফুটবলে অবশ্য একটা প্রচলিত কথা আছে। পোস্টে লাগলে দিন খারাপ যায়। তার প্রমাণ এ দিন পেল গোয়া দল। প্রথমে কোরোর ফ্রি-কিক পোস্টে লাগে। এর কিছুক্ষন বাদেই ইস্টবেঙ্গলের হয়ে একমাত্র গোলটি করে যান ডুডু। যা শেষ পর্যন্ত ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেয়। পিছিয়ে পড়েও সমতা ফেরানোর লক্ষ্যে এগিয়ে আসে গোয়া। তবে গোল-মুখ খুলতে ব্যর্থ হন মনবীর সিংরা। এরই মাঝে গোয়া অধিনায়ক এডু বেদিয়া লাল কার্ড দেখলে ম্যাচ থেকে আরও দূরে সরে যায় গোয়া।

ম্যাচ শেষে ইস্টবেঙ্গল কোচ খালিদ জামিল জানান,” ফুটবলে জয়টাই শেষ কথা বলে। লক্ষ্য এখন ট্রফি জয়। ফাইনালে নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব আমরা”।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here