eb

আইজল – ৩                                                ইস্টবেঙ্গল – ২ 

ওয়েবডেস্ক: ফুটবল ম্যাচে যা যা থাকা দরকার, শনিবার আইজল-ইস্টবেঙ্গল ম্যাচে তাই উপলব্ধি করলেন মাঠ থেকে শুরু করে টিভির দর্শকেরা। চলতি আইলিগের অন্যতম সেরা ম্যাচ হিসাবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে এই ম্যাচ। সারা ম্যাচে বল পজেশনে আইজলকে কিছুটা টেক্কা দিলেও, গোলসংখ্যায় কিন্তু শেষপর্যন্ত পিছিয়েই থাকল আলেজান্দ্রোর ছেলেরা। যার ফল- লিগে পর পর হারের সম্মুখীন মশাল-বাহিনী।

অ্যাওয়ে ম্যাচে অবশ্য শুরুতেই এগিয়ে যেতে পারত ইস্টবেঙ্গল। কিন্তু ছয় মিনিটের মাথায় জালে বল ঢোকাতে ব্যর্থ জবি জাস্টিন। অন্যদিকে ধীরে ধীরে চাপ বাড়াতে থাকে আইজলও। ম্যাচে বেশ নজর কাড়লেন তাদের তারকা খেলোয়াড় ক্রোমা। এবং ২৫ মিনিটে তাঁরই তৈরি বলে পাহাড়ের দলটিকে এগিয়ে দেন ডোডোজ। লিগের প্রথম ম্যাচে লাল-হলুদ জার্সিতে নজর কেড়েছিলেন নতুন খেলোয়াড় এনরিকে।  সহজ সুযোগ পেয়েছিলেন কিন্তু জালে ঢোকাতে ব্যর্থ তিনি। তবে বিরিততে যাওয়ার আগে ফ্রিকিক থেকে চুলোভার শট গোললাইন পার করে গেলেও গোল দেননি রেফারি। ফলে এগিয়ে থেকেই ড্রেসিংরুমে যায় আইজল।

দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণ-প্রতিআক্রমণে শুরু দু’দলের। গোলও পেয়ে গিয়েছিলেন ক্রোমা কিন্তু অফসাইডের জন্য তা বাতিল হয়ে যায়। অন্য দিকে সমতা ফেরানোর লক্ষে বিপক্ষে বক্সে চাপ বাড়ায় ইস্টবেঙ্গল। যার ফল ৬৩ মিনিটে ফ্রিকিক থেকে হেডে দলের হয়ে ব্যবধান কমান জবি জাস্টিন। এর রেশ কাটতে না কাটতেই ফের গোল আসে তাঁদের। এ ক্ষেত্রে কর্নার থেকে জটলা হওয়া বলে ইস্টবেঙ্গলকে এগিয়ে দেন বোরহা। তবে ম্যাচে বেশিক্ষণ লিড হয়নি মশাল-বাহিনীর। দু’মিনিটের মধ্যে আইজলের হয়ে সমতা ফেরান জো। এ ক্ষেত্রেও কর্নার থেকে তৈরি জটলা বলে গোল। সমতা ফিরিয়ে চাপ বাড়াতে থাকেন ক্রোমারা। যার ফল ৮৩ মিনিটে ডোডোজের দেওয়া বলে আইজলের হয় জয়সূচক গোল মাপুইয়ার।

ফলে ঘররে মাঠে ইস্টবেঙ্গলকে হারিয়ে লিগে প্রথম জয় তুলে নিল আইজল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here