নেরোকাকে উড়িয়ে লিগে প্রথম জয় ইস্টবেঙ্গলের

0

নেরোকা ১ (দিয়ারা) :: ইস্টবেঙ্গল ৪ ( কোলাদো ২, গঞ্জালেজ, মার্কোস)

ইম্ফল: প্রথম দু’টো ম্যাচ ড্র করার পর দুর্দান্ত ভাবে ঘুরে দাঁড়াল ইস্টবেঙ্গল। একটা বা দু’টো নয়, প্রতিপক্ষের জালে জড়াল চার চারটে গোল। তাও আবার অ্যাওয়ে ম্যাচে। তিন ম্যাচে পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে এখন চনমনে আলেজান্দ্রো বাহিনী।

মরশুমের প্রথম দুই ম্যাচে জয় না আসায় চাপ বাড়ছিল লাল হলুদ শিবিরের ওপরে। সেই চাপ কাটানোর জন্য দরকার ছিল একটা দুর্দান্ত জয়। মঙ্গলবার ঠিক সেটাই হল। উত্তরপূর্বের দলগুলি তাদের ঘরের মাঠে রীতিমতো শক্তিশালী দল। ফলে সেখানে গিয়ে এই জয় ছিনিয়ে নিঃসন্দেহে বড়ো কৃতিত্বের।

এ দিনের এই ম্যাচে লাল-হলুদের হয়ে জোড়া পেনাল্টি থেকে দু’টি গোল করলেন কোলাদো। একটি করে গোল করেন গঞ্জালেজ এবং মার্কোস। অন্য দিকে, নেরোকার হয়ে একমাত্র গোলটি করেন দিয়ারা।

এ দিন ২০ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ইস্টবেঙ্গলকে এগিয়ে দেন কোলাদো। ১১ মিনিট পরেই অবশ্য নেরোকা ম্যাচে ফেরে। গোল করে সমতা ফেরান নেরোকার দিয়ারা। ম্যাচে সমতা ফিরে এলে পালটা আক্রমণে যায় ইস্টবেঙ্গল। ২ মিনিটের মধ্যেই ফের গঞ্জালেজের গোলে এগিয়ে যায় লাল-হলুদ শিবির।

এর পর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি ইস্টবেঙ্গলকে। ৫০ মিনিটে ফের পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান বাড়ান কোলাডো। ম্যাচের শেষ গোলটি করেন মার্কোস।

গত শনিবার অদ্ভুত পরিস্থিতিতে ইস্টবেঙ্গলকে মাঠে নামতে হয়েছিল। কোনো বিশ্রাম ছাড়াই পঞ্জাব এফসির বিরুদ্ধে নেমেছিল তারা। সেই পরিস্থিতিতে ইস্টবেঙ্গল যে ম্যাচটি ড্র করেছিল, সেটা খুব ভালো ব্যাপারই ছিল বলা যায়।

তবে, দুর্বল নেরোকার বিরুদ্ধে ক্লান্তির কোনো ছাপ ইস্টবেঙ্গলের খেলায় চোখে পড়েনি। শুরু থেকেই ঝকঝকে ছন্দময় ফুটবল খেললেন লাল-হলুদ ফুটবলাররা।

তিন ম্যাচে পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে আপাতত তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে লাল-হলুদ শিবির। কলকাতার অপর প্রধান মোহনবাগান রয়েছে নবম স্থানে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.