কলকাতা: টুটু বনাম অঞ্জন গোষ্ঠীর গোলমাল শুরু হওয়ার পরেই মোহনবাগান ক্লাব নিয়ে নড়েচড়ে বসেছিলেন আজন্ম মোহনবাগানি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। কারণ শুধু নিজের ভাই নয়, তাঁর দলের অনেকেই প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে এই ক্লাবের সঙ্গে জড়িয়ে। মন্ত্রী সুব্রতকে সমস্যা সামলানোর কথাও বলেছিলেন। যদিও সরাসরি ক্লাব রাজনীতিতে ঢুকতে চানি। কিন্তু এখন জল অনেকদূর গড়িয়ে গিয়েছে। নতুন পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির ক্লাবে হস্তক্ষেপের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভায় গোলমাল শুরু হওয়ার পর সেদিকে কড়া নজর ছিল মমতার। সাংসদ প্রসূন ব্যানার্জি মঞ্চে ওঠা এবং বাবুন ব্যানার্জির তাঁর সঙ্গে জড়িয়ে পড়ার পর সৃঞ্জয় বসুর কাছে নবান্ন থেকে ফোন আসে বলে অসমর্থিত সূত্রের খবর। তাঁক বলা হয়, প্রসূনকে সংযত করতে, বাবুনকে মাথা ঠান্ডা করতে বলতে এবং সভা শুরু করতে। তারপর সেইমতো কাজ হয়।

কিন্তু সভা শেষ হওয়ার পর প্রসূন ব্যানার্জি বাবুনকে অশ্লীল ভাষায় গালাগালি করেন বলে অভিযোগ। বাবুন তখন পুলিশকে ফোন করেন। পুলিশ ক্লাবে আসলে, তাঁদের কাছে বাবুন লিখিত ভাবে প্রসূনের বিরুদ্ধে এফআইআর করেন। অন্যদিকে ময়দান থানায় প্রসূনের বিরুদ্ধে এফআইআর করেন অঞ্জন-কন্য সোহিনী চৌবে ও জামাই কল্যাণ চৌবে। রাতে আরও জল গড়ায়। পদত্যাগী সভাপতি টুটু বসুর কাছেও রাজ্য প্রশাসনের শীর্ষস্তর থেকে ফোন আসে বলে ক্লাবের কোনো কোনো মহলের দাবি। যদিও সেই কথোপকথনের বিষয়বস্তু জানা যায়নি।

শনিবারের ঘটনাক্রম নিয়ে এদিন সকালে ক্লাবের সচিব অঞ্জন মিত্র বলেন, তাঁর নিজস্ব চিত্রগ্রাহকরা সেদিন মঞ্চে কী হয়েছে, তার সমস্ত ছবি তুলে রেখেছেন। সেই ছবির ভিত্তিতে কর্মসমিতির সভা ডেকে, যারা গণ্ডগোল করেছে, তাঁদের সকলের বিরুদ্ধে তিনি ব্যবস্থা নেবেন। সেই ব্যবস্থা শুধু ক্লাবের দিক থেকে নয়, পুলিশের কাছে এফআইআর-ও করা হতে পারে বলে ইঙ্গিত সচিবের। তাঁর আরও ইঙ্গিত, যারা গোলমাল করেছেন তাঁদের সকলের প্রাথমিক সদস্যপদও কেড়ে নেওয়া হতে পারে। পাশাপাশি এদিন সচিব বলেন, ক্লাবের সমস্যা নিয়ে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করবেন।

সচিবের এই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া এড়িয়ে গিয়েছেন ক্লাবের সহ সচিব সৃঞ্জয় বসু। ক্লাবের একটি প্রভাবশালী মহল মনে করছে, নিজেদের ক্ষমতা রক্ষায় মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হতে পারেন তাঁরাও।

সব মিলিয়ে স্পষ্ট শনিবারের গোলমালের রেশ এখনও অনেকদূর গড়াবে।

অন্যদিকে মোহনবাগানের প্রবীণ দলের সঙ্গে খেলতে সেপ্টেম্বরে কলকাতায় আসছে বার্সেলোনার প্রবীণ দল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here