uel-semi

ওয়েবডেস্ক: ঘরের মাঠে এগিয়ে গিয়েও ড্র করল আর্সেনাল। বৃহস্পতিবার ইউরোপা লিগের সেমিফাইনালের প্রথম লেগে তারা মুখোমুখি হয়েছিল আতলেতিকো মাদ্রিদের। ইউরোপিয়ান টুর্নামেন্টে এটাই ছিল বিদায়ী কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গারের শেষ হোম ম্যাচ। তাই এ দিন শুরু থেকেই ঘরের মাঠে আক্রমণ করতে থাকে গানার্সরা। ফলে প্রথম থেকেই ডিফেন্সিভ চাপের মধ্যে পড়ে যায় আতলেতিকো। যার ফল ম্যাচের মাত্র ন’য় মিনিটে তাদের খেলোয়াড় ভসালিখোকে মাঠ ছাড়তে হয়। দ্বিতীয় বার ফাউলের জন্য তাঁকে লাল কার্ড দেখাতে ভুল করেননি রেফারি। দশ জন হয়ে যাওয়ার ফলে, ম্যাচে প্রবল ভাবে আক্রমণ শানাতে থাকে আর্সেনাল। তবে এরই মাঝে বিপক্ষ খেলোয়াড়কে রেফারির কার্ড না দেখানোয়, তাঁর সঙ্গে তীব্র বাগ-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন  আতলেতিকো কোচ দিয়েগো সিমিয়োনি। যার ফলে দিয়েগোকে দর্শকাসনে পাঠিয়ে দেন রেফারি। অপর দিকে ক্রমাগত সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন আর্সেনালের ওয়েলব্যাক, লাকাজেটরা। তবে এ দিন আতলেতিকো দুর্গে পাহাড় হয়ে দাঁড়ালেন তাদের গোলকিপার ওব্লাক। একাই নিজের হাতে দলের নিশ্চিন্ত পতন রোধ করলেন। প্রথমার্ধে গোলশূন্য ভাবেই শেষ করে আর্সেনাল।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আতলেতিকো অঞ্চলে ঝড় তুলতে থাকে আর্সেনাল। যার ফল অবশেষে পেয়ে যায় তারা। ৬১ মিনিটে আর্সেনালকে এগিয়ে দেন ফরাসি জাতীয় দলের স্ট্রাইকার, আলেকজান্ডার লাকাজেট। চোট কাটিয়ে এই মুহূর্তে গোলের ফর্মে রয়েছেন তিনি। যার প্রমাণ এ দিনের ম্যাচে তাঁর গোল। এগিয়ে গিয়েও আক্রমণ বাড়াতে থাকে আর্সেনাল। তবে ম্যাচের বেশির ভাগ দশ জনে খেলেও প্রতি-আক্রমণে সুযোগ কাজে লাগানোর চেষ্টা করেন গ্রিজম্যানরা। এই মরশুমে ডিফেন্স যে আর্সেনালকে ভুগিয়েছে তার প্রমাণ ফের পাওয়া গেল। ম্যাচ শেষ হওয়ার প্রায় দশ মিনিটে আগে আর্সেনাল ডিফেন্সের ভুলে আতলেতিকোর হয়ে গুরুত্বপূর্ণ অ্যাওয়ে গোলটি পেয়ে যান ফরাসি দলের স্ট্রাইকার গ্রিজম্যান।

ম্যাচ শেষে আর্সেনাল কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গার জানান, “ছেলেরা ভালো খেলেছে। তবে আতলেতিকোর হয়ে ওব্লাকের পারফর্মেন্স দুর্দান্ত। দ্বিতীয় লেগে আমরা নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব।”

অন্য দিকে অপর সেমিফাইনালে প্রথম লেগে ঘরের মাঠে দু’গোলের ব্যবধানে মার্সেই হারাল সালৎস্‌বুর্গকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here