ডিকার জোড়া গোল, পিছিয়ে থেকেও ‘সুপার জয়’ মোহনবাগানের

0

চার্চিল ব্রাদার্স – ১ ( প্লাজা )       মোহনবাগান – ২ ( ডিকা )

ওয়েবডেস্ক: জয় দিয়েই সুপার কাপের সূচনা করল মোহনবাগান। এদিন কলিঙ্গ স্টেডিয়ামে প্রি কোয়ার্টারে তারা হারাল আই লিগের অবনমনিত দল চার্চিল ব্রাদার্সকে। শুরুতে অবশ্য ঘর গুছিয়ে প্রতি-আক্রমণের চেষ্টা করে দু’দলই। ধীরে ধীরে খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসে মোহনবাগান। ২৮ মিনিটে সহজ মিস করেন ডিকা। ফৈয়াজের দেওয়া বল বাইরে মারেন। তবে প্রতি-আক্রমণে গিয়ে, এর কয়েক মিনিটের মধ্যে চার্চিলের হয়ে গোল করেন ইস্টবেঙ্গলের বাতিল বিদেশি উইলিস প্লাজা। পিছিয়ে পড়ে আক্রমণের ঝাঁজ বাড়াতে থাকে মোহনবাগান। গোল করতে ব্যর্থ, আক্রম, কিনোয়াকিরা। ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা চালায় চার্চিলও। তবে অতিরিক্ত সময়ে বক্সে ফৈয়াজকে ফাউল করায়, পেনাল্টি পায় মোহনবাগান। প্রথম চেষ্টায় অবশ্য পেনাল্টি বাঁচিয়ে দেন চার্চিল গোলকিপার। তবে বলটি অনুসরণ করে গোল করেন আই লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা ডিপান্ডা ডিকা। ব্যবধান ফিরিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করে মোহনবাগান।

দ্বিতীয়ার্ধে শুরু থেকেই জয়ের জন্য ঝাঁপায় সবুজমেরুন। সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেন নিখিল কদম, আক্রমরা। লাগাতার আক্রমণের ফল পেতে বেশি সময় লাগেনি মোহনবাগানের। ৬৯ মিনিটে ওয়াটসনের ফ্রি কিক থেকে আক্রমের নামানো বলে দলের এবং নিজের দ্বিতীয় গোলটি করে ম্যাচের সেরা ডিকা। পিছিয়ে পড়ে সমতা ফেরানোর চেষ্টা চালায় চার্চিলও। তবে গোলমুখ খুলতে ব্যর্থ। আক্রমণ শানিয়ে যেতে থাকে মেরিনার্সরাও। কিনোয়াকির শট বাঁচান চার্চিল গোলরক্ষক। শেষ দিকে সমতা ফেরানোর খুব কাছাকছি চলে আসেন চার্চিলের গোলদাতা প্লাজা। তবে গোল করতে ব্যর্থ তিনি।

ম্যাচ শেষে মোহনবাগান কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী জানান, “পিছিয়ে পড়ে জয় পাওয়া অনেক বড়ো ব্যাপার। মানসিক দিক দিয়ে চাঙ্গা থাকবে ছেলেরা। লক্ষ্য এই জয় ধরে রাখা পরবর্তী ম্যাচে”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.