ওয়েবডেস্ক: দু-তিন দিন আগেই ছড়িয়েছে খবরটা। ১০০ মিলিয়ন পাউন্ড ট্রান্সফার ফি-তে জুভেন্তাসে যোগ দিচ্ছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। খবরটাকে আরও প্রতিষ্ঠা করেছে দু-একটা তথ্য। গত বছর বেতন বাড়েনি রোনাল্ডোর। মেসির থেকে কম টাকা পাওয়ায় তিনি ক্ষুব্ধ। চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ হওয়ার পরই শোনা যাচ্ছিল ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেডে ফিরে যেতে পারেন তিনি। কিংবা যেতে পারেন পিএসজি-তে। কিন্তু জুভেন্তাসে যাওয়ার খবরটা নতুন। আরও যেটা ছড়িয়েছে, তা হল- জুভেন্তাসের শর্তাবলী পছন্দ হয়েছে সিআর সেভেনের। সই হওয়া শুধু সময়ের অপেক্ষা।

খবর ছড়ানোর পরই সোশাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে জুভেন্তাস। যেখানে এর আগে(১৯৯০ সাল থেকে নির্দিষ্ট জার্সির নিয়ম শুরু হওয়ার পর) সেই ক্লাবের যে ছয় জন ফুটবলার সাত নম্বর জার্সি পরেছেন, তাঁদের তালিকা প্রকাশ করা হয়। ফাঁকা রাখা হয় সাত নম্বর জায়গাটি। তারপর অবশ্যটি ভিডিওটি মুছে দেওয়া হয়। এ সবের মধ্যেই হুহু করে বাড়তে থাকে জুভেন্তাসের শেয়ারের দর।

এতদিনে অবশ্য রিয়াল বা জুভেন্তাস-কোনো পক্ষ থেকেই কোনো সরকারি বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এদিন মুখ খুললেন, রিয়ালে রোনাল্ডোর গত ছয় মরশুমের সতীর্থ লুকা মদরিচ। ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক এদিন বলেছেন,”দেখা যাক কী হয়। আমার মনে হয় না ও যাবে, আমি চাই ও থাকুক কারণ ওই বিশ্বের সেরা ফুটবলার”।

“আমার মনে হয় ও থাকবে-এটা আমার মতামত। ও থআকলে খুবই ভাল হয় কারণ অন্য কোনো ইউরোপিয়ান ক্লাবে রোনাল্ডোকে আমি কল্পনাও করতে পারি না”।

রিয়াল মাদ্রিদের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট রামোন ক্যালদেরন বলেছেন, “রোনাল্ডো যদি রিয়াল ছাড়ে তাহলে এমন একটা শূন্যস্থান তৈরি হবে, যা পূরণ করা সম্ভব নয়। কারণ এমন একজন চ্যাম্পিয়ন ফুটবলারকে সহজে পাওয়া যায় না যে দলের খেলার সঙ্গে মিশে থআকে এবং নয় মরশুম ধরে প্রতি বছর পঞ্চাশটিরও বেশি গোল করে চলে”।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here