ইস্টবেঙ্গল-১(লোবো)    মিনের্ভা পঞ্জাব-০

ওয়েবডেস্ক: ম্যাচের ৩৩ মিনিটে ডুডুর সেন্টারটায় যদি ইয়ামি লংভা ঠিকমতো পা ছোঁয়াতে পারতেন, তাহলে তখনই ১ গোলে এগিয়ে যায় ইস্টবেঙ্গল।

ম্যাচের ৪৭ মিনিটে রালতের শট লাগল দানোর হাতে। পরিষ্কার পেনাল্ট দিলেন না রেফারি। তাহলে হয়তো তখনই লিড পেয়ে যেত লালহলুদ।

শেষ অবধি ম্যাচের ৬০ মিনিটের মাথায় আমনার হিল থেকে বল পেয়ে ডান পায়ের দুরন্ত শটে গোল করলেন কেভিন লোবো। সেই গোল আর শোধ করতে পারল না আই লিগে ১ নম্বরে থাকা মিনের্বা পঞ্জাব।

চোট থেকে ফিরে চমৎকার খেলে ম্যাচের সেরা হলেন আল আমনা।

তুল্যমূল্য বিচারে গোটা ম্যাচে কেউ কারও চেয়ে কম যায়নি। কিন্তু একটা কিছু চমকপ্রদ না হলে এই ম্যাচে জয়-পরাজয় নির্ধারিত হওয়া কঠিন ছিল। বিশেষত রেফারি ইস্টবেঙ্গলকে পেনাল্টি থেকে বঞ্চিত করার পর। কারণ ১ পয়েন্ট নেওয়ার মতো করেই দলের স্ট্র্যাটেজি সাজিয়েছিলেন মিনের্ভা কোচ।

এদিনের ম্যাচের পর ২৬ পয়েন্ট হয়ে গেল খালিদের ছেলেদের। এখনও আই লিগ হাতে এসে যায়নি। কিন্তু মিনের্ভা যদি পরের ম্যাচগুলোয় রেফারির বদান্যতা না পায়, যদি পয়েন্ট নষ্ট করে। আর ইস্টবেঙ্গল যদি বাকি চারটি ম্যাচ জেতে। তাহলে সবকিছুই হতে পারে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন